মার্কেটওয়াচ

শেষ ঘণ্টার ক্রয়চাপে বাজার ঊর্ধ্বমুখী

নিজস্ব প্রতিবেদক: সপ্তাহের তৃতীয় এবং মাসের শেষ কার্যদিবস ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতায় লেনদেন শেষ হয়েছে উভয় পুঁজিবাজারে।  ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৬০ শতাংশ শেয়ারের দরবৃদ্ধির পাশাপাশি সূচক ও লেনদেন দুটোই বেড়েছে। সব খাতই ইতিবাচক চিল। অর্থাৎ সব খাতে বেশিরভাগ শেয়ারের দর বেড়েছে। লেনদেনের শুরুতে সূচকের ওঠানামায় অস্থিরতা থাকলেও শেষ ঘণ্টার ক্রয়চাপে সূচক ক্রমেই ঊর্ধ্বমুখী হয়েছে। অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সব কয়টি সূচক এবং বেশিরভাগ শেয়ারের দর বেড়েছে। সেই সঙ্গে বেড়েছে লেনদেন। গতকালও বেক্সিমকো ফার্মার ৩০ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স গতকাল ২৩ দশমিক ৩৪ পয়েন্ট বা দশমিক ৩৮ শতাংশ বেড়ে ছয় হাজার ১৯ দশমিক ৫৯ পয়েন্টে অবস্থান করে। ডিএসইএস বা শরিয়াহ সূচক পাঁচ দশমিক ৭২ পয়েন্ট বা দশমিক ৪৩ শতাংশ বেড়ে এক হাজার ৩১৬ দশমিক ২৪ পয়েন্টে আর ডিএস৩০ সূচক পাঁচ দশমিক ২২ পয়েন্ট বা দশমিক ২৪ শতাংশ বেড়ে দুই হাজার ১৬৮ দশমিক শূন্য তিন পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন  বেড়ে চার লাখ ৯ হাজার ২৬ কোটি ৫৬ লাখ ৯১ হাজার টাকা হয়।

ডিএসইতে গতকাল লেনদেন হয় ৫৩৭ কোটি ৪৬ লাখ ৬৪ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের দিন লেনদেন হয় ৫০৯ কোটি ৬৩ লাখ ২৭ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে লেনদেন বেড়েছে ২৭ কোটি ৮৩ লাখ টাকা। এদিন ১৪ কোটি ৬৭ লাখ পাঁচ হাজার ৫৬০টি শেয়ার এক লাখ ৯ হাজার ৮২১ বার হাতবদল হয়। লেনদেন হওয়া ৩৩০টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৯৮টির, কমেছে ৯৩টির, অপরিবর্তিত ছিল ৩৯টির দর।

টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে আর্থিক খাতের লংকাবাংলা ফাইন্যান্স। ৩১ কোটি ৪০ লাখ টাকায় কোম্পানিটির ৪৮ লাখ ৯৭ হাজার ৪৫৭টি শেয়ার লেনদেন হয়। গতকাল কোম্পানিটির শেয়ারদর ৫০ পয়সা বেড়েছে। এর পরের অবস্থানগুলোয় ছিল বিবিএস কেব্লস, ব্র্যাক ব্যাংক, আমরা নেট, সিটি ব্যাংক,  এক্সিম ব্যাংক, খুলনা পাওয়ার, সাইফ পাওয়ার, এবি ব্যাংক ও স্কয়ার ফার্মা। সবচেয়ে বেশিসংখ্যক শেয়ার লেনদেন হয় এক্সিম ব্যাংকের। কোম্পানিটির ৫৭ লাখ ৮২ হাজার ২৫৫টি শেয়ার ৯ কোটি ৯৬ লাখ টাকায় লেনদেন হয়। শেয়ারটির দর ৩০ পয়সা বেড়েছে। এরপরের অবস্থানগুলোয় ছিল লংকাবাংলা ফাইন্যান্স, আইএফআইসি, এবি ব্যাংক, প্রিমিয়ার ব্যাংক, এনবিএল, জেনারেশন নেক্সট, কেয়া কসমেটিকস, স্যালভো কেমিক্যাল ও এফএএস ফাইন্যান্স।

৯ দশমিক ১৮ শতাংশ বেড়ে দরবৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে স্যালভো কেমিক্যাল। সাত দশমিক ৬৪ শতাংশ বেড়েছে আরডি ফুডের। এরপরে পাঁচ দশমিক ৪৭ শতাংশ বাড়ে ইনটেকের। জাহিন টেক্সের দর বেড়েছে পাঁচ দশমিক ৪৫ শতাংশ ও পাওয়ার গ্রিডের দর বেড়েছে পাঁচ দশমিক ৩৩ শতাংশ। অন্যদিকে সাত দশমিক ৬৬ শতাংশ দর কমেছে এসআইবিএলের। প্রাইম ফাইন্যান্স কমে পাঁচ দশমিক ৬৪ শতাংশ, গোল্ডেন সনের দর পাঁচ দশমিক ৪০ শতাংশ, এশিয়া প্যাসিফিক ইন্স্যুরেন্সের দর পাঁচ দশমিক ১৬ শতাংশ ও স্ট্যান্ডার্ড সিরামিকের দর চার দশমিক ৭৬ শতাংশ কমেছে।

চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) গতকাল সিএসসিএক্স মূল্যসূচক ৪৩ দশমিক ১৯ পয়েন্ট বেড়ে ১১ হাজার ২৭১ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৭১ দশমিক ৮০ পয়েন্ট বেড়ে ১৮ হাজার ৬৩৩ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল দিনজুড়ে ২৩৮টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে ১৫৪টির দর বেড়েছে, কমেছে ৬৫টির আর অপরিবর্তিত ছিল ১৯টির দর।

সিএসইতে এদিন ৬৫ কোটি ৭৪ লাখ ৫১ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয় ২৯ কোটি ১৩ লাখ ৪৩ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। সে হিসাবে লেনদেন বেড়েছে ৩৬ কোটি ৬১ লাখ টাকা। সিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে থাকা কোম্পানিগুলোর মধ্যে বেক্সিমকো ফার্মার ৩০ কোটি ৭৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। সিটি ব্যাংকের পাঁচ কোটি দুই লাখ টাকার, সাইফ পাওয়ার এক কোটি ৪৮ লাখ, এনসিসি ব্যাংক এক কোটি ২০ লাখ টাকার, বিবিএস  কেব্লস ৯৯ লাখ, লংকাবাংলা ফাইন্যান্স ৮৯ লাখ, এবি ব্যাংক ৮৭ লাখ, এনবিএল ৭৫ লাখ, আমরা নেট ৭৩ লাখ এবং জেনারেশন নেক্সটের ৬৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

 

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..