বাণিজ্য সংবাদ শিল্প-বাণিজ্য

শেষ হলো চতুর্থ জাতীয় যুব সম্মেলন

‘জাতীয় উন্নয়নের জন্য তরুণদের ক্ষমতায়ন’ প্রতিপাদ্যে জাগো ফাউন্ডেশনের আয়োজনে কক্সবাজারের লং বিচ হোটেলে গত বুধবার শুরু হয় চার দিনব্যাপী চতুর্থ জাতীয় যুব সম্মেলন ২০২০। গতকাল শেষ হয়েছে সম্মেলনটি।

তরুণদের বিভিন্ন ক্ষেত্রে পারদর্শিতা অর্জন, দীর্ঘ মেয়াদে বিকাশ ও বাংলাদেশের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জনে ভূমিকা রাখতে প্রয়োজনীয় দক্ষতা অর্জনের মাধ্যমে তরুণদের ক্ষমতায়নের জন্য উপযোগী প্ল্যাটফর্ম হলো জাতীয় যুব সম্মেলন। এ সম্মেলনের মাধ্যমে তরুণরা ভিন্ন পরিবেশে নিজেদের মানিয়ে নেওয়ার প্রয়োজনীয় জ্ঞান লাভের পাশাপাশি প্রায়োগিক বিষয়গুলো সম্পর্কেও ধারণা লাভ করে। 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল বলেন, ‘তারুণ্য প্রাণশক্তিতে ভরপুর। আর বাংলাদেশের প্রায় এক-তৃতীয়াংশ জনসংখ্যাই তরুণ। তাই, আমাদের তরুণদের উন্নয়নে গুরুত্ব দিতে হবে। এসডিজি অর্জনে আমরা আমাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছি। তরুণদের ক্ষমতায়নের মাধ্যমে বাংলাদেশের এসডিজির লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্য জাতীয় যুব সম্মেলন একটি শক্তিশালী প্ল্যাটফর্ম।’ 

অন্যদিকে, সম্মেলনে অতিথিরা তাদের অভিজ্ঞতা, আইডিয়া, তরুণ সমাজের কাছে তাদের প্রত্যাশার বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করেন। এ সক্রিয় তরুণ নাগরিকরা সম্মেলন শেষে নিজের জেলায় ফিরে গিয়ে নিজেদের কমিউনিটির বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে যুক্ত হবে এবং এসডিজির লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্য সামনের দিনগুলোতে কাজ করবে।

এ বছর সম্মেলনটিতে সারা দেশ থেকে আসা ৬০০ জন তরুণ  অংশ নিয়েছেন। সম্মেলনে ৩০টিরও বেশি কর্মশালা অনুষ্ঠিত হবে। প্রথম দিনের প্রশিক্ষণ কর্মসূচিতে অনুষ্ঠানের সূচনা ও মিশনের সুযোগ নিয়ে আলোচনা করা হয়। সম্মেলনের দ্বিতীয় ও পরের দিনগুলো জ্ঞান বিনিময়, দল গঠনের প্রয়োজনীয়তা ও তথ্যবহুল কর্মশালা দিয়ে সাজানো হয়। 

চার দিনব্যাপী এ সম্মেলনে সুপরিচিত ব্যবসায়ী নেতা ও প্রতিনিধিরা বিভিন্ন কর্মশালায় অংশ নিয়ে বিভিন্ন বিষয়ের ওপর তাদের মতামত দিয়েছেন। এর মধ্যে রয়েছে নেতৃত্বের গুণাবলি অর্জন, সড়কের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ, অর্থিক বিষয়ে ধারণা লাভ, তরুণদের উদ্বুদ্ধকরণ, এন্ট্রাপ্রেনিউরশিপ, অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন, কার্যকরী যোগাযোগ, মানবসম্পদ ও সাফল্য গাথা।

অনুষ্ঠানে জাগো ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক করভি রাকসান্দ বলেন, তরুণ জনগোষ্ঠীরাই সমাজের মেরুদণ্ড। তাদের বিভিন্ন বিষয়ে সম্পৃক্ত করা  ও তাদের  ক্ষমতায়নে কাজ করা আমাদের দায়িত্ব। এ তরুণরাই তাদের নিজেদের কমিউনিটির পরিবর্তনে শক্তিশালী ভূমিকা রাখতে পারে এবং বাংলাদেশের এসডিজি লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে।  বিজ্ঞপ্তি

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..