সারা বাংলা

শ্রমিক সমিতির ৪২ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

প্রতিনিধি, নোয়াখালী: নোয়াখালীর কোম্পানিগঞ্জ উপজেলায় কোম্পানিগঞ্জ শ্রমিক সমবায় সমিতি লিমিটেডের তিন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ৪২ লাখ ৫০ হাজার টাকা আত্মসাতের প্রমাণ পেয়েছে দুদক সমন্বিত কার্যালয় নোয়াখালী। গত রোববার বিকাল ৪টার দিকে দুদক সমন্বিত কার্যালয় নোয়াখালী ফোনে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

সূত্র জানায়, ওই সমিতির সভাপতি মো. সহিদ উল্যাহ, সাধারণ সম্পাদক কামাল উদ্দিন ও মমিনুল হককে সদস্য করে বসুরহাট-কবিরহাট সড়কের করালিয়া এলাকায় সমিতির নিজস্ব ১৫ শতক জমি বিক্রির দায়িত্ব দেওয়া হয়। কর্মকর্তারা ২০১৭ সালের ১৬ নভেম্বর বসুরহাট এসআর কার্যালয়ের দলিল নং-৪৬৬৮ অনুযায়ী প্রতি শতক ভূমি ১৪ লাখ ৩৩ হাজার ৩৩৩ টাকা দরে ২৫ জন গ্রহীতার কাছে ১৫ শতক জমি দুই কোটি ১৫ লাখ টাকা বিক্রি করে।

কিন্তু ওই কর্মকর্তারা জমি বিক্রির ক্ষেত্রে সমিতির স্বার্থ না দেখে পরস্পর যোগসাজশে সমিতির সদস্যগণকে বাজার দরের চেয়ে কমে প্রতি শতক ভূমির দর ১১ লাখ ৫০ হাজার টাকা হারে বিক্রি করে। এক কোটি ৭২ লাখ ৫০ হাজার টাকা বিক্রয় মূল্য দেখিয়ে প্রতারণামূলকভাবে ৪২ লাখ ৫০ হাজার টাকা আত্মসাৎ করে বলে অভিযোগ উঠেছে।

এছাড়া বিক্রয় কমিটির ওই কর্মকর্তারা সমিতির মূল্যবান জমি বিক্রিয় বিষয়ে স্থানীয় পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রচার করেননি। তারা সমিতির ১৩ জন সদস্যের অনুমতিও নেননি। সমবায় বিভাগ হতেও জমি বিক্রির অনুমিত গ্রহণ করেননি। এ জন্য দণ্ডবিধির ৪০৯, ৪২০, ১০৯ ধারাসহ দুর্নীতি প্রতিরোধ আইন ১৯৪৭-এর ৫(২) ধারায় ওই তিন কর্মকর্তা শাস্তিযোগ্য অপরাধ করায় তাদের বিরুদ্ধে একটি নিয়মিত মামলা রুজুর সুপারিশ করা করা হয়েছে। এ সংক্রান্ত একটি তদন্ত প্রতিবেদন দুদক চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয়ে প্রেরণ করা হয়েছে বলে খবর পাওয়া যায়।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..