প্রচ্ছদ শেষ পাতা স্পোর্টস

শ্রীলঙ্কার শর্তে টেস্ট খেলতে যাবে না বাংলাদেশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক: প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের কারণে লম্বা সময় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বাইরে বাংলাদেশ। তবে আগামী মাসের শেষ দিকে শ্রীলঙ্কা সফরে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের মধ্যে দিয়ে চেনা পরিবেশে ফেরার কথা টিম টাইগার্সের।  এ জন্য নিজেদের প্রস্তুতিও নিতে শুরু করেছে মুমিনুল হকের দল। কিন্তু এরই মধ্যে শ্রীলঙ্কার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কোয়ারেন্টাইনের কড়াকাড়ি শর্ত দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি), যা কোনোভাবেই মানতে পারছে না দেশের ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থাটি। আর তাই সোমবার বিসিবি সভাপতি সংবাদ সম্মেলনে স্পষ্ট করেছেন, শ্রীলঙ্কার কঠিন শর্ত মেনে খেলতে যাবে না বাংলাদেশ।

শ্রীলঙ্কা সরকারের নির্দেশনা, অনুশীলন ছাড়াই ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন করতে হবে বাংলাদেশ দলকে। বিসিবি সর্বোচ্চ সাত দিনের কোয়ারেন্টাইনে রাজি। এ জন্য শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের নতুন প্রস্তাবে না করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিসিবি।

বাংলাদেশের দলের শ্রীলঙ্কার উদ্দেশ্যে উড়াল দেওয়ার কথা ২৭ সেপ্টেম্বর। এরপর সেখানে পৌঁছেই ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে মুমিনুলদের। এ সময়ে পরপর তিনবার করোনা টেস্টের ফল নেগেটিভ হলে মাঠে নামার অনুমতি পাবেন ক্রিকেটাররা। শ্রীলঙ্কার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের এ প্রস্তাব শনিবার বিসিবিকে পাঠিয়েছে। তাই এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে সোমবার দুপুরে বৈঠকে বসেছিলেন টিম ম্যানেজমেন্ট ও বিসিবির শীর্ষ পরিচালকরা। আচমকা সেখানে উপস্থিত হন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। বৈঠক শেষে তিনি বলেন, ‘যে টার্মস অ্যান্ড কন্ডিশন শ্রীলঙ্কা দিয়েছে তা ইতিহাসে বিরল। এ রকম নিয়মকানুনের মধ্যে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের লড়াই সম্ভব না। এ তথ্য ওদের জানিয়ে দেব।’

নাজমুল আরও বলেন, ‘আমরা যা ভেবেছিলাম তা ধারের কাছেও নেই। আবার অন্যান্য দেশে যেগুলো চলছে সেগুলোর ধারের কাছেও নেই। অন্যান্য দেশে সাত দিনের কোয়ারেন্টাইনের মধ্যে জিম, ট্রেনিং শুরু করতে পারে। ওদের প্রস্তাবে যেটা দেখলাম ১৪ দিন হোটেলের রুমের থেকেই বের হতে পারবে না। খাওয়ার জন্য বের হতে পারবে না। ওরা কি বলতে চাচ্ছে বুঝতে পারছি না। এটা ছেলে খেলা না। আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ। এভাবে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ম্যাচ খেলা যায় না।’

শ্রীলঙ্কার শর্তগুলো নিয়ে নাজমুল হাসান পাপন সোমবার বলেন, ‘বাংলাদেশ দল সেখানে যাওয়ার পর কোয়ারেন্টাইনের সময়টাতে হোটেলের রুম থেকেও বের হতে পারবে না। তারা শর্ত দিয়েছে আমরা ঘর থেকেও বের হতে পারব না। এটা তো অতিরিক্ত। আমি আরও বেশ কিছু জায়গায় কথা বলেছি। সে সব জায়গায় তো এমন নেই। তাহলে তাদের মধ্যে এমন কোনো সমস্যা রয়েছে, যেটা আমরা জানতে পারছি না! তাহলে সেটা কি?’

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড যে কঠিন শর্ত মানতে নারাজ তা এরইমধ্যে চিঠিতে শ্রীলঙ্কান বোর্ডকে জানিয়েছে। এখন সংস্থাটির জবাবের অপেক্ষায় রয়েছে বিসিবি। এরপরই আসলে এ সিরিজের ভাগ্য নির্ধারিত হবে। 

শ্রীলঙ্কা সফরে এবার টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের তিনটি ম্যাচ খেলার কথা বাংলাদেশের। কিন্তু এখনও সূচি পর্যন্ত চূড়ান্ত হয়নি। তাই দীর্ঘদিন পর টাইগারদের মাঠের ক্রিকেটে ফেরার ব্যাপারটি পড়েছিল অনিশ্চয়তায়। সোমবার বিসিবি প্রধানের কথাতে যা আরও বেড়ে গেল।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..