দিনের খবর শোবিজ

সংগীতশিল্পী তপন চৌধুরী করোনায় আক্রান্ত

শোবিজ ডেস্ক: বরেণ্য সংগীত শিল্পী তপন চৌধুরী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। শরীরে জ্বর অনুভব করায় করোনা পরীক্ষা করালে গত ৯ এপ্রিল তার করোনা পজিটিভ আসে। এ তথ্য দিয়েছেন শিল্পী নিজেই। বর্তমানে তিনি বাসাতেই চিকিৎসা নিচ্ছেন।

সঙ্গীতশিল্পী বলেন, ‘কানাডায় আমার পরিবার সকলেই চিন্তিত। আপাতত ভালো আছি। সবার কাছে দোয়া চাচ্ছি।’

প্রসঙ্গত, তপন চৌধুরী কানাডায় প্রবাস যাপন করলেও স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানের আমন্ত্রণ পেয়ে দেশে এসেছিলেন।

উল্লেখ্য, তপন চৌধুরী একাধারে গায়ক, গীতিকার, সুরকার এবং সঙ্গীতপরিচালক। তিনি সোল্‌স ব্যান্ডের সাবেক সদস্য। সত্তরের দশকের শেষভাগ থেকে তিনি সঙ্গীতের সঙ্গে সম্পৃক্ত। ১৯৭৯ সালে তিনি জনপ্রিয় ব্যান্ড দল ‘সোলস’-এর সঙ্গে যুক্ত হন। ‘মন শুধু মন ছুঁয়েছে’ তার জনপ্রিয় গানগুলোর মধ্যে অন্যতম। তার অন্য জনপ্রিয় গানগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো—‘আমি সবকিছু ছাড়তে পারি’, ‘তুমি আমার প্রথম সকাল’, ‘আকাশের সব তারা ঝরে যাবে’, ‘আজ তুমি দূর বহু দূর’, ‘মন শুধু মন ছুঁয়েছে’, ‘কী কারণে কান্দ রে মন’, ‘মাটির ইঞ্জিন এই দেহটা পুইড়া হইল কালা’, ‘মনে বড় আশা ছিল যাব মদিনায়’, ‘রাত কেটে যায় একা নিরালায়’, ‘যতবার দীপ জ্বালি জানি না সে দীপ কেন নিভে যায়’ ও ‘আমি দেবদাস হতে পারব না’ ইত্যাদি।

১৯৭৯ সালে বাংলাদেশ টেলিভিশনে ‘মন শুধু মন ছুঁয়েছে’ গানটি পরিবেশন করার পর সেটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। পরবর্তীতে ১৯৮১ সালে সোলস তাদের প্রথম অ্যালবামেও গানটি প্রকাশ করে। ১৯৮৪ অথবা ১৯৮৫ সালে তার নিজ নামে তার প্রথম একক অ্যালবাম ‘তপন চৌধুরী’ মুক্তি পায়। সোলস-এর সাথে ২২ বছর কাজ করার পর তিনি একক সঙ্গীতশিল্পী হিসেবে কাজ শুরু করেন। তিনি প্রায় ৩০০টি চলচ্চিত্রের গানে কণ্ঠ দিয়েছেন। ১৯৯০-এর দশকের পর তিনি বেশ কয়েক বছর সঙ্গীত জীবন থেকে দূরে সরে যান তবে ২০১৭ সালে পুনরায় ‘ফিরে এলাম’ একক অ্যালবাম প্রকাশ করেন।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..