দিনের খবর শোবিজ

সংগীত পরিচালক ফরিদ আহমেদ আর নেই

শেবিজ ডেস্ক: টানা ২০ দিন করোনাভাইরাসের সঙ্গে লড়াই করে হেরে গেলেন, জনপ্রিয় সংগীত পরিচালক ফরিদ আহমেদ। সকালে রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। মৃত্যুর সময় তাঁর বয়স হয়েছিলো ৬১ বছর। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রাপ্ত বরেণ্য এই সুরকারের মৃত্যুতে সঙ্গীতাঙ্গনে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। বাদ আছর কলাবাগান মসজিদে মরহুমের জানাজা শেষে, তাকে সমাহিত করা হবে আজিমপুর কবরস্থানে।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গেল ১১ই এপ্রিল থেকে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালের আইসিইউতে লাইফ সাপোর্টে ছিলেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত সংগীত পরিচালক ফরিদ আহমেদ। তার আগে মার্চের শেষ সপ্তাহে করোনা পজিটিভ ফল পান ফরিদ আহমেদ ও তার স্ত্রী শিউলি আক্তার। স্ত্রীর অবস্থা ভালো হলেও, করোনা কেরে নিল বরেণ্য এই সুরকারের প্রাণ।

চিকিৎসকরা জানান, করোনায় তার ফুসফুসের ৬০ ভাগই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সঙ্গে ছিলো ডায়াবেটিস। তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া বিরাজ করছে সংগীতাঙ্গনে।

ফিরোজ সাঁইয়ের হাত ধরে ‘স্পন্দন’ এর মধ্য দিয়ে সংগীতের সঙ্গে আনুষ্ঠানিকভাবে পথচলা শুরুফরিদ আহমেদের। স্কুলবন্ধু বায়েজীদের কাছে গিটারে হাতেখড়ি। ব্যান্ডে শুরুতে গিটার বাজালেও পরবর্তীতে সংগীত পরিচালনায় মনোনিবেশ করেন তিনি।

নূর হোসেন বলাইয়ের ‘নিষ্পত্তি’ চলচ্চিত্রের মধ্য দিয়ে সংগীত পরিচালক হিসেবে অভিষেকের পর অনেক সিনেমার সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন এই সুরকার।

২০১৭ সালে ‘তুমি রবে নীরবে’ চলচ্চিত্রের সংগীত পরিচালনার জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন ফরিদ আহমেদ। স্থায়ীভাবে বসবাস করতেন রাজধানীর কলাবাগানে নিজ বাড়ীতে। তিনি দুই মেয়ে ও স্ত্রীসহ অনেকগুনগ্রাহী রেখে গেছেন। তার এই চলে যাওয়া ফেরানো না গেলেও, সঙ্গীতের সূর তাকে অনন্তকাল বাঁচিয়ে রাখবে মানুষের মাঝে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..