প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সংবাদ সম্মেলনে বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী: জাতীয় পাট দিবস ঘিরে নানা আয়োজন

 

নিজস্ব প্রতিবেদক: সোনালি আঁশের সোনার দেশ, পাটপণ্যের বাংলাদেশ’ প্রতিপাদ্যে প্রথমবারের মতো জাতীয় পাট দিবস উদ্যাপনে আট দিনের কর্মসূচি হাতে নিয়েছে সরকার। আগামী ৬ মার্চ জাতীয়ভাবে এ দিবস উদ্যাপনে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় ৪ মার্চ থেকে নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম গতকাল মঙ্গলবার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, পাটের সম্ভাবনাগুলো বিকশিত করে অর্থনীতিতে গতিসঞ্চারে পাট খাতের উদ্যোগগুলো সমন্বিত করার লক্ষ্যে সরকার প্রতি বছর ৬ মার্চ পাট দিবস হিসেবে উদ্যাপনের ঘোষণা দিয়েছে। আগামী ৯ মার্চ কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বহুমুখী পাটপণ্য মেলার উদ্বোধন করে আলোচনা সভায় অংশ নেবেন বলে জানান তিনি।

মির্জা আজম বলেন, বাংলাদেশের ইতিহাসের সঙ্গে পাটের ইতিহাস জড়িত। দেশের প্রায় চার কোটি মানুষ প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে এ খাতের ওপর নির্ভরশীল।

বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন উদ্যোগের ফলে পাট ও পাটজাত পণ্যের চাহিদা অভ্যন্তরীণ বাজারে বেড়েছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, পাটশিল্পের পুনরুজ্জীবন

ও আধুনিকায়নের ধারা বেগবান করা, পণ্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহার আইন বাস্তবায়ন, অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক বাজারে চাহিদা বাড়ানোর

লক্ষ্যে জাতীয় পাট দিবস উদ্যাপন করা হবে।

মির্জা আজম জানান, ঢাকাসহ দেশের গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলো পাট ও পাটজাত পণ্যসহ আলোকসজ্জায় সাজানো হবে। পোস্টার ও ব্যানার টাঙানো, বিলবোর্ড স্থাপন ছাড়াও লিফলেট বিলি করে চালানো হবে প্রচার।

পাট দিবসের গুরুত্ব ও পাটসংক্রান্ত বিষয়ে আগ্রহ সৃষ্টির জন্য  স্কুল পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, আট বিভাগের প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারী ২৪ শিক্ষার্থীর হাতে আগামী ৯ মার্চ পুরস্কার তুলে দেবেন প্রধানমন্ত্রী। এছাড়া সেরা পাটচাষী, সেরা পাটবীজ উৎপাদনকারী, বেসরকারি সেরা পাটকল, সেরা কাঁচাপাট রফতানিকারক, সেরা পাটসুতা রফতানিকারক, সেরা বহুমুখী পাটপণ্য রফতানিকারক, সেরা উদ্যোক্তা ও সেরা পাটপণ্য রফতানিকারক প্রতিষ্ঠানসহ আট ক্যাটাগরিতে এবং পাটসংশ্লিষ্ট গবেষণা ও উদ্ভাবনের জন্য দুজনকে এবার পুরস্কার দেওয়া হবে।

আগামী ৪ মার্চ বিকাল ৪টায় ডিঙি নৌকায় পাট ভরে হাতিরঝিলে নৌ শোভাযাত্রা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হবে। ৫ মার্চ সকাল ১০টায় জাতীয় সংসদ ভবনের সামনে ৫০০ ফুট দৈর্ঘ্য ও ১০ ফুট প্রস্থের পাটের তৈরি একটি ক্যানভাসে চারুকলার ২০০ শিক্ষার্থী চিত্রাঙ্কন করবেন।

আগামী ৬ মার্চ সকাল সাড়ে ৮টায় জাতীয় সংসদ ভবনের সামনে এবং সব জেলা-উপজেলায় বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার আয়োজন করা হবে। পাশাপাশি থাকছে আলোচনা সভা।

আর ৯ থেকে ১১ মার্চ সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন প্রাঙ্গণে বহুমুখী পাটপণ্যের মেলা চলবে বলে বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী জানান।

দেশে পাট ও পাটপণ্যের চাহিদা বাড়াতে সরকারের নেওয়া বিভিন্ন পদক্ষেপের কথাও সংবাদ সম্মেলনে তুলে ধরেন মির্জা আজম।