প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সংশোধিত এডিপি:এক লাখ ১২ হাজার কোটি টাকার প্রস্তাব এনইসিতে উঠছে কাল

মাসুম বিল্লাহ: চলতি অর্থবছরের সংশোধিত বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির (আরএডিপি) খসড়া চূড়ান্ত হয়েছে। প্রাথমিকভাবে এক লাখ ১২ হাজার ৭৯৫ কোটি টাকার আরএডিপির খসড়া চূড়ান্ত করেছে পরিকল্পনা কমিশনের কার্যক্রম বিভাগ। তবে চূড়ান্ত অনুমোদনের সময় এর আকার আরও প্রায় পাঁচ হাজার কোটি টাকা বাড়তে পারে। আগামীকাল মঙ্গলবার অনুষ্ঠেয় জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের (এনইসি) সভায় আরএডিপি অনুমোদনের কথা রয়েছে।

চলতি অর্থবছর এডিপির আকার এক লাখ ২৩ হাজার ৩৪৫ কোটি টাকা। এর মধ্যে মূল এডিপি এক লাখ ১০ হাজার ৭০০ কোটি টাকা। বাকিটা বাস্তবায়নকারী সংস্থাগুলোর নিজস্ব অর্থায়নে। প্রাথমিক খসড়ায় সংশোধিত এডিপির আকার নির্ধারণ করা হয়েছে এক লাখ ১২ হাজার ৭৯৫ কোটি টাকা। এর মধ্যে মূল আরএডিপি এক লাখ চার হাজার ২০০ কোটি এবং বিভিন্ন সংস্থার আট হাজার ৫৯৫ কোটি টাকা। এটি আগামীকাল এনইসিতে উপস্থাপন করা হবে। সেখানে আরও প্রায় পাঁচ হাজার কোটি টাকা বাড়তে পারে। সব মিলে সংশোধিত এডিপির আকার এক লাখ ১৭ হাজার কোটি টাকার মতো হতে পারে।

কার্যক্রম বিভাগ ১৭টি খাতভিত্তিক বরাদ্দ চূড়ান্ত করেছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি বরাদ্দ পরিবহন খাতে। এ খাতে আরএডিপিতে বরাদ্দ প্রস্তাব করা হয়েছে ২৫ হাজার ৩৫৯ কোটি টাকা। বিদ্যুৎ খাতে বরাদ্দ ধরা হয়েছে ১২ হাজার ৩৪ কোটি টাকা। তেল, গ্যাস ও প্রাকৃতিক সম্পদ খাতে এক হাজার ৬৭ কোটি, কৃষিতে পাঁচ হাজার ১৮০ কোটি, পল্লী উন্নয়ন ও পল্লী প্রতিষ্ঠান খাতে ৯ হাজার ৯৪৯ কোটি, পানিসম্পদে তিন হাজার ৩৪২ কোটি, শিল্পে ৯৭৪ কোটি, যোগাযোগে এক হাজার ৭৬৪ কোটি, ভৌত পরিকল্পনা ও গৃহায়নে ১৩ হাজার ৯৭৭ কোটি, শিক্ষা ও ধর্মে ১২ হাজার ৭১২ কোটি, ক্রীড়া ও সংস্কৃতিতে ৩১৪ কোটি, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা খাতে চার হাজার ৯৫৫ কোটি, গণসংযোগে ১৬৭ কোটি, সমাজকল্যাণ ও যুব উন্নয়নে ৩৪৭ কোটি, জনপ্রশাসনে দুই হাজার ২৪৫ কোটি, বিজ্ঞান ও যোগাযোগ প্রযুক্তিতে পাঁচ হাজার ৪৭২ কোটি এবং শ্রম ও কর্মসংস্থানে ৪৫০ কোটি টাকা।

পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল জানান, আট বছরের ব্যবধানে এডিপির আকার পাঁচগুণেরও বেশি বেড়েছে। আগামী অর্থবছর এর আকার এক লাখ ৪০ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়ে যাবে। সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা ও জাতিসংঘ ঘোষিত এসডিজি লক্ষ্য অর্জনে সরকার উন্নয়ন কর্মসূচিতে গতিসঞ্চার করেছে।

চলতি বছরের এডিপিতে মোট প্রকল্পসংখ্যা এক হাজার ২৭৮টি। এর মধ্যে বিনিয়োগ প্রকল্প ৯৯০টি। এর বাইরে কারিগরি সহায়তা প্রকল্প আছে ১২৬টি, জেডিসিএফ অর্থায়িত প্রকল্প সাত এবং সংস্থার নিজস্ব অর্থায়নের প্রকল্প আছে ১৫৫টি। এছাড়া এক হাজার ৭২টি বরাদ্দবিহীন অননুমোদিত প্রকল্পের একটি তালিকা এবং বৈদেশিক সাহায্য প্রাপ্তির জন্য অননুমোদিত আরও ৩৪৯টি প্রকল্পের একটি তালিকা এডিপিতে দেওয়া হয়েছে। আরএডিপিতে বৈদেশিক সহায়তা প্রাক্কলন করা হয়েছে ৩৩ হাজার কোটি টাকা। এডিপিতে এর পরিমাণ ছিল ৪০ হাজার কোটি টাকা। আর সরকারের নিজস্ব অর্থায়ন ছিল ৭০ হাজার ৭০০ কোটি টাকা। আরএডিপিতে এটি আরও বাড়িয়ে ৭১ হাজার ২০০ কোটি টাকার প্রস্তাব করা হয়েছে। তবে চূড়ান্তভাবে এর পরিমাণ আরও বাড়বে।