দিনের খবর প্রচ্ছদ শেষ পাতা

সঞ্চয়পত্রে ব্যক্তি বিনিয়োগসীমা সর্বোচ্চ ৫০ লাখ টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক: জাতীয় সঞ্চয়পত্রে ব্যক্তি ও পারিবারিকভাবে বিনিয়োগের সীমা কমিয়ে আনল সরকার। এখন থেকে ব্যক্তিপর্যায়ে সর্বোচ্চ ৫০ লাখ ও পারিবারিকভাবে সর্বোচ্চ এক কোটি টাকা বিনিয়োগ করা যাবে। একই সঙ্গে প্রবাসীদের বিভিন্ন বন্ডে বিনিয়োগের সীমাও কমিয়ে এনেছে সরকার।

গত ৩ ডিসেম্বর এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানিয়েছে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগ। নতুন জারি করা প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়, সঞ্চয়পত্র বিধি, ১৯৭৭ এবং পরিবার সঞ্চয়পত্র নীতিমালা ২০০৯-এ বিনিয়োগের ঊর্ধ্বসীমা বিষয়ে যা-ই বলা থাকুক না কেন, এখন থেকে তা আর কার্যকর থাকবে না।    

পাঁচ বছর মেয়াদি বাংলাদেশ সঞ্চয়পত্র, তিন মাস অন্তর মুনাফাভিত্তিক সঞ্চয়পত্র এবং পরিবার সঞ্চয়পত্র-এ তিনটি মিলে সমন্বিত বিনিয়োগের ঊর্ধ্বসীমা হবে একক নামে ৫০ লাখ টাকা অথবা যৌথ নামে এক কোটি টাকা। ফলে এখন থেকে পাঁচ বছর মেয়াদি বাংলাদেশ সঞ্চয়পত্র, তিন মাস অন্তর মুনাফাভিত্তিক সঞ্চয়পত্র ও পরিবার সঞ্চয়পত্রের বিনিয়োগের ঊর্ধ্বসীমা বিদ্যমান নীতিমালায় যা-ই থাকুক না কেন, তিনটি স্কিম মিলে একক নামে ৫০ লাখ অথবা যৌথ নামে এক কোটি টাকা বিনিয়োগ করার বিষয়ে নির্দেশনা জারি করতে হবে।

প্রজ্ঞাপন জারি করা হলেও বাস্তবে বিষয়টি নতুন কিছুই নয়। সর্বোচ্চ বিনিয়োগসীমার কথা এত দিন কাগজে-কলমে কোথাও বলা ছিল না। কিন্তু বাধা ছিল না বিনিয়োগে। একজন গ্রাহক একক নামে এখন ৫০ লাখ টাকার সঞ্চয়পত্র কিনতে পারেন। একক নামে কেউ কিনতে না চাইলে যৌথ নামে কিনতে পারেন এক কোটি টাকার সঞ্চয়পত্র। তবে পেনশনার সঞ্চয়পত্রের গ্রাহকের ক্ষেত্রে এই ঊর্ধ্বসীমা এক কোটি ৫০ লাখ টাকা। অর্থাৎ, একক নামে কেউ ৫০ লাখ টাকার সঞ্চয়পত্র কিনতে পারবেন। আর যৌথ নামে কিনতে পারবেন এক কোটি টাকার। পেনশনার সঞ্চয়পত্র যেহেতু শুধু পেনশনধারীদের জন্য, তাই তাদের ক্ষেত্রে বাড়তি সুবিধাটা হচ্ছে এই যে ৫০ লাখের বাইরেও যৌথ নামে তারা আরও এক কোটি টাকার সঞ্চয়পত্র কিনতে পারবেন।

অপরদিকে প্রবাসীদের প্রবাসীদের জন্য নির্ধারিত ওয়েজ আর্নার ডেভেলপমেন্ট বন্ড, ইউএস ডলার প্রিমিয়াম বন্ড ও ইউএস ডলার ইনভেস্টমেন্ট বন্ড-এ তিনটি বন্ডের বিপরীতে সমন্বিত বিনিয়োগের ঊর্ধ্বসীমা এক কোটি টাকার সমপরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা হবে। অর্থাৎ এ তিনটি বন্ডে প্রবাসীরা সর্বোচ্চ এক কোটি টাকা বিনিয়োগ করতে পারবে বৈদেশিক মুদ্রায়।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..