প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সন্ত্রাসী হামলার শঙ্কায় মেলবোর্ন টেস্ট

 

ক্রীড়া ডেস্ক: বিশ্বজুড়েই এখন সবচেয়ে বড় সমস্যা সন্ত্রাস। কিন্তু খেলোয়াড়দের সঙ্গে তার বিরোধ কিসের? চলতি বছরের মাঝামাঝিতে সন্ত্রাসী হামলায় প্যারিসে ঝরে গেল অনেক প্রাণ। ঠিক তখন সন্ত্রাসীদের লক্ষ্য ছিল প্যারিসের স্টেডিয়ামও। সে সময় জার্মানি ও ফ্রান্স ফুটবল দলের খেলা চলছিল। এবার জানা গেছে, অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে (এমসিজি) হামলার পরিকল্পনার কথা। এখন পর্যন্ত সন্দেহবশে গ্রেফতার হয়েছে সাতজন। সোমবার সেখানে অস্ট্রেলিয়া ও পাকিস্তানের মধ্যে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট অনুষ্ঠিত হবে। এরই মধ্যে কড়া নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে ফেলা হয়েছে এমসিজিকে।

সন্ত্রাসীদের টার্গেট যে শুধু মেলবোর্ন স্টেডিয়াম এমন খবর নেই পুলিশের কাছে। তবে তাদের লক্ষ্য বড়দিনে শহরটির রেলস্টেশনে প্রাণঘাতী হামলার। কেননা ওই দিন সেখানে অনেক লোক জড়ো হবে। মেলবোর্নের প্রধান পুলিশ কমিশনার গ্রাহাম অ্যাস্টন জানিয়েছেন, তারা এ পরিকল্পনা বানচাল করতে পেরেছেন। তারপরও যেসব জায়গায় বড় বড় ইভেন্ট হবে বড়দিনকে নিয়ে সেসব জায়গায় বাড়তি নিরাপত্তাব্যবস্থা নেওয়া হবে। কিছুদিন আগেও সন্ত্রাসীরা অস্ট্রেলিয়ায় হামলা করে, এমন খবরে এসেছিল।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্রিকেট স্টেডিয়াম মেলবোর্ন ক্রিকেট স্টেডিয়াম। যেখানে এক লাখ মানুষ একসঙ্গে খেলা দেখতে পারে। বড়দিনের ছুটির দিনে পাকিস্তান-অস্ট্রেলিয়া টেস্ট ম্যাচ হওয়ায়, আশা করা হচ্ছে সেখানে ৬০ হাজার দর্শক হবে। এরই মধ্যে স্টেডিয়ামে ঝুঁকিপূর্ণ বলেই ধরেছে দেশটির পুলিশ। পুলিশ প্রধান বলেছেন, ‘বক্সিং ডে টেস্টও অনেক বড় ইভেন্ট। আমরা নিশ্চিত করতে চাই যে এসব নিয়ে কোনো ঝামেলা না হয়। সতর্কতা হিসেবে সব ব্যবস্থাই নিচ্ছি।’