পুঁজিবাজার

সপ্তাহের শেষদিনে ডিএসইতে লেনদেন কমলেও সূচক ইতিবাচক

নিজস্ব প্রতিবেদক: সপ্তাহের শেষদিনে গতকাল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) বেশিরভাগ শেয়ারের দরবৃদ্ধিতে লেনদেন কমলেও সূচক সামান্য বেড়েছে। ডিএসইতে গতকাল প্রায় ৪৫ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে, কমেছে ৩৯ শতাংশের দর। গতকাল লেনদেনের শুরুতে সূচক সামান্য বাড়লেও ১০ মিনিটের মাথায় বড় পতন হয়। এরপর ফের কেনার চাপ বাড়লে সূচক ঊর্ধ্বমুখী হয়। এরপর সামান্য ওঠানামা থাকলেও শেষ পর্যন্ত তিনটি সূচক সামান্য হারে ইতিবাচক ছিল। অন্যদিকে চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) বেশিরভাগ শেয়ারের দরপতনে সূচকের পতনের পাশাপাশি লেনদেনেও পতন হয়।
বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স দশমিক ৭১ পয়েন্ট বা দশমিক ০১ শতাংশ বেড়ে চার হাজার ৯৩৩ দশমিক ৮৯ পয়েন্টে অবস্থান করে।
ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক এক দশমিক ২৯ পয়েন্ট বা দশমিক ১১ শতাংশ বেড়ে এক হাজার ১৫৬ দশমিক ৭৮ পয়েন্টে অবস্থান করে। আর ডিএস৩০ সূচক দশমিক ৮৭ পয়েন্ট বা দশমিক ০৫ শতাংশ বেড়ে এক হাজার ৭৩৭ দশমিক ০৬ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন কমে তিন লাখ ৬৯ হাজার ৪০৯ কোটি ছয় লাখ ৭২ হাজার ৪৪৭ টাকা হয়। ডিএসইতে লেনদেন হয় ৪০৫ কোটি ১০ লাখ চার হাজার ৫৩২ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৫০২ কোটি ৪২ লাখ ৭৫ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসেবে লেনদেন কমেছে ৯৭ কোটি ৩২ লাখ টাকা। এদিন আট কোটি ৯৫ লাখ ১৪ হাজার ৬৪৮টি শেয়ার এক লাখ ৩১ হাজার ৩৩২ বার হাতবদল হয়। লেনদেন হওয়া ৩৫৪ কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৫৮টির, কমেছে ১৩৭টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৫৯টির দর।
গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে জেএমআই সিরিঞ্জ। কোম্পানিটির ২১ কোটি ৫৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর কমেছে ৬০ পয়সা। এরপর ন্যাশনাল টিউবসের ২০ কোটি ২০ লাখ টাকা লেনদেনের পাশাপাশি দর বেড়েছে ১৫ টাকা ২০ পয়সা। তৃতীয় অবস্থানে থাকা মুন্নু জুট স্টাফলার্সের ১৭ কোটি ৬৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর কমেছে ৪৩ টাকা ৬০ পয়সা। মুন্নু সিরামিকের ১৪ কোটি ৯১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। স্টাইল ক্রাফটের ১৩ কোটি ৮৮ লাখ টাকা লেনদেন হয়। এছাড়া লিগ্যাসি ফুটওয়্যারের সাড়ে ১২ কোটি টাকা, বীকন ফার্মার ১২ কোটি ২৫ লাখ টাকা, ওয়াটা ক্যামিকেলের ১৬ কোটি ৭০ লাখ টাকা, সিলকো ফার্মার আট কোটি ৬১ লাখ টাকা ও ইউনাইটেড পাওয়ারের সাড়ে আট কোটি টাকা লেনদেন হয়।
৯ দশমিক ৯৮ শতাংশ বেড়ে দর বৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে উসমানিয়া গ্লাস। ন্যাশনাল টিউবসের দর ৯ দশমিক ৯৫ শতাংশ, শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজের দর ৯ দশমিক ৫৩ শতাংশ, অ্যাটলাস বাংলাদেশের দর আট দশমিক ৯৬ শতাংশ, ভ্যানগার্ড এএমএল বিডি মিউচুয়াল ফান্ড ওয়ানের দর আট দশমিক ৬২ শতাংশ, পপুলার লাইফ মিউচুয়াল ফান্ডের দর আট দশমিক ২০ শতাংশ, লিগ্যাসি ফুটওয়্যারের দর সাত দশমিক ২৮ শতাংশ, রানার অটোর দর ছয় দশমিক ৬০ শতাংশ, সিনোবাংলার দর ছয় দশমিক ৩৩ শতাংশ ও গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্সের দর পাঁচ দশমিক ৮২ শতাংশ বেড়েছে।
ছয় দশমিক ৪৯ শতাংশ কমে দরপতনের শীর্ষে উঠে আসে সানলাইফ ইন্স্যুরেন্স। সিলকো ফার্মার দর পাঁচ দশমিক ৫২ শতাংশ, ইউনাইটেড এয়ারের দর পাঁচ শতাংশ, এক্সিম ব্যাংক ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ডের দর চার দশমিক ৬৫ শতাংশ, কাট্টলি টেক্সটাইলের দর চার দশমিক ৩৭ শতাংশ, স্টাইল ক্রাফটের দর চার দশমিক ৩৬ শতাংশ, জিলবাংলা সুগার মিলের দর চার দশমিক ৩২ শতাংশ, সোনালী আঁশের দর তিন দশমিক ৭৪ শতাংশ, ট্রাস্ট ব্যাংকের দর সাড়ে তিন শতাংশ ও ভিএফএস থ্রেডের দর তিন দশমিক ৪৮ শতাংশ কমেছে।
সিএসইতে গতকাল সিএসসিএক্স মূল্যসূচক ১৯ দশমিক ২৩ পয়েন্ট বা দশমিক ২১ শতাংশ কমে ৯ হাজার ৯৫ দশমিক ৫৯ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৩২ দশমিক ২২পয়েন্ট বা দশমিক ২১ শতাংশ কমে ১৪ হাজার ৯৮২ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল সর্বমোট ২৪১টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৮৯টির, কমেছে ১১৫টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩৭টির দর।
সিএসইতে এদিন ১২ কোটি ৪০ লাখ ৯৬ হাজার ৩০১ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ১৪ কোটি ৫৭ লাখ ৮৮ হাজার ৯৩৯ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে লেনদেন কমেছে দুই কোটি ১৬ লাখ টাকা। সিএসইতে গতকাল লেনদেনের শীর্ষে অবস্থান করে ডরিন পাওয়ার। কোম্পানিটির দুই কোটি ৩৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। লিগ্যাসি ফুটওয়্যারের এক কোটি ১০ লাখ টাকার, মুন্নু সিরামিকের ৫৭ লাখ টাকার, উসমানিয়া গ্লাসের ৫৭ লাখ টাকার, বেক্সিমকোর প্রায় ৩৮ লাখ টাকার, জেএমআই সিরিঞ্জের ৩০ লাখ টাকার, বীকন ফার্মার ২২ লাখ টাকার, স্কয়ার ফার্মার সাড়ে ২১ লাখ টাকার ও খুলনা পাওয়ারের প্রায় ২০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

সর্বশেষ..