দিনের খবর প্রথম পাতা

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে চাহিদায় এগিয়ে ওষুধ ও রসায়ন খাত

মুস্তাফিজুর রহমান নাহিদ: বেশ কিছুদিনের বিরতি দিয়ে আবারও চালকের আসনে ফিরে আসছে ওষুধ ও রসায়ন খাত। সম্প্রতি এ খাতের শেয়ার চাহিদা আগের থেকে বৃদ্ধি পেয়েছে। যার জের ধরে বৃদ্ধি পাচ্ছে ওষুধ ও রসায়ন খাতের কোম্পানির শেয়ারদর। গতকালের বাজারেও এমন চিত্র দেখা গেছে।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, গতকাল মোট লেনদেনে এগিয়ে ছিল ওষুধ ও রসায়ন খাত। সকাল থেকে বিনিয়োগকারীদের চাহিদার শীর্ষে ছিল খাতটি। যার জের ধরে দিন শেষে মোট লেনদেনে এ খাতের একক অবদান দেখা যায় প্রায় ১৭ শতাংশ। পাশাপাশি দর বাড়তে দেখা যায় খাতটিতে তালিকাভুক্ত সিংহভাগ কোম্পানির শেয়ারদর।

এদিকে গতকাল মোট লেনদেনে ওষুধ ও রসায়ন খাতের পর বিবিধ খাত। মোট লেনদেনে এ খাতের একক অবদান দেখা যায় ১৩ শতাংশের বেশি। এছাড়া বিদ্যুৎ ও জ্বালানি এবং টেলিকমিউনিকেশন খাত মোট লেনদেনে ১০ শতাংশের বেশি অবদান রাখতে সক্ষম হয়।

অন্যদিকে গতকাল ডিএসইতে সূচক বাড়লে লেনদেন কিছুটা কমে যেতে দেখা যায়। দিন শেষে সূচক ২৭ পয়েন্ট বেড়ে পাঁচ হাজার ৫১৫ পয়েন্টে। আর দিন শেষে লেনদেন হয় ৭০৭ কোটি টাকা। এর মধ্যে ব্লক মার্কেটে ২০টি কোম্পানি লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এসব কোম্পানির ৫৪ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। কোম্পানিগুলোর ৩২ লাখ ৫৪ হাজার ১৩৪টি শেয়ার ৫৯ বার হাত বদল হতে দেখা যায়।

এর মধ্যে মধ্যে সবচেয়ে বেশি অর্থাৎ ২৯ কোটি তিন হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকো ফার্মার। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৫ কোটি ৩৬ লাখ ২০ হাজার টাকার বার্জার পেইন্টসের এবং তৃতীয় সর্বোচ্চ পাঁচ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে বীকন ফার্মার। এছাড়া সেন্ট্রাল ইন্স্যুরেন্সের দুই কোটি ১৯ লাখ ৯১ হাজার টাকার, বাংলাদেশে ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্সের ৬১ লাখ টাকার, বেক্সিমকোর ২১ লাখ ৩৮ হাজার টাকার, জিবিবি পাওয়ারের ২৭ লাখ ৬১ হাজার টাকার, ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকোর ২১ লাখ ২০ হাজার টাকার, বিডি থাইয়ের সাত লাখ দুই হাজার টাকার, সিভিও পেট্রোকেমিক্যালের ৯ লাখ ২৩ হাজার টাকার, আইএফআইসির সাত লাখ ৬১ হাজার টাকার, কনফিডেন্স সিমেন্টের ছয় লাখ ৬০ হাজার টাকার, কেমিক্যালের পাঁচ লাখ ৬২ হাজার টাকার, লিগ্যাসি ফুটওয়্যারের সাত লাখ ৫৪ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..