প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সপ্তাহের শেষ দিনেও ডিএসইতে পতনের ধারা অব্যাহত

নিজস্ব প্রতিবেদক: চলতি সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস সোমবার থেকে গতকাল শেষ কার্যদিবস পর্যন্ত টানা দরপতনে রয়েছে দেশের পুঁজিবাজার। মূল্যস্ফীতি ও সুদের হার বৃদ্ধি, শ্রীলঙ্কার অর্থনৈতিক সংকট ও রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে শঙ্কায় রয়েছেন বিনিয়োগকারীরা। এতে আতঙ্কিত হয়ে বিনিয়োগকারীদের মাঝে শেয়ার বিক্রি করে দেয়ার প্রবণতা বেড়েছে। ফলে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সূচক ও লেনদেন কমেছে। সূচক ও লেনদেনের পাশাপাশি এদিন অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ারদর কমেছে। দেশের আরেক পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সূচক  কমলেও লেনদেন বেড়েছে।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গতকাল প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৫১ দশমিক ৬৬ পয়েন্ট বা দশমিক ৮১ শতাংশ কমে ছয় হাজার ২৫৮ দশমিক ২৪ পয়েন্টে পৌঁছায়। ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক ৮ দশমিক ৪৬ পয়েন্ট বা  দশমিক ৬০ শতাংশ কমে এক হাজার ৩৮৩ দশমিক ০৪ পয়েন্টে অবস্থান করে। অন্যদিকে ডিএস৩০ সূচক ১৯ দশমিক ৮০ পয়েন্ট বা দশমিক ৮৪ শতাংশ কমে দুই হাজার ৩১৬ দশমিক ৬৮ পয়েন্টে স্থির হয়।

ডিএসইতে এদিন মোট ৩৮০টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ৬৭টির এবং কমেছে ২৬৩টির। বাকি ৫০টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ারদর অপরিবর্তিত ছিল। গতকাল ডিএসইতে লেনদেন হয় ৬৬৮ কোটি ৮৮ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৭৬২ কোটি ৯৩ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে গতকাল লেনদেন কমেছে ৯৪ কোটি ৫ লাখ টাকা। ডিএসইতে এদিন ১৭ কোটি ৫৭ লাখ ৯৯ হাজার ৬৭১টি শেয়ার ১ লাখ ৫৫ হাজার ৪৬১ বার হাতবদল হয়। গতকাল লেনদেনের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত সূচকের উত্থান-পতনের চিত্র গেছে।

ডিএসইতে গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে বাংলাদেশ এক্সপোর্ট-ইমপোর্ট কোম্পানি (বেক্সিমকো) লিমিটেড। কোম্পানিটির ৫৩ কোটি ১৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। শেয়ারটির দর ২ টাকা ৮০ পয়সা কমেছে। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের ৩৪ কোটি ৩৫ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিটির শেয়ারদর ৪০ পয়সা কমেছে। এছাড়া লেনদেনের শীর্ষ ১০-এ থাকা অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে শাইনপুকুর সিরামিকস লিমিটেডের ২৫ কোটি ৬৪ লাখ, জেএমআই হসপিটাল অ্যান্ড রিকুইজিট ম্যানুফ্যাকচারিং লিমিটেডের ২৩ কোটি ৬৩ লাখ, বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশনের ২০ কোটি ৪০ লাখ, ওরিয়ন ফার্মা লিমিটেডের ১৪ কোটি ৫২ লাখ, এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেডের ১৩ কোটি ৮২ লাখ, এসিআই ফরমুলেশনস লিমিটেডের ১২ কোটি ৫৪ লাখ, রংপুর ডেইরি অ্যান্ড ফুড প্রডাক্টস লিমিটেডের ১১ কোটি ২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

গতকাল ১০ শতাংশ বেড়ে দরবৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে এস আলম কোল্ড রোল্ড স্টিলস লিমিটেড। এরপরের অবস্থানে থাকা বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৯ দশমিক ৯১ শতাংশ, বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশনের ৭ দশমিক ০৬ শতাংশ শেয়ারদর বেড়েছে।

অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) প্রধান সূচক সিএসসিএক্স ৮২ দশমিক ৩৩ পয়েন্ট বা দশমিক ৭৩ শতাংশ কমে ১১ হাজার ৬৪ দশমিক ৬৯ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৩৫ দশমিক ৪৩ পয়েন্ট বা দশমিক ৭২ শতাংশ কমে ১৮ হাজার ৪৩৯ দশমিক ৭২ পয়েন্টে অবস্থান করে। সিএসইতে ২৮৮টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়েছে। দর বেড়েছে ৫৪টির, কমেছে ২০৮টির এবং ২৬টির দর অপরিবর্তিত ছিল।