কোম্পানি সংবাদ পুঁজিবাজার

সপ্তাহ শেষ হলো ইতিবাচক প্রবণতায়

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই) উভয় বাজারে গতকাল বৃহস্পতিবার ইতিবাচক প্রবণতায় শেষ হলো সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসের লেনদেন। গতকাল উভয় বাজারে সূচকের উত্থান হয়েছে; একইসঙ্গে ডিএসইতে লেনদেন ৮৭ কোটি টাকা বেড়েছে। তবে সিএসইতে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় সামান্য কমেছে। গতকাল সপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবসে বাজারে লেনদেন শুরুর দুই ঘণ্টা পর সূচক কিছুটা নি¤œমুখী হয়; তবে বিক্রির চাপ থাকার পাশাপাশি বেশিরভাগ শেয়ারের দর বাড়ায় ইতিবাচক প্রবণতায় লেনদেন শেষ হয়।

বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৬৯ দশমিক ৯৪ পয়েন্ট বা এক দশমিক ৫০ শতাংশ বেড়ে চার হাজার ৭০৩ দশমিক ৩২ পয়েন্টে পৌঁছায়। ডিএসইএস বা শরিয়াহ সূচক শূন্য দশমিক ১৩ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক শূন্য এক শতাংশ বেড়ে এক হাজার ৮৮ দশমিক ৪৬ পয়েন্টে অবস্থান করে। অন্যদিকে ডিএস৩০ সূচক ১২ দশমিক ৮৪ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ৮১ শতাংশ বেড়ে এক হাজার ৫৯৪ দশমিক ৩০ পয়েন্টে স্থির হয়।

গতকাল ডিএসইতে লেনদেন হয় এক হাজার ২০৭ কোটি ৭৭ লাখ ৫২ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল এক হাজার ১২০ কোটি ৩৮ লাখ ৪৮ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে লেনদেন বেড়েছে ৮৭ কোটি ৩৯ লাখ চার হাজার টাকার। এদিন ৪৬ কোটি ৬৮ লাখ ৯০ হাজার ৯১৬টি শেয়ার দুই লাখ ১৮ হাজার ৮৯৭ বার হাতবদল হয়।

এদিন মোট ৩৫৫টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ২০৪টির এবং কমেছে ১৩০টির। বাকি ২১টি কোম্পানির শেয়ারদর অপরিবর্তিত ছিল। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন দুই হাজার ৮৬৭ কোটি ৮৪ লাখ ২৭ হাজার টাকা বেড়ে দাঁড়িয়েছে তিন লাখ ৫৫ হাজার ৮৭ কোটি ৬৪ লাখ ৮৬ হাজার টাকায়।

গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড। কোম্পানিটির ৫২ কোটি ১৬ লাখ ৫০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। শেয়ারটির দর এক টাকা ৬০ পয়সা বেড়েছে। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা বাংলাদেশ এক্সপোর্ট ইমপোর্ট কোম্পানি (বেক্সিমকো) লিমিটেডের ৪৩ কোটি ৬৮ লাখ ৭১ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। শেয়ারদর ৭০ পয়সা বেড়েছে। স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ৩৫ কোটি ৩৪ লাখ ৬৭ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিটির শেয়ারদর এক টাকা ৯০ পয়সা কমেছে। এরপরের অবস্থানগুলোয় থাকা বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ৩১ কোটি ৮৯ লাখ ৬৯ হাজার টাকার, ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো কোম্পানি লিমিটেডের ২২ কোটি ৫৬ লাখ সাত হাজার টাকার, নাহি অ্যালুমিনিয়াম অ্যান্ড কম্পোজিট প্যানেল লিমিটেডের ২০ কোটি ১৪ লাখ ৬৬ হাজার টাকার, গ্রামীণফোন লিমিটেডের ১৯ কোটি ১৮ লাখ ৬৫ হাজার টাকার, আইএফআইসি ব্যাংক লিমিটেডের ১৮ কোটি ৯৫ লাখ তিন হাজার টাকার, বারাকা পাওয়ার লিমিটেডের ১৮ কোটি ৮০ লাখ ৮৯ হাজার টাকার এবং বাংলাদেশ সাবমেরিন কেব্ল কোম্পানি লিমিটেডের ১৬ কোটি ৬৫ লাখ ৫৪ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

১০ শতাংশ বেড়ে দরবৃদ্ধির শীর্ষে ছিল আলিফ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড। আইএফআইসি ব্যাংক লিমিটেডের ১০ শতাংশ, সোনার বাংলা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ১০ শতাংশ, অগ্রণী ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৯ দশমিক ৯৬ শতাংশ, এশিয়া প্যাসিফিক জেনারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৯ দশমিক ৯৬ শতাংশ, প্যারামাউন্ট ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৯ দশমিক ৯৩ শতাংশ, প্রভাতী ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৯ দশমিক ৯০ শতাংশ, ফেডারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৯ দশমিক ৮৬ শতাংশ, প্রগতি ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৯ দশমিক ৮৩ শতাংশ এবং  সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের ৯ দশমিক ৮৩ শতাংশ শেয়ারদর বেড়েছে।

অন্যদিকে ৬ দশমিক ২৫ শতাংশ দর কমে পতনের শীর্ষে উঠে আসে মেঘনা কনডেন্সড মিল্ক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড। সিএপিএম আইবিবিএল মিউচুয়াল ফান্ডের দর ৬ দশমিক ১৭ শতাংশ, মেঘনা পিইটি ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের দর ৫ দশমিক ৯৭ শতাংশ, আইপিডিসি ফাইন্যান্স লিমিটেডের ৫ দশমিক ৯৬ শতাংশ, সানলাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৫ দশমিক ৮২ শতাংশ, দেশ গার্মেন্টস লিমিটেডের ৫ দশমিক ০১ শতাংশ, কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ৪ দশমিক ৯৬ শতাংশ, আইটি কনসালট্যান্টস লিমিটেডের চার দশমিক ৭৪ শতাংশ, সমতা লেদার ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের চার দশমিক ৬৬ শতাংশ এবং এডিএন টেলিকম লিমিটেডের চার দশমিক ৬২ শতাংশ শেয়ারদর কমেছে।

অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) প্রধান সূচক সিএসসিএক্স ১১১ দশমিক ১২ পয়েন্ট বা এক দশমিক ৩৯ শতাংশ বেড়ে ৮ হাজার ৭২ দশমিক ৯৩ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৯৫ দশমিক ৯২ পয়েন্ট বা এক দশমিক ৪৮ শতাংশ বেড়ে ১৩ হাজার ৩৬১ দশমিক ১০ পয়েন্টে অবস্থান করে। সিএসইতে ২৯২টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়েছে। দর বেড়েছে ১৬৬টির, কমেছে ৯৯টির এবং ২৭টির দর অপরিবর্তিত ছিল। সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩৫ কোটি ৯ লাখ ৩৪ হাজার ৮৭০ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৩৫ কোটি ৯ লাখ ৬৪ হাজার ৬৮২ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে লেনদেন কমেছে প্রায় ৩০ হাজার টাকার।

সিএসইতে এদিন লেনেদেনের শীর্ষে ছিল ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। কোম্পানিটির তিন কোটি ১৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। এরপরের অবস্থানে থাকা আইএফআইসি ব্যাংক লিমিটেডের তিন কোটি ১৬ লাখ ৮০ হাজার টাকার, বাংলাদেশ এক্সপোর্ট ইমপোর্ট কোম্পানি লিমিটেডের দুই কোটি ২৯ লাখ ৩০ হাজার টাকার, ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেডের এক কোটি ১১ লাখ ৮০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..