কৃষি কৃষ্টি

সব মাটিতে জন্মায়

রবি মৌসুমের একটি প্রধান সবজি বাঁধাকপি। যে কোনো মাটিতে ভালো জšে§। তবে বেশি ভালো হয় দোআঁশ বা পলি দোআঁশ মাটিতে। অত্যধিক বেলে কিংবা লাল মাটিতে এ সবজির ফলন খুব একটা ভালো হয় না।

বাংলাদেশের আবহাওয়া উপযোগী দুটি জাত উল্লেখযোগ্য। এগুলো হচ্ছে বারি বাঁধাকপি-১ (প্রভাতী) ও বারি বাঁধাকপি-২ (অগ্রদূত)।

বাঁধাকপির চারা রোপণের প্রধান সময় অক্টোবর থেকে নভেম্বর। এ সবজিটি মূলত চারা তৈরি করে রোপণ করা হয়। প্রথমে বালি, মাটি ও জৈবসার মিশিয়ে ঝরঝরে করে বীজতলা তৈরি করতে হয়। বীজতলা থেকে চারা ঠিকভাবে বাড়ানোর জন্য নিয়মিত সার দিতে হবে। এরপর যে জমিতে রোপণ করা হ,ে সেখানে পাঁচ থেকে ছয়বার চাষ ও মই দিয়ে রোপণের উপযুক্ত করে নিতে হবে। এ সময় জমিতে প্রয়োজনীয় সার ছিটিয়ে দিতে হবে।

বীজতলা থেকে চারার বয়স ২৫ দিন থেকে এক মাস হলে মূল জমিতে রোপণ করতে হবে। এক সারি থেকে আরেক সারির দূরত্ব ৬০ সেন্টিমিটার হতে হবে। চারা বিকালে রোপণ করা উত্তম। জৈবসারের পাশাপাশি ইউরিয়া, টিএসপি ও এমওপি ব্যবহার করতে হবে। চারা রোপণের এক মাস পর সেচের ব্যবস্থা করতে হবে। এ সবজির সবচেয়ে ক্ষতিকর পোকা হলো মাথাখেকো লেদাপোকা। এ পোকা দমনের জন্য কৃষি দফতরের পরামর্শ অনুযায়ী কীটনাশক ওষুধ স্প্রে করতে হবে। এছাড়া বিভিন্ন রোগবালাই দূর করতে ছত্রাকনাশক ওষুধও ব্যবহার করা যেতে পারে।

চারা রোপণের তিন মাস পর ফসল সংগ্রহ

করা যাবে।

হ কৃষি-কৃষ্টি ডেস্ক

সর্বশেষ..