করপোরেট টক

সময়ের পরিক্রমায় কফিপ্রেমীদের পছন্দের শীর্ষে গ্লোরিয়া জিনস

বিশ্বে গ্লোরিয়া জিনসের এক হাজার ৯০০’র বেশি শপ রয়েছে। শীর্ষস্থানীয় এ কফিশপের নানা দিক তুলে ধরেছেন হাসানুজ্জামান পিয়াস ও আয়শা আক্তার চৌধুরী

গ্লোরিয়া জিনস কফিস একটি কফিশপ ফ্র্যাঞ্চাইজি। অস্ট্রেলিয়াভিত্তিক এ কোম্পানিটি বিশ্বের ৪৯টির বেশি দেশে কফিশপের ব্যবসা পরিচালনা করছে।

সারা বিশ্বে গ্লোরিয়া জিনসের এক হাজার ৯০০’র বেশি শপ রয়েছে। এর মধ্যে অস্ট্রেলিয়াতেই রয়েছে ৫০০টির বেশি।

১৯৭৯ সালে যুক্তরাষ্ট্রের জুটি গ্লোরিয়া জিন কেভেটকো ও এড উত্তর শিকাগোয় এ কফিশপ প্রতিষ্ঠা করেন। প্রথমে এ জুটি কফির পাশাপাশি উপহারসামগ্রী বিক্রেতা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন। উপহারসামগ্রী বিপণনের পাশাপাশি তারা কফিশপ চালু করেন। তাদের কফির জনপ্রিয়তা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় ৫০টি স্থানে শপ পরিচালনা শুরু হয়। ১৯৯৫ সালে অ্যাডভারটাইজিং এজেন্সি ডিডিবি নিডহ্যামের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক নবি সালেহ ও পিটার আরভিন আমেরিকায় যান। তারা অস্ট্রেলিয়ায় গ্লোরিয়া জিনসের ব্যবসার উপযোগিতা ও সম্ভাবনা উপলব্ধি করেন এবং গ্লোরিয়া জিনস ব্র্যান্ডের আন্তর্জাতিক লাইসেন্সিং অধিকারের স্বত্ব কিনে নেন।

সালেহ ও আরভিন অস্ট্রেলিয়ায় নিজেদের উদ্যোগে গ্লোরিয়া জিনসের ব্যবসায়িক কার্যক্রম শুরু করেন। যুক্তরাষ্ট্র ও পুয়ের্তো রিকো ব্যতীত তারা অন্যান্য দেশে গ্লোরিয়া জিনসের ব্যবসায়িক স্বত্ব কিনে নেন। ১৯৯৬ সালে অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে গ্লোরিয়া জিনসের প্রথম কফির দোকান নির্মাণ করা হয়। এর দু’সপ্তাহ পর সিডনির আরেকটি স্থানে আরেকটি শাখা খোলা হয়। এরপর বিভিন্ন দেশে গ্লোরিয়া জিনসের বিস্তৃতি ঘটে। ২০১৪ সালে রিটেইল ফুড গ্রুপ নামের একটি প্রতিষ্ঠান গ্লোরিয়া জিনসকে ১৬৩ দশমিক পাঁচ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের বিনিময়ে কিনে নেয়।

বাংলাদেশে ২০১২ সালে গ্লোরিয়া জিনসকে নিয়ে আসে নাভানা ফুডস লিমিটেড। সে থেকে দেশে কফিপ্রেমী তৈরিতে অনন্য ভূমিকা রেখে চলেছে জনপ্রিয় এ কফিশপ। বর্তমানে রাজধানীর গুলশান ও ধানমন্ডিতে তিনটি আউটলেট রয়েছে এর। কফির জন্য জনপ্রিয় হলেও মডার্ন এ আউটলেটগুলোয় কফির পাশাপাশি পাওয়া যায় নানা ধরনের স্ন্যাকস কিংবা ফাস্টফুড-জাতীয় খাবার। নানা ধরনের কফির পাশাপাশি পাওয়া যায় ব্রেকফাস্ট আইটেম, পিৎজা, বার্গার, স্যান্ডউইচ, পাস্তা, ডেজার্টসহ বেশ কয়েকটি ফাস্টফুড আইটেম। ক্রেতার চাহিদার কথা চিন্তা করেই গ্লোরিয়া জিনস এসব খাবারের প্রবর্তন করেছে। চাইলে সুবিধাজনক স্থানে বসে অনলাইনে অর্ডার করেও গ্লোরিয়া জিনসের খাবারের স্বাদ উপভোগ করতে পারবেন।

গ্লোরিয়া জিনস তাদের ক্রেতার জন্য এ সবকিছুর পাশাপাশি কিছু মার্চেন্ডাইজ পণ্যেরও ব্যবস্থা রেখেছে। এসব পণ্যের মধ্যে রয়েছে কফি বিন, কফি মেকার, কফি মগ প্রভৃতি। সব সময় ক্রেতার চাহিদা নিয়ে চিন্তা করে প্রতিষ্ঠানটির কর্তৃপক্ষ। এজন্য বিভিন্ন ক্রেতার মনের মতো করে সাজানো এর আউটলেটগুলো। এখানে রয়েছে শিশুদের জন্য আলাদা খেলার স্থান। গুলশান-২-এর আউটলেটটিতে দেখা গেছে বিজনেস মিটিংয়ের জন্য আলাদা রুম। সুন্দর পরিবেশে এক কাপ অনন্য স্বাদের কফির স্বাদ নেওয়ার অন্যতম স্থান গ্লোরিয়া জিনস। এজন্যই বোধহয় সব বয়সের কফিপ্রেমীর পছন্দের তালিকার প্রথম দিকেই রয়েছে গ্লোরিয়া জিনস কফি!

শিক্ষার্থীদের কর্মসংস্থান

গ্লোরিয়া জিনসের বিশেষ বৈশিষ্ট্য হলো, প্রতিষ্ঠানটি অনেক শিক্ষার্থীর কর্মসংস্থান করেছে। প্রায় দুই শতাধিক মানুষের কর্মসংস্থান করেছে এটি। মজার বিষয় হচ্ছে তাদের বেশিরভাগই বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া ছাত্রছাত্রী।

শিক্ষার্থীদের খণ্ডকালীন কাজ করা ও শেখার চমৎকার পরিবেশ সৃষ্টি করেছে গ্লোরিয়া জিনস কর্তৃপক্ষ। পড়ালেখার পাশাপাশি যারা কাজ করছেন, তাদের জন্য নানা ধরনের সুযোগ-সুবিধাও বরাদ্দ রেখেছে কর্তৃপক্ষ। পরীক্ষা কিংবা ক্লাসের জন্য শিক্ষার্থীদের শিফটমেন্ট বেসিসে কাজ করার সুযোগ রয়েছে এখানে।

নারী কর্মীদের স্বাচ্ছন্দ্যময় কর্মপরিবেশ নিশ্চিত করেছে গ্লোরিয়া জিনস। রাতের শিফটে কর্মরত নারীকর্মীদের জন্য পরিবহন সুবিধা বরাদ্দ রেখেছে কর্তৃপক্ষ।

জনপ্রিয় মেন্যু

সিগনেচার এসপ্রেসো বারের মধ্যে ক্লাসিকস যেমন ক্যাপাচিনো, এসপ্রেসো, ক্যাফে আমেরিকানো, কফি অব দ্য ডে, স্পেশালিটিস, হট চকোলেট। সিগনেচার চিলার বারের মধ্যে এসপ্রেসো অ্যান্ড মোচা চিলার, চকোলেট চিলার, অভার আইসসহ ফিউশনের হরেক কফি তো রয়েছেই, পাশাপাশি খাবারের আইটেমও কম নয়।

ব্রেকফাস্ট মেন্যুর মধ্যে অন্যতম জনপ্রিয় হচ্ছে বিগ ব্রেকফাস্ট, স্প্যানিশ অমলেট, মেক্সিকান ব্রেকি প্রভৃতি। স্টার্টারস মেন্যুর মধ্যে চিকেন ললি, স্পাইসি চিকেন উইংস, স্টিম চিকেন মোমো, থাই লেমন চিকেন ললি প্রভৃতি বেশ জনপ্রিয়। এছাড়া পাবেন সুস্বাদু নানা ধরনের পাস্তা, সালাদ। ইচ্ছমতো আইটেম কমিয়ে বাড়িয়ে নেওয়ার সুযোগও রেখেছে গ্লোরিয়া জিনস।

‘মেইনস’ মেন্যুর মধ্যে বেশ কয়েকটি আইটেম জনপ্রিয়। এর মধ্যে রয়েছে, চিকেন পিকাসো, চিকেন স্ক্যালোপিনি, চিকেন আঙ্গারা, বিফ স্টেক ও ইমপোর্টেড ল্যাম্পচপসহ কিছু আইটেম।

মার্চেন্ডাইজ পণ্য

গ্লোরিয়া জিনসে চাখতে আসা কফিপ্রেমীদের জন্য একটি বিশেষ সেবা মার্চেন্ডাইজ পণ্য সরবরাহ। গ্রাহকের কথা চিন্তা করে একেবারে ভিন্ন ধরনের এ সেবা চালু করেছে প্রতিষ্ঠানটি। অস্ট্রেলিয়া থেকে আমদানি করা নানা ধরনের কফি ও কফি তৈরির নানা পণ্য আউটলেটে প্রর্দশনী ও বিক্রির ব্যবস্থা করা হয়েছে। কফিপ্রেমীরা যেন বাসায় বসেও মনের মতো এক কফি খেতে পারেন সে চিন্তা থেকেই কফি ও কফি তৈরির বাহারি পণ্য সরবরাহ করছে গ্লোরিয়া জিনস। এসব পণ্যের মধ্যে রয়েছে

#     গ্লাস টি পট

#     হোম গ্রিন্ডার

#     কফি বিন

#     ব্যাম্বু ট্রাভেল মগ

#     থার্মাল ট্রাভেল মগ

#     রেইনফোরেস্ট অ্যালায়েন্স মগ

#     জি-৭৯ ডিইও এসপ্রেসো মেশিন

#     কোল্ড সিপার কাপস

#     ক্যাফে কাপস

#     কফি প্লাগার

#     গ্লাস অ্যান্ড প্লাস্টিক টি পট

#     নানা ধরনের চা

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..