প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বোচ্চ দরে শাশা ডেনিমসের শেয়ার

নিজস্ব প্রতিবেদক: সর্বোচ্চ দরে বিক্রি হলো শাশা ডেনিমসের শেয়ার। গতকাল সোমবার দিনশেষে এ শেয়ার লেনদেন হয় ৭২ টাকায়। ২০১৫ সালে তালিকাভুক্তির পর এ শেয়ারের সর্বোচ্চ দর ছিল ৬৯ টাকা। বরাবরই এ শেয়ারের চাহিদা থাকার কারণে দর বেড়েছে বলে মনে করছে কোম্পানি কর্তৃপক্ষ।

কোম্পানিটি গতকালের লেনদেন চিত্রে দেখা যায়, চাহিদা থাকার কারণে সকাল থেকে ঊর্ধ্বমুখী ছিল শেয়ারদর। দিনজুড়ে শেয়ারের দর ওঠানামা করা ৬৫ টাকা ৮০ পয়সা থেকে ৭৩ টাকা ৮০ পয়সার মধ্যে। দিন শেষে মূল্য স্থির হয় ৭২ টাকায়। এক দিনের ব্যবধানে প্রতিটি শেয়ারের দর বাড়ে চার টাকা ৮০ পয়সা। এ দিন কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয় ৪৬ লাখ ২৩ হাজার ৯০টি। আর এ শেয়ারগুলো বেচাকেনা হয় তিন হাজার ৩৯১ বার হাতবদলের মধ্যে দিয়ে।

শেয়ারের দর বাড়ার বিশেষ কোনো কারণ রয়েছে কি নাÑতা জানতে যোগাযোগ করা হলে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক (ফাইন্যান্স) আহসানুল হক সোহেল শেয়ার বিজ্কে বলেন,  ‘শেয়ারদর বাড়ার বিশেষ কোনো কারণ আমার জানা নেই। তবে শুরু থেকে আমাদের শেয়ারের চাহিদা রয়েছে। অর্থাৎ শেয়ারপ্রতি আস্থা রয়েছে ক্রেতাদের। হয়তোবা ক্রেতাদের সে চাহিদা থেকে দর বাড়তে পারে।’

এদিকে সর্বশেষ আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, এ কোম্পানির শেয়ারপ্রতি আয় হয়েছে এক টাকা ১০ পয়সা। গত বছর যা ছিল এক টাকা পাঁচ পয়সা।  বর্তমানে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য ৪৪ টাকা ৪৬ পয়সা। গত বছর যা ছিল ৪৪ টাকা ৮৬ পয়সা।

ধারাবাহিক মুনাফায় থাকা এ প্রতিষ্ঠানটি এ বছর মুনাফা করেছে ৮৪ কোটি ২৯ লাখ টাকা। আগের বছর যা ছিল  ১৭ কোটি ৫১ লাখ টাকা। প্রতিষ্ঠানটি সর্বশেষ শেয়ারহোল্ডারদের ২৫ শতাংশ করে নগদ লভ্যাংশ দেন।

২০১৫ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানিটির মোট শেয়ারের মধ্যে ৪৬ দশমিক ৫২ শতাংশ শেয়ার রয়েছে পরিচালকদের কাছে। এছাড়া  সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ২৭ দশমিক ৬৭ শতাংশ শেয়ার।  বাকি শেয়ারের মধ্যে ১৭ দশমিক ৭৫ শতাংশ শেয়ার প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে এবং বিদেশিদের কাছে রয়েছে ৮ দশমিক ০৬ শতাংশ শেয়ার।