দিনের খবর পত্রিকা শেষ পাতা

সাত কলেজের পরীক্ষা চলবে

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অধিভুক্ত সাত কলেজের চলমান এবং ঘোষিত পরীক্ষাগুলো রুটিন অনুযায়ী চলবে। গতকাল বুধবার সাত কলেজের অধ্যক্ষ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামানের সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনির অনলাইন বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ সিদ্ধান্তের পর বিকালে চলমান পরীক্ষা স্থগিতের প্রতিবাদে রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে অবস্থান নেয়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত রাজধানীর সাত সরকারি কলেজের শিক্ষার্থীরা রাস্তা ছেড়ে দিয়েছেন। শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের কারণে পুরো ঢাকা শহরের বিভিন্ন রাস্তায় তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়।
সাত কলেজের শিক্ষা কার্যক্রম তদারকির দায়িত্বপ্রাপ্ত (ফোকাল পয়েন্ট) ঢাকা কলেজের অধ্যক্ষ আই কে সেলিম উল্লাহ খোন্দকার এ তথ্য জানান। তবে তিনি বলেন, এ সময় ছাত্রাবাস খোলা হবে না।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত সাতটি বড় সরকারি কলেজের পরীক্ষা স্থগিত করার প্রতিবাদে রাজধানীর নীলক্ষেত মোড়ে দ্বিতীয় দিনের মতো গতকালও অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন শিক্ষার্থীরা। সকাল ৯টা থেকে নীলক্ষেত মোড়ে কয়েকশ শিক্ষার্থী অবস্থান নেন। এ কারণে নিউমার্কেট-আজিমপুর সড়কের উভয় পাশে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এছাড়া সরকারি তিতুমীর কলেজের শিক্ষার্থীরাও কলেজ প্রাঙ্গণে রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন।
দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে সাত কলেজের শিক্ষা কার্যক্রম তদারকির
দায়িত্বপ্রাপ্ত (ফোকাল পয়েন্ট) আই কে সেলিম উল্লাহ ঢাকা কলেজ ও ইডেন মহিলা কলেজের বেশ কয়েকজন শিক্ষক নিয়ে ওই এলাকায় যান। তিনি জানান, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে সাত কলেজের অধ্যক্ষদের ডাকা হয়েছে। সেখানে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত আসবে বলে তিনি আশা করেন। তবে আই কে সেলিম উল্লাহর আশ্বাসের পরও সড়ক ছাড়তে চাননি শিক্ষার্থীরা। তারা শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে লিখিত আকারে বিজ্ঞপ্তি ও এর সুষ্ঠু সমাধান চেয়েছেন।
উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সাত কলেজের চলমানসহ সব পরীক্ষা স্থগিত ঘোষণা করে। ওইদিন রাত ৮টা থেকে শতাধিক শিক্ষার্থী নীলক্ষেত মোড়ে অবস্থান নেন। পরে রাত সোয়া ১০টার দিকে তারা চলে যান। আজ সকাল থেকে তারা আবার অবস্থান নেন। ওই সময় ইডেন কলেজের শিক্ষার্থী সাজিয়া সুলতানা বলেন, ‘আমাদের স্নাতক চতুর্থ বর্ষের মাত্র একটা পরীক্ষা বাকি। এ পর্যায়ে পরীক্ষা বন্ধ হওয়ায় আমরা চরম অনিশ্চয়তায় আছি।’
ঢাকা কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞানের শিক্ষার্থী নাহিদ হোসেন বলেন, ‘স্নাতক তৃতীয় বর্ষের পরীক্ষা নির্দিষ্ট সময়ের পরে শুরু হলো। আমরা আমাদের শিক্ষাজীবন নিয়ে চরম শঙ্কিত।’
মঙ্গলবার সাত কলেজের অধ্যক্ষ ও সংশ্লিষ্ট তিনজন ডিনকে নিয়ে সভা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য (শিক্ষা) এএসএস মাকসুদ কামাল। তিনি সাত কলেজের প্রধান সমন্বয়কের দায়িত্ব পালন করছেন। এই সভাতেই পরীক্ষা স্থগিতের সিদ্ধান্ত হয়।
এর আগে গত সোমবার অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি জানান, রোজার ঈদের পর আগামী ২৪ মে থেকে দেশের সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে আবারও শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শুরু হবে। তার আগে ১৭ মে আবাসিক হলগুলো খুলবে। খোলার আগে কোনো পরীক্ষা হবে না। যেসব বিশ্ববিদ্যালয় পরীক্ষা ও হল খোলার ঘোষণা দিয়েছিল, সেই সিদ্ধান্তও বাতিল হবে। অবশ্য অনলাইনে ক্লাস চলবে।
২০১৭ সালের ফেব্রæয়ারিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত হয় ঢাকা কলেজ, ইডেন মহিলা কলেজ, সরকারি শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ, কবি নজরুল সরকারি কলেজ, বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ, মিরপুর সরকারি বাঙলা কলেজ ও সরকারি তিতুমীর কলেজ। এই কলেজগুলোয় মোট শিক্ষার্থী প্রায় দুই লাখ।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..