প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সাপ্তাহিক দরপতনের শীর্ষে ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্স

নিজস্ব প্রতিবেদক:ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গত সপ্তাহে দরপতনের তালিকায় শীর্ষে উঠে এসেছে বিমা খাতের কোম্পানি ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। আলোচিত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারদর কমেছে ১২ দশমিক ২৯ শতাংশ।

ডিএসই থেকে প্রাপ্ত তথ্যমতে, গেল সপ্তাহে কোম্পানিটির দৈনিক গড় লেনদেন হয়েছে ৩৮ কোটি ৪১ লাখ ৪৯ হাজার ৪০০ টাকার। আর সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির মোট লেনদেন হয় ১৯২ কোটি সাত লাখ ৪৭ হাজার টাকার।

এদিকে সর্বশেষ কার্যদিবসে ডিএসইতে শেয়ারদর শূন্য দশমিক ১১ শতাংশ বা ২০ পয়সা বেড়ে প্রতিটি সর্বশেষ ১৮৬ টাকা ৩০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দরও ছিল ১৮৬ টাকা ৩০ পয়সা। ওইদিন কোম্পানিটির ১০ লাখ ৮২ হাজার ৬২২টি শেয়ার মোট তিন হাজার ২৭৭ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর ২০ কোটি ৩৫ লাখ ২০ হাজার টাকা। আর দিনভর শেয়ারদর সর্বনিম্ন ১৮৫ টাকা ৭০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ১৯৩ টাকায় ওঠানামা করে। এক বছরের মধ্যে শেয়ারদর ৬১ টাকা ৪০ পয়সা থেকে ২৩৯ টাকায় ওঠানামা করে।

সর্বশেষ ২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাববছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে বিনিয়োগকারীদের জন্য ২৬ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে। এর আগে ২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাববছরে কোম্পানিটি বিনিয়োগকারীদের জন্য ২৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে, যা ২০১৬ সালে ছিল ২০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ।

বিমা খাতের এ কোম্পানিটি ১৯৯৫ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়ে বর্তমানে ‘এ’ ক্যাটেগরিতে অবস্থান করছে। ৫০০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ১২৩ কোটি ৭৫ লাখ টাকা। কোম্পানিটির ১২ কোটি ৩৭ লাখ ৫০ হাজার শেয়ার রয়েছে। ডিএসই থেকে প্রাপ্ত সর্বশেষ তথ্যমতে, কোম্পানির মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের কাছে রয়েছে ৩৩ দশমিক ৮৭ শতাংশ শেয়ার, প্রাতিষ্ঠানিক ১৬ দশমিক ২০ শতাংশ, ও সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ৪৯ দশমিক ৯৩ শতাংশ শেয়ার।

এদিকে দর পতনের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা কেডিএস অ্যাকসেসরিজ লিমিটেডের শেয়ারদর কমেছে ৯ দশমিক ৭৩ শতাংশ। গেল সপ্তাহে ‘এ’ ক্যাটেগরির কোম্পানিটির দৈনিক গড় লেনদেন হয়েছে সাত কোটি ৪৭ লাখ ৭২ হাজার ৮০০ টাকার শেয়ার লেনদেন হয় আর সপ্তাহ শেষে মোট লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় ৩৭ কোটি ৩৮ লাখ ৬৪ হাজার টাকা।

এদিকে সর্বশেষ কার্যদিবসে ডিএসইতে শেয়ারদর শূন্য দশমিক ৩১ শতাংশ বা ২০ পয়সা কমে প্রতিটি সর্বশেষ ৬৪ টাকায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দরও ছিল একই। ওইদিন কোম্পানিটির পাঁচ লাখ ৩২ হাজার ৬৬৫টি শেয়ার মোট এক হাজার ২১ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর তিন কোটি ৪২ লাখ ৯০ হাজার টাকা। আর দিনভর শেয়ারদর সর্বনি¤œ ৬৩ টাকা ৭০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ৬৫ টাকা ৬০ পয়সায় ওঠানামা করে। এক বছরের মধ্যে শেয়ারদর ৩৯ টাকা ৯০ পয়সা থেকে ৮৪ টাকা ৪০ পয়সায় ওঠানামা করে।

দর পতনের তালিকায় তৃতীয় অবস্থানে থাকা এমারাল্ড অয়েল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের শেয়ারদর কমেছে ৯ দশমিক ৩৪ শতাংশ। গেল সপ্তাহে ‘জেড’ ক্যাটেগরির কোম্পানিটির দৈনিক গড় লেনদেন হয়েছে এক কোটি ৬৯ লাখ ৩১ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয় আর সপ্তাহ শেষে মোট লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় আট কোটি ৪৬ লাখ ৫৫ হাজার টাকা।

এরপরের অবস্থানে থাকা এস আলম কোল্ড রোল্ড স্টিলস লিমিটেডের শেয়ারদর কমেছে আট দশমিক ৫৫ শতাংশ, পিপলস ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের আট দশমিক ২১ শতাংশ, শ্যামপুর সুগার মিলস লিমিটেডের আট দশমিক ১৫ শতাংশ, সি পার্ল বিচ রিসোর্ট অ্যান্ড স্প্যা লিমিটেডের সাত দশমিক ৭৮ শতাংশ, ই-জেনারেশন লিমিটেডের সাত দশমিক ৬৯ শতাংশ, অগ্নি সিস্টেমস লিমিটেডের সাত দশমিক ২৩ শতাংশ এবং আরএন স্পিনিং মিলস লিমিটেডের সাত দশমিক শূন্য চার শতাংশ শেয়ারদর কমেছে।