প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সাপ্তাহিক লুজারে ৮০ শতাংশ ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানি

 

 

নিজস্ব প্রতিবেদক: সমাপ্ত সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) দর কমার শীর্ষে ১০ কোম্পানির মধ্যে আট কোম্পানি অর্থাৎ ৮০ শতাংশই ছিল ‘এ’ ক্যাটাগরির।

ডিএসইর তথ্য অনুযায়ী, গত সপ্তাহে লুজারের ‘এ’ ক্যাটাগরির আট কোম্পানির মধ্যে সবার উপরে ছিল প্রকৌশল খাতের কোম্পানি ন্যাশনাল টিউবস লিমিটেড। সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির শেয়ারদর কমেছে ১৪ দশমিক ০৬ শতাংশ। প্রতিদিন গড়ে ১১ কোটি ৮৪ লাখ ৭৩ হাজার ৩০০ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর পুরো সপ্তাহে কোম্পানির ৫৯ কোটি ২৩ লাখ ৬৬ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার কোম্পানিটির শেয়ারদর আগের দিনের চেয়ে ২ দশমিক ৫৫ শতাংশ বা তিন টাকা ৩০ পয়সা  কমে প্রতিটি শেয়ার সর্বশেষ ১২৬ টাকা ২০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ১২৫ টাকা ৩০ পয়সা। দিনজুড়ে ছয় লাখ ২২ হাজার ২৪৩টি শেয়ার দুই হাজার ৯৫০ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর সাত কোটি ৮৯ লাখ ৭৫ হাজার টাকা। শেয়ারদর সর্বনিম্ন ১২৪ টাকা ৭০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ১৩১ টাকা ৫০ পয়সায় হাতবদল হয়। গত এক বছরে শেয়ারদর ৭২ টাকা ২০ পয়সা থেকে ১৫৬ টাকা ৯০ পয়সার মধ্যে ওঠানামা করে। ১০০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ২৩ কোটি ৭৮ লাখ ৩০ হাজার টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ৫৪৬ কোটি ১২ লাখ টাকা।

সপ্তাহিক লুজারের তৃতীয় স্থানে ছিল ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানি এশিয়া ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। গত সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির শেয়ারদর কমেছে নয় দশমিক ২৭ শতাংশ। প্রতিদিন গড়ে  ১০ লাখ ৬০ হাজার ৪০০ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর পুরো সপ্তাহে কোম্পানির ৫৩ লাখ দুই হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার কোম্পানিটির শেয়ারদর আগের দিনের চেয়ে এক দশমিক ০৬ শতাংশ বা ২০ পয়সা কমে প্রতিটি শেয়ার সর্বশেষ ১৮ টাকা ৭০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ১৮ টাকা ৬০ পয়সা। দিনজুড়ে ৩৮ হাজার ৭৯৬টি শেয়ার ৬১ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর সাত লাখ ২০ হাজার টাকা। শেয়ারদর সর্বনি¤œ ১৮ টাকা ৩০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ১৮ টাকা ৭০ পয়সায় হাতবদল হয়। গত এক বছরে শেয়ারদর ১১ টাকা ৯০ পয়সা থেকে ২২ টাকার মধ্যে ওঠানামা করে। ১০০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ৪৭ কোটি ছয় লাখ ৯০ হাজার টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ২২ কোটি ৬৬ লাখ টাকা।

সাপ্তাহিক লুজারের পঞ্চম স্থানে ছিল ‘এ’ ক্যাটাগরির ফান্ড খাতের এলআর গ্লোবাল বাংলাদেশ মিউচুয়াল ফান্ড ওয়ান। গত সপ্তাহজুড়ে ফান্ডটির ইউনিট দর কমেছে ছয় দশমিক ৯৪ শতাংশ। প্রতিদিন গড়ে  ১৮ লাখ ৮১ হাজার ৮০০ টাকার ইউনিট লেনদেন হয়েছে। আর পুরো সপ্তাহে ৯৪ লাখ নয় হাজার টাকার ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

গত সপ্তাহে ছয় দশমিক ৯০ শতাংশ কমে লুজারের ষষ্ঠ স্থানে ছিল বাংলাদেশ জেনারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। প্রতিদিন গড়ে  ২৩ লাখ ৯০ হাজার ৬০০ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর পুরো সপ্তাহে কোম্পানির এক কোটি ১৯ লাখ ৫৩ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার কোম্পানিটির শেয়ারদর আগের দিনের চেয়ে এক দশমিক ০৬ শতাংশ বা ২০ পয়সা কমে প্রতিটি শেয়ার সর্বশেষ ১৯ টাকা ১০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ১৮ টাকা ৯০ পয়সা। দিনজুড়ে ৬৩ হাজার ৯৫টি শেয়ার ১০৪ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর ১১ লাখ ৯৪ হাজার টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ২৭ কোটি ৫১ লাখ টাকা।

গত সপ্তাহে শেয়ারদর ৬ দশমিক ৭৮ শতাংশ কমে লুজারের সপ্তম স্থানে ছিল প্রগতি ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড। প্রতিদিন গড়ে  ১৬ লাখ ৩৬ হাজার ৮০০ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর পুরো সপ্তাহে কোম্পানির ৮১ লাখ ৮৪ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার কোম্পানিটির শেয়ারদর আগের দিনের চেয়ে শূন্য দশমিক ৭২ শতাংশ বা ২০ পয়সা  কমে প্রতিটি শেয়ার সর্বশেষ ২৭ টাকা ৫০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ২৭ টাকা ৫০ পয়সা। দিনজুড়ে ৬৮ হাজার ৭৭০টি শেয়ার ৭৭ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর ১৮ লাখ ৯৭ হাজার টাকা। শেয়ারদর সর্বনি¤œ ২৭ টাকা ৪০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ২৮ টাকা ২০ পয়সায় হাতবদল হয়।

গত সপ্তাহে শেয়ারদর পাঁচ দশমিক ৮১ শতাংশ কমে লুজারের অষ্টম স্থানে ছিল সোনার বাংলা ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড। প্রতিদিন গড়ে আট লাখ ৬৪ হাজার ২০০ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর পুরো সপ্তাহে কোম্পানির ৪৩ লাখ ২১ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

শেয়ারদর ৫ দশমিক ৭৮ শতাংশ কমে লুজারের নবম স্থানে ছিল খাদ্য ও আনুষঙ্গিক খাতের কোম্পানি ন্যাশনাল ‘টি’ কোম্পানি লিমিটেড। প্রতিদিন গড়ে চার কোটি ১৯ লাখ ৭৯ হাজার ৪০০ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর পুরো সপ্তাহে কোম্পানির ২০ কোটি ৯৮ লাখ ৯৭ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।গত সপ্তাহজুড়ে শেয়ারদর ৫ দশমিক ৫২ শতাংশ কমে লুজারের দশম স্থানে ছিল প্রভাতী ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। প্রতিদিন গড়ে ১২ লাখ ৪০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর পুরো সপ্তাহে কোম্পানির ৬২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।