কোম্পানি সংবাদ পুঁজিবাজার

সাপ্তাহিক লেনদেনের শীর্ষে বেক্সিমকো

নিজস্ব প্রতিবেদক: সদ্যবিদায়ী সপ্তাহে আগের সপ্তাহের মতো লেনদেনের শীর্ষে ছিল বাংলাদেশ এক্সপোর্ট-ইমপোর্ট কোম্পানি লিমিটেড বা বেক্সিমকো। দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। পুঁজিবাজারে আলোচিত এ কোম্পানিটির বিদায়ী সপ্তাহের পাঁচ কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছে মোট ৫৬৩ কোটি ৩৬ লাখ ১৬ হাজার টাকার, যা বাজারের মোট লেনদেনের ১৫ দশমিক ৬৭ শতাংশ। সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির মোট ছয় কোটি ৭১ লাখ ৯৪ হাজার ২৫টি শেয়ার ইউনিট হাতবদল হয়।

তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে আছে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম মোবাইল অপারেটর কোম্পানি রবি আজিয়াটা। সপ্তাহে এ কোম্পানিটির মোট ২৭৬ কোটি ৮৬ লাখ ৩৮ হাজার টাকার লেনদেন হয়, যার শেয়ার পরিমাণ পাঁচ কোটি ৯১ লাখ ৯৪ হাজার ১৯২টি। বাজারের মোট লেনদেনের সাত দশমিক ৭০ শতাংশ ছিল এ কোম্পানির দখলে। তালিকার তিন নাম্বারে ছিল বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো বাংলাদেশ লিমিটেড। সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির ২৪১ কোটি ৬৪ লাখ ৪১ হাজার টাকা সমপরিমাণের শেয়ার ইউনিট লেনদেন হয়, যা বাজারের মোট লেনদেনের ছয় দশমিক ৭২ শতাংশ। এ কোম্পানিটির মোট ১৮ লাখ ১৫ হাজার ১৭৭টি শেয়ার ইউনিট হাতবদল হয়। তালিকার এরপরের অবস্থানে ছিল বেক্সিমকোর আরেকটি প্রতিষ্ঠান বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড। বাজারের মোট লেনদেনের পাঁচ দশমিক ৭৫ শতাংশ ছিল এ কোম্পানিটির দখলে। টাকার হিসাবে সপ্তাহজুড়ে মোট ২০৬ কোটি ৬৭ লাখ ৬৩ হাজার টাকা এবং এক কোটি ৯৯ লাখ ৮৬১টি শেয়ার ইউনিট হাতবদল হয়।

তালিকার পাঁচ নম্বরে ছিল ব্যাংকবহির্ভূত আর্থিক খাতের প্রতিষ্ঠান লংকাবাংলা ফিন্যান্স লিমিটেড। সপ্তাহজুড়ে মোট ১৫৩ কোটি ৩৩ লাখ ৫১ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয় কোম্পানিটির যার ইউনিট সংখ্যা চার কোটি ৪৯ লাখ ৬৮ হাজার ২৪টি। বিদায়ী সপ্তাহের মোট লেনদেনের চার দশমিক ২৬ শতাংশ ছিল এ কোম্পানির। এরপরের অবস্থানে ছিল বিদ্যুৎ খাতের প্রতিষ্ঠান সামিট পাওয়ার লিমিটেড। সপ্তাহের পাঁচ দিন এ কোম্পানিটির মোট লেনদেন দাঁড়ায় ১২৯ কোটি ৩৪ লাখ এক হাজার টাকার, যা শেয়ার ইউনিট হিসাবে দুই কোটি ৮৫ লাখ ৭৪ হাজার ৯২১টি শেয়ারের সমমূল্যের। বাজারের মোট লেনদেনের তিন দশমিক ৬০ শতাংশ ছিল এ কোম্পানির অবদান।

তালিকার সাত নম্বরে ছিল বিদ্যুৎ খাতের আরেক প্রতিষ্ঠান জিবিবি পাওয়ার লিমিটেড। এ কোম্পানিটির সপ্তাহজুড়ে লেনদেন হয় ১০৮ কোটি ৭৪ লাখ ৯৭ হাজার টাকার, যা তিন কোটি ৮৭ লাখ ১২ হাজার ৭৩৭টি শেয়ার ইউনিটের সমমূল্য। বাজারে এ কোম্পানির মোট লেনদেনে অবদান ছিল তিন দশমিক শূন্য দুই শতাংশ। তালিকার আট নম্বরে ছিল সিমেন্ট খাতের প্রতিষ্ঠান লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ লিমিটেড। মোট লেনদেনের দুই দশমিক ৭০ শতাংশ ছিল এ কোম্পানির দখলে। টাকার হিসাবে যা সপ্তাহ শেষে দাঁড়ায় ৯৭ কোটি ১৭ লাখ ৮১ হাজার টাকা। মোট এক কোটি ৮৫ লাখ ৬৫ হাজার ৪৫টি শেয়ার ইউনিট হাতবদল হয় কোম্পানিটির।

তালিকার ৯ নম্বরে ছিল ওষুধ ও রসায়ন খাতের প্রতিষ্ঠান ওরিয়ন ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড। সপ্তাহজুড়ে ৮০ কোটি ৮৯ লাখ দুই হাজার টাকা সমমূল্যের শেয়ার লেনদেন হয়। ইউনিট হিসাবে শেয়ারের পরিমাণ দাঁড়ায় এক কোটি ৫৭ লাখ ৭৯ হাজার ৫১৭টি। বাজারের মোট লেনদেনের দুই দশমিক ২৫ শতাংশ ছিল এ কোম্পানির অবদান।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..