প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সাফল্যের জন্য সময় চাইলেন তামিম

 

ক্রীড়া প্রতিবেদক: গেল বিশ্বকাপের পর থেকে দেশের মাটিতে দুর্দান্ত খেলছে বাংলাদেশ। এ সময়ের মধ্যে টাইগারদের খুব একটা বিদেশ সফরে যেতে হয়নি। তবে চলতি বছর অধিকাংশ সিরিজই দেশের বাইরে। তাই চ্যালেঞ্জটাও বাড়তি। যার শুরুটা হয়েছে নিউজিল্যান্ড সফর দিয়ে। কিন্তু কিউইদের বিপক্ষে দেশের মাটিতে খেলা মাশরাফি বিন মুর্তজার দলকে খুঁজে পাওয়া যায়নি এখনও। ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার পর এবার টি-টোয়েন্টি সিরিজে একই পরিণতির অপেক্ষায় সফরকারীরা। কন্ডিশনের জন্যই নাকি এমনভাবে হারছে টিম বাংলাদেশকে। আর এটা থেকে বের হতে আরও সময়ের প্রয়োজন হবে বলে মনে করেন তামিম ইকবাল। এ জন্য সবাইকে ধৈর্য ধরতে বলছেন টাইগার এ ওপেনার।

নিউজিল্যান্ড সফরের তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে আজ সকাল আটটায় মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ। তার আগে গতকাল এ ম্যাচকে সামনে অনুশীলন করে টিম টাইগার্স। এরপরই সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে তামিম বলেন, ‘পাঁচটা ম্যাচ হেরেছি আমরা। সমর্থকেরা কতটা হতাশ, আমি জানি। তবে মনে রাখতে হবে, আমরা বিদেশি কন্ডিশনে খেলছি। সবারই একটু ধৈর্য ধরতে হবে।’

বাংলাদেশ দলের অধিকাংশ ক্রিকেটারাই এবারই প্রথম বিদেশ সফরে গিয়েছেন। তাদেরকে নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনে মানিয়ে নিতে সময় লাগছে, যা ম্যাচেও প্রভাব পড়ছে। তামিম বলেন, ‘আমাদের পুরো স্কোয়াডে যে ২২ জন আছে, এর মধ্যে বোধ হয় ১০ জনই এই প্রথমবার এ ধরনের কন্ডিশনে খেলছে। যে কোনো দলই যখন বিদেশে যায়, তখন তাদের জন্য সফরটা খুব কঠিন হয়। ইংল্যান্ডকেই দেখুন, টেস্ট ক্রিকেটের এতো ভালো দল, অথচ ভারতের কাছে ৪-০ ব্যবধানে হেরেছে।’

ওয়ানডে সিরিজের তিন ম্যাচ পর টি-টুয়েন্টি সিরিজের দুই ম্যাচেও বাংলাদেশের শুরুটা ছিল দুর্দান্ত। একটা জয়ের সম্ভাবনাও জাগিয়ে তুলেছিল সফরকারীরা। কিন্তু শেষটা কোনো ম্যাচই ধরে রাখতে পারেনি চন্ডিকা হাথুরুসিংহের শিষ্যরা। তবে তাতে হতাশ নন তামিম। নিজেদের এ ভুলগুলো থেকে দ্রুত শিক্ষা নিলেই ভালো কিছু হবে বলেই বিশ্বাস তার। দেখুন, ক্রিকেট এমন একটা খেলা, যেখানে রাতারাতি সব বদলে ফেলা সম্ভব না। আজকে দেশের মাটিতে আমরা যে সাফল্য পাচ্ছি, সেটার জন্যও আমাদের প্রায় বছর দশেক অপেক্ষা করতে হয়েছে। বিদেশি কন্ডিশনেও যদি আমাদের ভালো করতে হয়, নিয়মিত সফর করতে হবে, খেলতে হবে। হয়তো ভবিষ্যতে ৫ থেকে ১০টা ম্যাচেও ফল আমাদের পক্ষে নাও আসতে পারে; কিন্তু ধীরে ধীরে ভুলগুলো কমিয়ে আনলে আমাদের পক্ষেও ভালোভাবে ঘুরে দাঁড়ানো সম্ভব।

কিউইদের বিপক্ষে টানা হারে কিছুটা হতাশ বাংলাদেশ, যা তামিম না বললেও তো বোঝা যায়ই। কিন্তু ড্যাশিং এ ওপেনার বলছেন, চলতি সিরিজে নাকি তারা এখনও একটি-দুটি ম্যাচ জিততে পারে। দলের মধ্যে সবার নাকি এ আত্মবিশ্বাসটা রয়েছে। ভুল বলেননি তামিম। মুখস্ত উইকেটে খেলে যাওয়া বাংলাদেশের ভিন্ন কন্ডিশনে সাফল্য পেতে আরেকটু সময় চাই। কে জানে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজেই হয়তো ঝড় তুলতে পারেন টাইগার ক্রিকেটাররা। তেমন সাফল্যের অপেক্ষায় আছে বাংলাদেশ।