দিনের খবর প্রচ্ছদ শেষ পাতা

সাবেক তথ্যমন্ত্রী মিজানুর রহমান শেলীর আর নেই

শেয়ার বিজ ডেস্ক: সাবেক তথ্যমন্ত্রী, রাজনৈতিক বিশ্লেষক ও লেখক ড. মিজানুর রহমান শেলী আর নেই। মস্তিস্কে রক্তক্ষরণজনিত কারণে  সোমবার দুপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সাবেক এই শিক্ষক (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৬ বছর।

বাসায় পড়ে গিয়ে আহত হলে গত ২৫ জুন মিজানুর রহমান শেলীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সমাজবিজ্ঞানী, লেখক ও ব্যবসায়ী নেতা মিজানুর রহমান শেলী দুই দশক ধরে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে কাজ করেছেন।

শমরিতা হাসপাতালের হিমঘরে মিজানুর রহমান শেলীর লাশ রাখা হয়েছে। তাঁর ছেলে বিদেশ থেকে ফিরলে আগামী বৃহস্পতিবার তাঁকে আজিমপুর কবরস্থানে দাফন করা হবে বলে পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

ড. মিজানুর রহমান শেলীর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। দলের দপ্তর সম্পাদক বেলাল আহমেদ স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এই শোক জানানো হয়।

শোকবাণীতে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘ড. মিজানুর রহমান শেলীর মৃত্যুতে তাঁর পরিবার-পরিজনদের ন্যায় আমিও সমব্যাথী। একজন গুণী, সুশিক্ষিত, সংস্কৃতবান ও রুচিশীল মানুষ হিসেবে তিনি সর্বমহলে সমাদৃত ছিলেন। তিনি ছিলেন রাজনৈতিক বিশ্লেষক এবং সমাজবিজ্ঞান ও রাষ্ট্রবিজ্ঞান নিয়ে গবেষণার পাশাপাশি সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গেও জড়িত ছিলেন। বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী ড. মিজানুর রহমান শেলী সাহিত্যের নানা বিষয়ের চর্চা করতেন। তিনি ছিলেন একজন খাঁটি দেশপ্রেমিক ও আলোকিত মানুষ। একজন সুলেখক হিসেবেও তিনি খ্যাতিমান ছিলেন। স্বদেশ ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে নিবিড়ভাবে যুক্ত থেকে তিনি যে সব পেশার সাথে কাজ করেছেন সেসবের প্রত্যেকটিতে দক্ষতা ও প্রজ্ঞার স্বাক্ষর রেখেছেন। তিনি সমাজসেবার নানা কাজের সঙ্গেও যুক্ত ছিলেন। সর্বোপরি তিনি ছিলেন অত্যন্ত উদার, সজ্জন ও বিনয়ী স্বভাবের মানুষ। ড. মিজানুর রহমান শেলীর মতো একজন বরেণ্য শিক্ষাবিদের মৃত্যু দেশের জন্য বড় ধরনের ক্ষতি।

আমি মরহুম ড. মিজানুর রহমান শেলীর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি এবং শোকার্ত পরিবারবর্গ, গুণগ্রাহী ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি জানাচ্ছি গভীর সমবেদনা।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..