খবর দিনের খবর

সামাজিক উন্নয়নে ২,১২৫ কোটি টাকা ঋণ দেবে এডিবি

নিজস্ব প্রতিবেদক:সামাজিক অবস্থার উন্নয়নে বাংলাদেশকে ২ হাজার ১২৫ কোটি টাকা (২৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার) ঋণ দেবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)। গতকাল এ-সংক্রান্ত একটি চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে বাংলাদেশ ও এডিবির মধ্যে। চুক্তিতে বাংলাদেশের পক্ষে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সচিব ফাতিমা ইয়াসমিন ও এডিবির পক্ষে সংস্থাটির বাংলাদেশে নিযুক্ত কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন প্রকাশ স্বাক্ষর করেন।

মনমোহন প্রকাশ বলেন, ‘করোনার মধ্যে বাংলাদেশ সরকার শক্তিশালী সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি বাস্তবায়নে প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেছিল। করোনা মহামারি সত্ত্বেও ২০২০ অর্থবছরে বাংলাদেশ প্রশংসনীয়ভাবে ৫ দশমিক ২ শতাংশ জিডিপির প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছিল। করোনা মহামারি থেকে উত্তরণ এবং দরিদ্রদের সহায়তায় সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির পাশে দাঁড়াতে পেরে আমরা খুশি। টেকসই উন্নয়নে বাংলাদেশের সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচিকে আমরা সহযোগিতা করব।’

সামাজিক কর্মসূচির আওতায় দরিদ্র, বিধবা, প্রতিবন্ধী, বৃদ্ধদের মতো সমাজে পিছিয়ে থাকাদের বিভিন্ন ভাতার মাধ্যমে সহযোগিতা করে থাকে সরকার।

এডিবি জানিয়েছে, বাংলাদেশ গত দুই দশকে দারিদ্র্য হ্রাসে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি অর্জন করেছে। ২০০০ সালে বাংলাদেশের দারিদ্র্যের হার ছিল ৪৮ দশমিক ৯ শতাংশ, যা ২০১৯ সালের তথ্য অনুযায়ী কমে দাঁড়িয়েছে ২০ দশমিক ৫ শতাংশে। গত দুই দশকে অনেক লোককে চরম দারিদ্র্য থেকে সরিয়ে নেয়া হলেও এখনও যথেষ্ট জনগোষ্ঠী চরম দারিদ্র্যসীমার নিচে বসবাস করছে। এর মধ্যে কভিড-১৯ মহামারি দেশের আর্থ-সামাজিক পরিস্থিতিকে উল্লেখযোগ্যভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে। এর প্রভাবে ২০২০ সালে ৮ দশমিক ২ শতাংশ জিডিপি (মোট দেশজ উৎপাদন) প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা থাকলেও বছর শেষে অর্জন হয়েছে মাত্র ৫ দশমিক ২ শতাংশ।

এডিবি বলেছে, সামাজিক কর্মসূচির মধ্যে বাংলাদেশের সামাজিক উন্নয়নের আন্তঃখাতের সমস্যাগুলো সমাধানের জন্য প্রাতিষ্ঠানিক ও নীতিগত সংস্কার অন্তর্ভুক্ত থাকবে। এর মধ্যে রয়েছে সামাজিক সুরক্ষা ব্যবস্থাপনার প্রশাসনিক দক্ষতার উন্নতির মাধ্যমে সুরক্ষা ব্যবস্থার কভারেজ ও দক্ষতা বাড়ানো। কর্মসূচিটি ৬২ বছরের বেশি বয়সী নারীদের জন্য বয়স্ক ভাতা এবং ১৫০টি উপজেলায় বিধবা, নির্জন ও নিঃস্ব নারীদের জন্য ভাতার আওতা বাড়িয়ে তাদের জীবন মানোন্নয়নে ভূমিকা রাখবে। এছাড়া অন্য সংস্কারগুলোর মধ্যে রয়েছে মোবাইল আর্থিক পরিষেবাগুলোর ব্যবহারে উৎসাহ দেয়া এবং একটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খোলার ব্যবস্থা করা। এছাড়া ডকুমেন্টেশনের প্রয়োজনীয়তা সহজ করে সামাজিক বিমার ব্যবস্থাসহ সামাজিক চিকিৎসার মাধ্যমে দারিদ্র্য থেকে মুক্ত হতে সামাজিক সুরক্ষার সুযোগ আরও বিস্তৃত করা।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন
ট্যাগ ➧

সর্বশেষ..