প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সারা দেশে শুরু হয়েছে উন্নয়ন মেলা

 

শেয়ার বিজ ডেস্ক: সারা দেশে শুরু হয়েছে উন্নয়ন মেলা। গতকাল সোমবার ৬৪ জেলা ও সব উপজেলায় তিন দিনব্যাপী এ মেলা শুরু হয়। আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর:

চট্টগ্রাম: তরুণ প্রজন্মকে ঠিকভাবে পরিচালনা করতে পারলে আগামী এক দশকে পুরো বাংলাদেশের অর্থনৈতিক চিত্র বদলে যাবে। বর্তমান সরকার সেই লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। কর্ণফুলীর তলদেশ দিয়ে নির্মাণ হতে যাচ্ছে টানেল, কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মেরিন ড্রাইভ, মহেশখালী মাতারবাড়ি বিদ্যুৎকেন্দ্র, বাণিজ্যিক রাজধানী চট্টগ্রামসহ সারা দেশে যে উন্নয়ন কর্মযজ্ঞ চলছে, তা বাস্তবায়ন হলে কোটি তরুণের কর্মসংস্থান হবে। দেশের অর্থনীতি বহুগুণ বৃদ্ধি পাবে। চট্টগ্রামে উন্নয়ন মেলার উদ্বোধনকালে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেজা) নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী এ কথা বলেন।

সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প নিয়ে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আয়োজিত উন্নয়ন মেলা সারা দেশের মতো চট্টগ্রামেও শুরু হয়েছে। উদ্বোধন অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক মো. সামসুল আরেফিনের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন বিভাগীয় কমিশনার মো. রুহুল আমিন, চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি মোহা. শফিকুল ইসলাম ও পুলিশ সুপার নূর এ আলম মীনা, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চট্টগ্রাম জেলা কমান্ডার সাহাব উদ্দিন ও নগর কমান্ডার মোজাফফর আহমেদ।

দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে বেজার কর্মকাণ্ড তুলে ধরে তিনি বলেন, কর্ণফুলীর তলদেশ দিয়ে নির্মাণ হতে যাচ্ছে টানেল, কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মেরিন ড্রাইভ, মহেশখালী মাতারবাড়ি বিদ্যুৎকেন্দ্রসহ অবকাঠামোগত উন্নয়ন। এর ফলে এ অঞ্চলে সার্বিক অর্থনীতির চিত্র বদলে যাবে। বাণিজ্যিক রাজধানী চট্টগ্রামে বন্দর আছে, বিমানবন্দর আছে। সেজন্য সবচেয়ে বড় অর্থনৈতিক অঞ্চলটি চট্টগ্রামের মিরসরাইতে হবে। এছাড়া আনোয়ারায় ৮০০ একর এলাকা নিয়ে হচ্ছে অপর একটি অর্থনৈতিক অঞ্চল। আনোয়ারার এ অঞ্চলে দুই বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করবে চীন। এতে ১ লাখ লোকের কর্মসংস্থান হবে। সব মিলিয়ে চট্টগ্রামই হবে বিনিয়োগের কেন্দ্র।

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের প্রতি ব্যবসা-বাণিজ্য সম্প্রসারণে সহায়ক ভূমিকা পালনের আহ্বান জানিয়ে বেজার চেয়ারম্যান (সচিব) পবন চৌধুরী বলেন, ‘ব্যবসা-বাণিজ্যের পরিবেশ ভালো হলে দেশ এগিয়ে যাবে। এর জন্য আমাদের সচেতন হতে হবে। কেননা অনেক সরকারি অফিস আছে যেখানে সেবাগ্রহীতারা হয়রানির শিকার হন। সাত দিনের কাজ ১৫ দিন, ১৫ দিনের কাজ ছয় মাসে সম্পন্ন হয়। বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে এক বছর লাগে। এটা বিশ্বব্যাংকের স্টাডি। অধিকাংশ সার্ভিস দিতে দেরি হচ্ছে। সেবা পেতে এসব বিড়ম্বনার কারণে ভারতসহ বিভিন্ন দেশের তুলনায় এখানে বিনিয়োগ কম হচ্ছে।’

জেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, চট্টগ্রারে মেলায় ৯৫টি সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের ১০৭টি স্টল অংশ নেয়। চট্টগ্রাম নগরের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামের প্রশিক্ষণ মাঠে তিন দিনব্যাপী এ মেলায় সরকারি ও আধাসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রায় ১০৭ স্টল তাদের নিজ নিজ কর্মকাণ্ড ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা তুলে ধরবে। এ উপলক্ষে গতকাল সোমবার নগরীর সার্কিট হাউস থেকে একটি শোভাযাত্রা বের হয়। শোভাযাত্রাটি মেলা প্রাঙ্গণ নগরীর এমএ আজিজ স্টেডিয়ামের অনুশীলন মাঠে এসে শেষ হয়। এরপর সকাল সাড়ে ১০টায় মেলার উদ্বোধন করেন পবন চৌধুরী।

রাজশাহী: রাজশাহীতে শুরু হয়েছে তিনদিনের উন্নয়ন মেলা। সরকারের অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়ন এবং এসডিজি অর্জন সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরা হয়েছে এ মেলায়। গতকাল সোমবার সকালে রাজশাহী কলেজ মাঠে জেলা প্রশাসক কাজী আশরাফ উদ্দিনের সভাপতিত্বে মেলার উদ্বোধন করেন সদর আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন, বেগম আকতার জাহান, রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষ হবিবুর রহমান ও পুলিশ সুপার মোয়াজ্জেম হোসেন ভুইয়া।

পাবনা: সরকারের ভবিষ্যৎ কর্মপরিকল্পনা, এমডিজি অর্জনে সফলতা ও এসডিজি বাস্তবায়নে জনগণকে উদ্বুদ্ধকরণসহ উন্নয়নমূলক কার্যক্রম প্রান্তিক পর্যায়ে তুলে ধরার লক্ষ্যে পাবনায় শুরু হয়েছে তিন দিনব্যাপী উন্নয়ন মেলা।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার জিহাদুল কবির, সিভিল সার্জন ডা. তাহাজ্জেল হোসেন, এডওয়ার্ড কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. হুমায়ুন কবির মজুমদার, পাবনা প্রেসক্লাবের সভাপতি অধ্যাপক শিবজিৎ নাগ, জেলা সংবাদপত্র পরিষদের সভাপতি আবদুল মতীন খান, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি চন্দন কুমার চক্রবর্তী প্রমুখ।

ময়মনসিংহ: উন্নয়নের গণতন্ত্র, শেখ হাসিনার মূলমন্ত্র এই প্রতিপাদ্য নিয়ে সারা দেশের মতো ময়মনসিংহেও গতকাল সোমবার থেকে উন্নয়ন মেলা শুরু হয়েছে। এ উপলক্ষে সকালে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়। জেলা প্রশাসন আয়োজিত শোভাযাত্রাটির উদ্বোধন করেন ভূমি মন্ত্রণালয়ের সচিব মেজবাউল হক। শোভাযাত্রাটি নগরীর টাউন হল প্রাঙ্গণ থেকে বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে জিমনেশিয়াম প্রাঙ্গণে গিয়ে শেষ হয়। শোভাযাত্রায় ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার জিএম সালেহ উদ্দিন, রেঞ্জ ডিআইজি চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন, জেলা প্রশাসক খলিলুর রহমান, জেলা পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম, ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল প্রমুখ।

সিরাজগঞ্জ: সিরাজগঞ্জে তিন দিনব্যাপী উন্নয়ন মেলার উদ্বোধন করলেন সিরাজগঞ্জ-২ (সদর ও কামারখন্দ) আসনের সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডা. হাবিবে মিল্লাত মুন্না। গতকাল সোমবার শহরের কালেক্টরেট স্কুল অ্যান্ড কলেজ মাঠে পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে মেলার উদ্বোধন করা হয়। এর আগে সকাল ১০টায় উন্নয়ন মেলা সফল করতে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

উন্নয়ন মেলার উদ্বোধনের আগে জেলা প্রশাসক কামরুন নাহার সিদ্দিকার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ডা. হাবিবে মিল্লাত মুন্না এমপি। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সিরাজগঞ্জ-পাবনা সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য সেলিনা বেগম স্বপ্না, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মুহাম্মদ কামরুল হাসান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু ইউসুফ, সিরাজগঞ্জ চেম্বার অব কমার্সের প্রেসিডেন্ট আবু ইউসুফ সূর্য, পৌর মেয়র সৈয়দ আবদুর রউফ মুক্তা ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান রিয়াজ উদ্দিন।