বাণিজ্য সংবাদ শিল্প-বাণিজ্য

সিইপিজেডে যুক্ত হচ্ছে ডেটা সংযোগকারী কেব্ল শিল্প

মোহাম্মদ আলী, চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকায় (সিইপিজেড) যুক্ত হচ্ছে আরও একটি বেসরকারি বিনিয়োগ। চীন ও বাংলাদেশের যৌথ মালিকানাধীন ‘মেসার্স শিপ-স্মার্ট ডেটা টেকনোলজি (বাংলাদেশ) কোম্পানি লিমিটেড’ নামের উচ্চপ্রযুক্তির কোম্পানিটি ডেটা সংযোগকারী কেব্ল উৎপাদনকারী শিল্প স্থাপন করবে। এ শিল্প স্থাপনের মাধ্যমে ইপিজেডের পণ্যতালিকায় ও দেশের রপ্তানি খাতে সংযোজিত হতে যাচ্ছে নতুন পণ্য।

এরই মধ্যে কোম্পানিটি কাস্টমস ও বন্ড লাইসেন্সের জন্য আবেদন করেছে। লাইসেন্স পেলে যন্ত্রপাতি আমদানি, স্থাপন ও লোকবল নিয়োগ শুরু করবে কোম্পানিটি। প্রয়োজনীয় প্রক্রিয়া শেষে নতুন বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে কোম্পানিটির উৎপাদন কার্যক্রম শুরু হতে পারে।

এ বিষয়ে সম্প্রতি ঢাকায় বাংলাদেশ রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকা কর্তৃপক্ষ (বেপজা) ও মেসার্স শিপ-স্মার্ট ডেটা টেকনোলজি (বাংলাদেশ) কোম্পানি লিমিটেডের মধ্যে একটি লিজ চুক্তি সই হয়েছে। বেপজার সদস্য (বিনিয়োগ উন্নয়ন) জিল্লুর রহমান ও শিপ-স্মার্ট ডেটা টেকনোলজি (বাংলাদেশ) কোম্পানি লিমিটেডের পরিচালক জংগুই জাঙ্ক নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে সই করেন।

বেপজার মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) নাজমা বিনতে আলমগীর জানান, এইচডিএমআই কেব্ল ও ল্যান কেব্ল উৎপাদনে সিইপিজেডে তিন মিলিয়ন বা ৩০ লাখ ডলার বিনিয়োগ করবে মেসার্স শিপ-স্মার্ট ডেটা টেকনোলজি (বাংলাদেশ) কোম্পানি।

এর মধ্যে চীনের বিনিয়োগ ৫১ শতাংশ এবং বাংলাদেশি বিনিয়োগ ৪৯ শতাংশ। মেশিনারিজ ও ইক্যুইমেন্ট আমদানি এবং স্থাপনে কোম্পানিটির ব্যয় হবে ছয় লাখ ডলার। এ কারখানা বছরে ১৪ মিলিয়ন এইচডিএমআই কেব্ল ও ল্যান কেব্ল উৎপাদন করবে। এ শিল্পপ্রতিষ্ঠানে তিন বিদেশি ছাড়াও ৭৪০ বাংলাদেশি নাগরিকের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে।

এ বিষয়ে চট্টগ্রাম ইপিজেডের মহাব্যবস্থাপক মো. খুরশিদ আলম শেয়ার বিজকে বলেন, ‘মেসার্স শিপ-স্মার্ট ডেটা টেকনোলজি (বাংলাদেশ) কোম্পানির কর্মকর্তারা সিইপিজেডে এসে ঘুরে গেছেন। তারা কাস্টমস ও বন্ড লাইসেন্সের জন্য কাগজপত্র জমা দিয়েছেন। লাইসেন্স অনুমোদিত হলে কোম্পানিটি মেশিন আমদানি ও জনবল নিয়োগ শুরু করবে। প্রক্রিয়া শেষে আগামী ফেব্রুয়ারিতে কোম্পানিটি উৎপাদনে যেতে পারে। এ শিল্প কোম্পানিতে কিছু লোকের কর্মসংস্থান হবে। পাশাপাশি ১২-১৩টি স্টেকহোল্ডার, সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট প্রতিষ্ঠান, ভ্যাট, পরিবহন সেক্টর ও শ্রমিকের কর্মসংস্থানসহ মাল্টি ডাইমেনশন উপার্জনের সুযোগ সৃষ্টি হবে, যা দেশের অর্থনীতিতে অবদান রাখবে।’

উল্লেখ্য, চট্টগ্রাম মহানগরীর দক্ষিণ হালিশহর এলাকায় ১৯৮৩ সালে প্রতিষ্ঠিত বর্তমানে সিইপিজেডে উৎপাদনরত ১৬৮টি প্রতিষ্ঠানে প্রায় দুই লাখের অধিক শ্রমিক কর্মরত। এর মধ্যে প্রায় ৬৫ শতাংশই নারী শ্রমিক।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..