প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সিএনজির মূল্যবৃদ্ধি : বাস ও অটোরিকশার ভাড়া বৃদ্ধির প্রক্রিয়া শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক: মার্চ ও জুনে দুই ধাপে বাড়ছে সব ধরনের গ্যাসের দাম। এর মধ্যে গ্রাহক পর্যায়ে সিএনজি ফিড গ্যাসের দাম বাড়ানো হয়েছে প্রায় ১৪ শতাংশ। আর এ সুযোগে দেড় বছরের মাথায় রাজধানী ঢাকা ও চট্টগ্রামে ভাড়া বাড়ানোর প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছে পরিবহন মালিক সমিতিগুলো।

ভাড়া বৃদ্ধিতে এরই মধ্যে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) সঙ্গে যোগাযোগ করেছে ঢাকা সিএনজি অটোরিকশা মালিকা সমিতি। বাস ভাড়া বাড়ানোর প্রস্তাব সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছে ঢাকা সড়ক পরিবহন সমিতি।

গত বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি) গ্যাসের দাম বৃদ্ধির ঘোষণা করে। এতে প্রতি ঘনমিটার সিএনজি ফিড গ্যাস মার্চে ৩৮ ও জুনে ৪০ টাকা দরে বিক্রি হবে। বর্তমানে এ দর ৩৫ টাকা। এ হিসাবে গ্রাহক পর্যায়ে সিএনজি ফিড গ্যাসের দাম বাড়ছে ১৪ শতাংশের বেশি।

এর পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা ও চট্টগ্রামে বাসের ভাড়া বাড়ানোর জন্য মন্ত্রণালয়ে চিঠি দেওয়া হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, দেড় বছর আগে রাজধানী শহর ঢাকা ও আশপাশের পাঁচ জেলা এবং চট্টগ্রামে বাস ভাড়া বাড়ানো হয়। এর মধ্যে ভাড়া নির্ধারণে বিভিন্ন খাতের ব্যয় বেড়ে গেছে। এখন আবার গ্যাসের মূল্য বাড়ানো হচ্ছে। এতে নতুন করে ভাড়া পুনর্বিবেচনা প্রয়োজন।

জানতে চাইলে ঢাকা সড়ক পরিবহন সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহ শেয়ার বিজকে বলেন, ২০১৫ সালের অক্টোবরে ঢাকা ও চট্টগ্রামের বাস ভাড়া বাড়ানো হয়েছিল। এরপর গত দেড় বছরে সব ধরনের যন্ত্রাংশ ও অন্যান্য খরচ বেড়ে গেছে। এর সঙ্গে যুক্ত হলো সিএনজির দাম বৃদ্ধি। এর পরিপ্রেক্ষিতে নতুন করে ব্যয় বিশ্লেষণ করে বাস ভাড়া পুনর্নির্ধারণের প্রস্তাব করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে গ্যাসের দাম বাড়ানোর পর ঢাকা ও চট্টগ্রামে বাস ভাড়া বাড়ানো হয়। সে সময় কিলোমিটারপ্রতি ভাড়া ১০ পয়সা বাড়ানো হয়। এতে কিলোমিটারপ্রতি বাস ভাড়া ১ টাকা ৭০ পয়সা ও মিনিবাসের ভাড়া কিলোমিটারপ্রতি ১ টাকা ৬০ পয়সা নির্ধারণ করা হয়।

এদিকে অটোরিকশায় সে সময় ভাড়া নির্ধারণ করা হয় প্রথম দুই কিলোমিটার ৪০ টাকা। এটাই ছিল সর্বনি¤œ ভাড়া। আর পরবর্তী প্রতি কিলোমিটার ভাড়া হবে ১২ টাকা ও ওয়েটিং চার্জ (যানজট বা অন্য কোনো কারণে থামলে) মিনিটপ্রতি ২ টাকা। যদিও মিটারের ভাড়া মানছে না কোনো অটোরিকশাই।

তবুও গ্যাসের দাম বৃদ্ধির অজুহাতে আবারও অটোরিকশা ভাড়া বাড়ানোর জন্য বিআরটিএতে যোগাযোগ করেছে মালিক সমিতি। এক্ষেত্রে ২০১৫ সালের ব্যয় বিশ্লেষণ কমিটির সুপারিশ বিবেচনার কথা বলা হয়েছে।

জানতে চাইলে ঢাকা অটোরিকশা মালিক সমিতির সভাপতি বরকত উল্লাহ ভুলু বলেন, অটোরিকশার ভাড়া বাড়ানোর প্রস্তাব আগেই দেওয়া আছে। এছাড়া গ্যাসের দাম বাড়ানোর পর ভাড়া বাড়ানোর জন্য ২০১৫ সালের ব্যয় বিশ্লেষণ কমিটি সুপারিশ করেছিল। এর ভিত্তিতে স্বয়ংক্রিয়ভাবেই ভাড়া বাড়ানোর কথা। তবে সেগুলো বিবেচনায় না নেওয়া হলে ১ মার্চের পর নতুন করে ভাড়া বাড়ানোর লিখিত প্রস্তাব দেওয়া হবে।

সিএনজির দাম বৃদ্ধিতেই বাস ও অটোরিকশার ভাড়া বাড়ানোর সম্পূর্ণ অযৌক্তিক বলে মনে করেন যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরী। তিনি বলেন, নতুন বছরের শুরু থেকে এমনিতেই দেশব্যাপী অতিরিক্ত ভাড়া আদায় চলছে। ঢাকা শহরে বিভিন্ন বাস সার্ভিসকে সিটিংয়ে রূপ দিয়ে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় শুরু হয়েছে দুই-তিন মাস আগেই। আর সর্বশেষ ভাড়া বাড়ানোর পর অটোরিকশাগুলোও মিটার মানেনি। তাই এ ভাড়া বৃদ্ধির উদ্যোগ বা প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ অযৌক্তিক।