স্পোর্টস

সিপিএল চ্যাম্পিয়ন সাকিবের বারবাডোজ

ক্রীড়া ডেস্ক : ব্যাট-বল হাতে নিজেকে খুব একটা মেলে ধরতে পারেননি সাকিব আল হাসান। তবে তার এমন পারফরম্যান্স খুব একটা প্রভাব পড়েনি বারবাডোজ ট্রাইডেন্টসে। টুর্নামেন্টজুড়ে দাপুটে খেলা গায়ানা আমাজন ওয়ারিয়র্সকে ঠিকই হারিয়ে ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (সিপিএল) এবারের আসরে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে জেসন হোল্ডারের দল।

ত্রিনিদাদের ব্রায়ান লারা স্টেডিয়ামে ২৭ রানে জেতে বারবাডোজ। আগে ব্যাট করে ৬ উইকেটে ১৭১ রান তুলেছিল দলটি। রান তাড়ায় ২০ ওভার খেলে গায়েনা আমাজন ওয়ারিয়র্স থামে ৯ উইকেটে ১৪৪ রান তুলে। ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (সিপিএল) এর আগে ২০১৬ সালে জ্যামাইকা তালওয়াসের হয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন সাকিব। এবার দেখা পেলেন দ্বিতীয় শিরোপার।

বারবাডোজের হয়ে এমনিতেই তিনে ব্যাট করছিলেন সাকিব। কিন্তু গত পরশু এ বাঁহাতি নামেন পাঁচে। কিন্তু শুরু থেকেই ছিলেন ধীরে। যে কারণে ১৫ বলে ১৫ রান তুলে ১৫তম ওভারে জোনাথন কার্টারের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝিতে রান আউট হয়ে ফেরেন তিনি। দুই রান নিতে গিয়ে পিচের প্রায় অর্ধেকটা পথ পেরিয়ে গিয়েছিলেন সাকিব। কার্টার তাকে ফেরত পাঠানোয় রান আউট হওয়ার ক্ষোভ নিয়ে মাঠ ছেড়েছেন বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়ক। শেষ পর্যন্ত কার্টারের ২৭ বলে ৫০ রানের অপরাজিত ইনিংসেই লড়াকু সংগ্রহ পেয়ে যায় বারবাডোজ।

প্রতিপক্ষের বিপক্ষে বল হাতে নেওয়ার সুযোগ সাকিব পান পঞ্চম ওভারে। সে সময় তিনি দেন ৫ রান। এরপর ফের ১৭তম ওভারে হাত ঘোরানোর সুযোগ পান তিনি। জয় থেকে গায়ানা তখন ২৪ বলে ৬৭ রানের দূরত্বে। হাতে ৪ উইকেট। ওই ওভারে ১৩ রান দেন সাকিব। ২ ওভারে ১৮ রান দিয়ে কোনো উইকেট পাননি তিনি। গায়ানার ইনিংসে সর্বোচ্চ ৪৩ রান ব্র্যান্ডন কিংয়ের। ২৪ রানে ৪ উইকেট নিয়ে বারবাডোজের সেরা বোলার রেমন রিফার।

সর্বশেষ..