প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সিরাজগঞ্জে ওয়াপদা বাঁধ বেদখল বেড়েই চলেছে

 

শেয়ার বিজ ডেস্ক: সিরাজগঞ্জের এনায়েতপুরে দখলদাররা বনায়নের গাছ কেটে ওয়াপদা বাঁধ দখল করে তৈরি করছে নতুন নতুন স্থাপনা। তাঁত শিল্পসমৃদ্ধ থানার ব্যস্ততম বেতিল, কেজির মোড়, এনায়েতপুর হাট, গোপীনাথপুর, রূপসী, সৈয়দপুর ও পাঁচিল বাজার এলাকার ওয়াপদা বাঁধের জায়গা দখল করে গড়ে উঠেছে ঘরবাড়ি, দোকানপাট ও কিন্ডারগার্টেন স্কুলসহ ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান। খবর কালের কণ্ঠ।

জানা গেছে, সিরাজগঞ্জের সয়দাবাদ-এনায়েতপুর-পাঁচিল সড়কে পাঁচ-সাত বছর পরপর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। উচ্ছেদের কয়েক সপ্তাহ যেতে না যেতেই আবারও দখলে পরিণত হয় বাঁধের দুই পাশ। বিশেষ করে বেতিল থেকে এনায়েতপুর কেজির মোড়, এনায়েতপুর হাট, গোপীনাথপুর বাজার, রূপসী বাজার, সৈয়দপুর বাজার এবং পাঁচিল বাজারের দুই পাশে এখন সহস াধিক দখলদার দোকানপাট, বসতভিটা করে দখলে নিয়েছে অধিকাংশ জায়গা। বিশেষ করে মণ্ডলপাড়া থেকে এনায়েতপুর হাট পর্যন্ত এলাকায় বনায়নের গাছ কেটে ও বাঁধের জায়গা দখল করে নির্মাণ করা হয়েছে দোকানপাট, ঘরবাড়ি। স্থানীয় সামাজিক বনায়ন কর্মসূচির সদস্য জহুরুল ইসলাম ও আইয়ুব আলী শেখ জানান, বনায়নের গাছ কেটে জায়গা দখলকারীদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দিলেও পুলিশ কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না। দখলকারীরা বলছে, টাকা দিয়ে থানার বড় কর্তার অনুমতি নিয়েই দোকান তুলেছে। তবে টাকা নিয়ে জায়গা দখলে পুলিশি সহায়তার বিষয়ে নিজেদের সম্পৃক্ততার কথা অস্বীকার করে এনায়েতপুর থানার ওসি রাশেদুল ইসলাম বিশ্বাস জানান, আমরা পর্যায়ক্রমে ব্যবস্থা নিচ্ছি।

উচ্ছেদ প্রসঙ্গে সিরাজগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী সৈয়দ হাসান ইমাম জানান, আমরা এ সড়কের বেলকুচির মুকন্দগাঁতী এলাকা দখলমুক্ত করেছি। বন বিভাগের সঙ্গে আলাপ করে পর্যায়ক্রমে এনায়েতপুরের বাকি এলাকা থেকেও দখলদারদের হটিয়ে দেওয়া হবে।