প্রচ্ছদ প্রথম পাতা বাজার বিশ্লেষণ

সিরামিক ও আবাসন ছাড়া অন্যান্য খাতে দর সংশোধন

রুবাইয়াত রিক্তা: টানা চার কার্যদিবস সূচকের উত্থানের পর গতকাল পুঁজিবাজারে সংশোধন হয়েছে। তবে প্রধান সূচক মাত্র চার পয়েন্ট পতন হয়। বৃহৎ প্রায় সব খাতে অধিকাংশ কোম্পানি দরপতনে ছিল। এক পঞ্চমাংশ লেনদেন হয়ে শীর্ষে উঠে আসে জ্বালানি ও বিদ্যুৎ খাত। তবে বিক্রির চাপ বেশি থাকায় এ খাতের অধিকাংশ কোম্পানির দরপতন হয়। লেনদেনে এককভাবে নেতৃত্ব দেয় এ খাতের ইউনাইটেড পাওয়ার। অন্যদিকে ছোট খাতগুলোর মধ্যে সিরামিক এবং সেবা ও আবাসন শতভাগ ইতিবাচক ছিল। এ দুটি খাত ছাড়া প্রায় সব খাতেই ছিল দরপতনের আধিক্য।
২০ শতাংশ লেনদেন হয়ে শীর্ষে থাকা জ্বালানি ও বিদ্যুৎ খাতে প্রায় ১০৫ কোটি টাকার শেয়ার বেচাকেনা হয়। প্রায় ৬৮ কোটি টাকা লেনদেন হয়ে শীর্ষে অবস্থান করে ইউনাইটেড পাওয়ার। শেয়ারটির দর ৯ টাকা ৪০ পয়সা বেড়েছে। কোম্পানিটি সর্বশেষ হিসাববছরে ১৩০ শতাংশ নগদ ও ১০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করে। আগামী ৮ সেপ্টেম্বর কোম্পানিটির রেকর্ড ডেট। লভ্যাংশ লাভের আশায় অনেকে ঝুঁকছেন এ কোম্পানিতে। যার কারণে গত কয়েকদিন ধরে লেনদেনের শীর্ষ পর্যায়ে অবস্থান করছে কোম্পানিটি। খুলনা পাওয়ারের ১১ কোটি টাকা লেনদেন হয়, দর কমেছে এক টাকা ২০ পয়সা। ওষুধ ও রসায়ন খাতে লেনদেন হয় ১৮ শতাংশ। এ খাতে ৫০ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। প্রায় সাড়ে ২৩ কোটি টাকা লেনদেন হয় ওরিয়ন ইনফিউশনের। দর বেড়েছে ৭০ পয়সা। জেএসআই সিরিঞ্জের প্রায় ১৮ কোটি টাকা লেনদেন হয়, দর বেড়েছে সাত টাকা ৭০ পয়সা। বীকন ফার্মার সাড়ে ১১ কোটি টাকা লেনদেন হয়, দর কমেছে ৭০ পয়সা। সিলকো ফার্মার সাড়ে ৯ কোটি টাকা লেনদেনের পাশাপাশি দর বেড়েছে ৬০ পয়সা। প্রকৌশল খাতে ১২ শতাংশ লেনদেন হয়। এ খাতে ৪৮ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। সোয়া ৯ শতাংশ বেড়ে ইয়াকিন পলিমার, সাড়ে আট শতাংশ বেড়ে অ্যাপোলো ইস্পাত, প্রায় ছয় শতাংশ বেড়ে আনোয়ার গ্যালভানাইজিং দর বৃদ্ধির শীর্ষ দশের তালিকায় উঠে আসে। বস্ত্র খাতে লেনদেন হয় ১১ শতাংশ। এ খাতে ৪৯ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। উৎপাদন বন্ধ থাকা আলহাজ্ব টেক্সটাইলের সাড়ে সাত কোটি টাকা লেনদেন হয়, দর বেড়েছে দুই টাকা ১০ পয়সা। আলহাজ্ব টেক্সটাইলের এ অব্যাহত দর বৃদ্ধিতে কোনো কারণ দর্শাতে পারেনি কোম্পানি কর্তৃপক্ষ। কারণ ছাড়াই লোকসানি কোম্পানিটির দর বৃদ্ধির পেছনে কারসাজি চলছে বলে বিনিয়োগকারীদের ধারণা। এছাড়া প্রায় সাড়ে ৯ শতাংশ বেড়ে জেনারেশন নেক্সট, ৯ শতাংশ বেড়ে ফ্যামিলি টেক্সটাইল, পৌনে ছয় শতাংশ বেড়ে মোজাফফর হোসেন স্পিনিং মিলস দর বৃদ্ধির শীর্ষ দশে উঠে আসে। বিবিধ খাতের খান ব্রাদার্স পিপি উভেন ব্যাগ ইন্ডাস্ট্রিজ দর বৃদ্ধির শীর্ষ দশে অবস্থান করে। সিরামিক খাতের আরএকে সিরামিকের দর ১০ শতাংশ বেড়ে শীর্ষ উঠে আসে। এছাড়া স্টান্ডার্ড সিরামিকের দর প্রায় ৯ শতাংশ বেড়েছে। টেলিযোগাযোগ খাত শতভাগ নেতিবাচক ছিল।

সর্বশেষ..