সিরিয়ায় ইসরাইলি বিমান হামলা নিহত ২, আহত ৭

শেয়ার বিজ ডেস্ক: সিরিয়ার মধ্যাঞ্চলে বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরাইল। গতকাল বুধবার রাতে সিরিয়ার হোমস শহরে এ হামলা চালায় ইসরাইলি বিমানবাহিনী। এতে সিরিয়ার দুই বেসামরিক নাগরিক নিহত ও সাতজন আহত হয়েছেন। সিরিয়ার বিমান প্রতিরক্ষা বাহিনী হোমস শহরের ওপরে চালানো ওই হামলা আটকানোর চেষ্টা করেছে। খবর: রয়টার্স, আল-জাজিরা।

সিরিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম সানা জানিয়েছে, ইসরাইলের বিমান হামলায় এখন পর্যন্ত দুই বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছেন। আহত সাতজনের মধ্যে একজনের অবস্থা গুরুতর। নাম প্রকাশ না করার শর্তে সিরিয়ার এক সামরিক কর্মকর্তা জানান, প্রতিবেশী দেশ লেবাননের আকাশসীমার ওপর দিয়ে উড়ে যাওয়ার সময় ইসরাইলি যুদ্ধ বিমান থেকে ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া হয়।

সিরিয়ায় গত কয়েক বছরে শত শত হামলা চালিয়েছে ইসরাইল। সিরিয়ায় পরিচালিত এসব হামলার কথা কখনোই ইসরাইল স্বীকার করে না। সম্প্রতি সিরিয়ায় ধারাবাহিকভাবে হামলা চালাচ্ছে ইসরাইল।

গত সপ্তাহে ইসরাইল সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কের দক্ষিণে হামলা চালায়। ওই হামলা দখলকৃত গোলান মালভূমি থেকে পরিচালিত হয়। একটি স্থাপনায় হামলা হলেও তখন কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। চলতি মাসের শুরুতে হোমসের পূর্বাঞ্চলীয় গ্রামাঞ্চল ও উপকূলীয় শহর তারতুসের কাছে ইসরাইল বিমান হামলা চালায়। এতে সিরিয়ার দুই সেনা আহত হয়।

সিরিয়ার অজ্ঞাত এক সামরিক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, স্থানীয় সময় রাত ১টা ২৬ মিনিটে ইসরাইলি যুদ্ধবিমান থেকে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করা হয়। ইসরাইলি যুদ্ধবিমানগুলো এ সময় পার্শ্ববর্তী দেশ লেবাননের আকাশসীমায় ছিল।

ইসরাইল অবশ্য তাৎক্ষণিকভাবে এ হামলার বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেনি। অবশ্য ইহুদি এ দেশটি বরাবরই এ ধরনের হামলার বিষয়ে প্রকাশ্যে কোনো মন্তব্য করে না। এছাড়া গত কয়েক বছরে সিরিয়ায় এ ধরনের শত শত হামলা চালিয়েছে ইসরাইল।

এর আগে গত ৩ নভেম্বর সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কের উপকণ্ঠে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় ইসরাইল। যুদ্ধ বিমানের মাধ্যমে ওই এলাকার একাধিক লক্ষ্যবস্তুতে সেদিন বেশ কয়েকটি ক্ষেপণাস্ত্রের মাধ্যমে ওই হামলা চালানো হয়। এছাড়া গত ১৪ অক্টোবর সিরিয়ার মধ্যাঞ্চলে ইরানি যোদ্ধাদের বিভিন্ন অবস্থানে হামলা চালায় ইসরাইল। ওই হামলায় ৯ ইরানি যোদ্ধা নিহত হয়। নিহত ওই যোদ্ধারা সিরিয়ার সরকারি বাহিনীর পক্ষে দেশটিতে লড়াইয়ে অংশ নিয়েছিলেন। ২০১১ সালে সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদবিরোধী এক বিক্ষোভের বিরুদ্ধে প্রাণঘাতী ব্যবস্থার নেয়ার মধ্য দিয়ে দেশটিতে যে সংঘাতের সূচনা হয়; সেটিই পরে গৃহযুদ্ধে রূপ নেয়, যা এখনও চলছে। গত এক দশকের এ সংঘাতে কমপক্ষে তিন লাখ ৮০ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে এবং দেশটির অর্ধেক জনগোষ্ঠীই বাড়িঘর ছেড়ে পালিয়েছে। বিভিন্ন দেশে শরণার্থী হিসেবে আশ্রয় নিয়েছে সিরিয়ার অন্তত ৬০ লাখ মানুষ।


সর্বশেষ..