বিশ্ব সংবাদ

সিরিয়ায় তুর্কি হামলায় এক লাখ ৩০ হাজার বাস্তুচ্যুত

জাতিসংঘের প্রতিবেদন

শেয়ার বিজ ডেস্ক : সিরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলের কুর্দি নেতৃত্বাধীন এলাকায় তুরস্কের হামলায় ওই অঞ্চলের এক লাখ ৩০ হাজারেরও বেশি বাসিন্দা বাস্তুচ্যুত হয়েছে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ। আন্তর্জাতিক মহলের তীব্র বিরোধিতা সত্ত্বেও তুরস্কের বাহিনী টানা পঞ্চম দিনের মতো সিরিয়ার কুর্দি গেরিলাদের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত রেখেছে। এদিকে সামরিক এ অভিযান চালানোয় তুরস্কের কাছে অস্ত্র বিক্রি বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফ্রান্স ও জার্মানি। খবর: বিবিসি ও রয়টার্স।

সিরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলের কুর্দি নেতৃত্বাধীন সিরিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোর্সের (এসডিএফ) নিয়ন্ত্রিত অংশে গত বুধবার থেকে তুমুল গোলাবর্ষণ শুরু করেছে তুরস্ক। ‘অপারেশন পিস স্প্রিং’ নামে তাদের এ অভিযান চলাকালে দু’পক্ষের লড়াইয়ে সীমান্তের উভয় পাশে এরই মধ্যে শিশুসহ অর্ধশতাধিক বেসামরিক মানুষ নিহত হয়েছে। কুর্দি গেরিলাদের ‘সন্ত্রাসী’ হিসেবে চিহ্নিত করা আঙ্কারা বলছে, তারা কুর্দিদের সীমান্ত থেকে তাড়িয়ে দিয়ে সিরিয়ার ভেতর ৩০ কিলোমিটার এলাকা পর্যন্ত একটি ‘নিরাপদ অঞ্চল’ প্রতিষ্ঠা করে সেখানে তুরস্কে থাকা ৩০ লাখেরও বেশি সিরীয় শরণার্থীকে পুনর্বাসন করবে। আন্তর্জাতিক মহলের তীব্র বিরোধিতা সত্ত্বেও তুরস্কের বাহিনী টানা পঞ্চম দিনের মতো সিরিয়ার কুর্দি গেরিলাদের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

তুরস্কের সামরিক বাহিনী ও কুর্দি গেরিলাদের লড়াইয়ের ফলে সীমান্ত শহর তেল আবিয়াদ ও রাস আল আইন-সংশ্লিষ্ট গ্রামগুলোর এক লাখ ৩০ হাজারেরও বেশি সিরিয়ার বাসিন্দা বাস্তুচ্যুত হয়েছে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘের অফিস ফর কো-অর্ডিনেশন অব হিউম্যানিটারিয়ান অ্যাফেয়ার্স (ওসিএইচএ)।

ফ্রান্সের প্রতিরক্ষা ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়, পূর্বপরিকল্পিতভাবে অস্ত্র বিক্রি স্থগিত রাখছে তারা। ফ্রান্স জানায়, তুরস্কে এমন যুদ্ধ সরঞ্জাম তুরস্ককে তারা বিক্রি করবে না, যা সিরিয়া অভিযানে ব্যবহার করা হতে পারে। এর কয়েক ঘণ্টা আগেই এমন ঘোষণা দিয়েছিল জার্মানি।

সর্বশেষ..