বাণিজ্য সংবাদ শিল্প-বাণিজ্য

সিসিকের ৭৪৩ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা

প্রতিনিধি, সিলেট: নতুন কোনো করারোপ ছাড়াই সিলেট সিটি করপোরেশনের ২০২০-২১ অর্থবছরে ৭৪৩ কোটি ৫৫ লাখ ৯৩ হাজার টাকার বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। গত সোমবার  ভার্চুয়াল এক সংবাদ সম্মেলনে এ বাজেট ঘোষণা করেন মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। এ সময় মেয়র বলেন, করোনা মহামারির ধাক্কা সামলে উঠে এবারের বাজেট বাস্তবায়ন অনেক কঠিন, তবে অসম্ভব নয়। এই বাজেট বাস্তবায়নে বিগত দিনের মতো সরকার ও দলমত নির্বিশেষে সিলেটের সর্বস্তরের জনগণের সহযোগিতা পাব, এ বিশ্বাস আমার আছে।

ঘোষিত বাজেটে প্রতিবারের মতো এবারও আয় ও ব্যয় সমান দেখানো হয়েছে। এবারের বাজেটে উল্লেখযোগ্য আয়ের খাতগুলো হলোÑহোল্ডিং ট্যাক্স থেকে ৪৪ কোটি ২০ লাখ ৬৬ হাজার টাকা, স্থাবর সম্পত্তি হস্তান্তরের ওপর কর আট কোটি ৬০ লাখ টাকা, ইমারত নির্মাণ ও পুনর্নির্মাণের ওপর কর দুই কোটি টাকা, পেশা ব্যবসার ওপর কর ছয় কোটি ৫০ লাখ টাকা, বিজ্ঞাপনের ওপর কর এক কোট ২৫ লাখ টাকা, বিভিন্ন মার্কেটের দোকান গ্রহীতার নাম পরিবর্তনের ফি ও নবায়ন ফি বাবদ ২৫ লাখ টাকা, ঠিকাদারি তালিকাভুক্তি ও নবায়ন ফিস বাবদ ৩০ লাখ টাকা, বাস টার্মিনাল ইজারা বাবদ আয় ৮০ লাখ টাকা, ট্রাক টার্মিনাল ইজারা বাবদ আয় ২৭ লাখ ৫০ হাজার টাকা, খেয়াঘাট ইজারা বাবদ ১৫ লাখ টাকা, সিটি করপোরেশনের সম্পত্তি ও দোকানভাড়া বাবদ এক কোটি টাকা, রাস্তা কাটার ক্ষতিপূরণ বাবদ আয় ১০ লাখ টাকা, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা খাতে আয় এক কোটি ২০ লাখ টাকা প্রভৃতি।

নগরবাসী নিয়মিত হোল্ডিং ট্যাক্সসহ অন্যান্য বকেয়া পাওনা পরিশোধ করলে সিটি করপোরেশনের নিজস্ব খাতে বছরে ৮২ কোটি ২২ লাখ ৫৬ হাজার টাকা আয় হবে আশাবাদ ব্যক্ত করে মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, এ বাজেটে রাজস্ব খাতে ব্যয় বরাদ্দ ধরা হয়েছে মোট ৭৯ কোটি ৭৫ লাখ টাকা।

এর মধ্যে সাধারণ সংস্থাপন খাতে ৩০ কোটি ৬৮ লাখ টাকা, শিক্ষা ব্যয় খাতে ছয় কোটি ১৮ লাখ টাকা, সামাজিক, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান, প্রতিবন্ধী ও মুক্তিযোদ্ধাদের অনুদান এবং সিটি এলাকাধীন বিভিন্ন মসজিদের ইমাম-মোয়াজ্জিনদের আর্থিক সহায়তা খাতে তিন কোটি ৩০ লাখ টাকা, স্বাস্থ্যসেবা ও পয়ঃপ্রণালী ব্যয় খাতে ১৩ কোটি ৮৯ লাখ টাকা, বিদ্যুৎ বিল পরিশোধসহ মোট ১২ কোটি ২৪ লাখ টাকা ব্যয় বরাদ্দ রাখা হয়েছে।

বাজেটে রাজস্ব খাত অর্থাৎ সিটি করপোরেশনের নিজস্ব তহবিল থেকে অবকাঠামো উন্নয়ন ব্যয় বাবদ মোট ২৮ কোটি পাঁচ লাখ টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে। এছাড়া সরকারি উন্নয়ন সহায়তা থোক বরাদ্দ বাবদ ১৫ কোটি টাকা, সরকারি বিশেষ উন্নয়ন প্রকল্প মঞ্জুরি খাতে ১০ কোটি টাকা, সরকারি অন্যান্য মঞ্জুরি বাবদ ১৫ কোটি ৬০ লাখ টাকা, সিলেট মহানগরীর অবকাঠামো নির্মাণ শীর্ষক প্রকল্প খাতে ১০৮ কোটি টাকা, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা আধুনিকায়নের জন্য আধুনিক যান-যন্ত্রপাতি ক্রয় ৪৫ কোটি ৪৫ লাখ টাকা, জলাবদ্ধতা নিরসন, বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ ও অবকাঠামো নির্মাণ শীর্ষক প্রকল্পে ৮০ কোটি টাকা এবং সিটি করপোরেশন এসফল্ট প্লান্ট স্থাপন ও বিভিন্ন উন্নয়ন কাজে জমি অধিগ্রহণ ও ক্রয় খাতে ৩০ কোটি টাকাসহ বিভিন্ন প্রকল্পে ব্যয় ধরা হয়েছে।

বাজেট তৈরিতে এবার সহযোগিতা করেছে অর্থও সংস্থাপন কমিটির সভাপতি কাউন্সিলর তাকবির ইসলাম পিন্টু ও সদস্য কাউন্সিলর রাশেদ আহমদ, কাউন্সিলর নাজনীন আকতার কনা, কাউন্সিলর এবিএম জিল্লুর রহমান উজ্জ্বল, কাউন্সিলর সোহেল আহমদ রিপন এবং সদস্য সচিব প্রধান হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা আনম মনছুফ প্রমুখ।

ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সিসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও যুগ্ম সচিব বিধায়ক রায় চৌধুরী, সচিব ফাহিমা ইয়াসমীন, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা বিজন কুমার সিংহ, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. জাহিদুল ইসলাম, নির্বাহী প্রকৌশলী আলী আকবরসহ অন্য কর্মকর্তারা।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..