শেষ পাতা

সুকুক বন্ডের অনুমোদন পেল বেক্সিমকো ইউনিয়ন ইন্স্যুরেন্সের আইপিও অনুমোদন

নিজস্ব প্রতিবেদক: ইউনিয়ন ইন্স্যুরেন্সের প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) অনুমোদন করেছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিস অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। ইউনিয়ন ইন্স্যুরেন্স প্রতিটি ১০ টাকা মূল্যে এক কোটি ৯৩ লাখ ৬০ হাজার ৯০৪টি শেয়ার ইস্যুর মাধ্যমে ১৯ কোটি ৩৬ লাখ ৯ হাজার ৪০ টাকা উত্তোলন করবে। উত্তোলিত অর্থ দিয়ে কোম্পানিটি ফিক্সড ডিপোজিট, পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ, ফ্লোর ক্রয় ও আইপিও খরচ খাতে ব্যয় করবে।

বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রতিষ্ঠানটির ২০২০ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর অনুযায়ী নিরিক্ষিত আর্থিক বিবরণী ছাড়া শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ১৬.০২ টাকা (সম্পদ পনঃমূল্যায়ন সহ) এবং শেয়ারপ্রতি মুনাফা হয়েছে (ইপিএস) ০.৯৩ টাকা। আইপিওতে কোম্পানিটি ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে নিয়োজিত রয়েছে সোনার বাংলা ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট।

এদিকে গতকাল কিছু শর্তসাপেক্ষে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বেক্সিমকো লিমিটেডের তিন হাজার কোটি টাকার পাঁচ বছরমেয়াদি সিকিউরড কনভার্টেবল অথবা রিডেম্বল গ্রিন সুকুক বন্ড অনুমোদনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএসইসি।

জানা গেছে, বেক্সিমকো লিমিটেডকে লেটার অব ইনটেন্ট পাওয়ার পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে সুকুকের প্রস্তাবিত ট্রাস্টির নিবন্ধন সনদ ও কমিশন অনুমোদিত ট্রাস্ট ডিডসহ চূড়ান্ত সাবস্ক্রিপশন এগ্রিমেন্ট জমা দেয়া স্বাপেক্ষে সম্মতিপত্র ইস্যু করা হবে।

প্রস্তাবিত গ্রিন সুকুকটি ২২.৫০ বিলিয়ন প্রাইভেট প্লেসমেন্ট (৭.৫০ বিলিয়ন বিদ্যমান শেয়ারহোল্ডারদের কাছ থেকে এবং ১৫ বিলিয়ন বিদ্যমান শেয়ারহোল্ডার ব্যতীত অন্য বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে) সুকুক ইস্যুর মাধ্যমে অর্থ উত্তোলন করা হয়।

বেক্সিমকো লিমিটেডের টেক্সটাইল ইউনিটের কার্যক্রম বর্ধিতকরণ এবং বেক্সিমকো দুটি সরকার অনুমোদিত সাবসিডিয়ারি নবায়নযোগ্য বিদ্যুৎ উৎপাদন প্রকল্পের (তিস্তা সোলার লিমিটেড ও করতোয়া সোলার লিমিটেড) বাস্তবায়নের পাশাপাশি পরিবেশ উন্নয়ন এবং সংরক্ষণ নিশ্চিত করবে।

এ সুকুকের প্রতি ইউনিটে অভিহিতমূল্য ১০০ টাকা। সুকুকটির ন্যূনতম সাবস্কিপশন পাঁচ হাজার টাকা, ন্যূনতম লট ৫০টি। সুকুকটির সর্বনিম্ন পিরিয়ড ডিস্ট্রিবিউশন রেট ৯ শতাংশ।

সুকুকটির ট্রাস্টি হিসেবে ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশ ও ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে যথাক্রমে সিটি ব্যাংক ক্যাপিটাল রিসোর্সেস ও অগ্রণী ইকুইটি অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট কাজ করছে।

একই সভায় বে-মেয়াদি মিউচুয়াল ফান্ড শান্তা ফিক্সড ইনকাম ফান্ড খসড়া প্রসপেক্টাস অনুমোদন দিয়েছে।

জানা গেছে, ফান্ডটির প্রাথমিক লক্ষ্যমাত্রা হচ্ছে ১০ কোটি টাকা। ফান্ডটির উদ্যোক্তা হিসেবে শান্তা অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড এক কোটি টাকা দেবে। বাকি ৯ কোটি টাকা সাধারণ বিনিয়োগকারীদের জন্য উম্মুক্ত থাকবে। ফান্ডটির ইউনিটপ্রতি অভিহিত মূল্য ১০ টাকা।

ফান্ডটির উদ্যোক্তা ও সম্পদ ব্যবস্থাপক হিসেবে কাজ করছে শান্তা অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড। এছাড়া ফান্ডটির ট্রাস্টি হিসেবে কাজ করছে যথাক্রমে বাংলাদেশ জেনারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। কাস্টডিয়ান হিসেবে কাজ করছে ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন
ট্যাগ ➧

সর্বশেষ..