ফিচার

সুখ-সাফল্যের মায়াবী জগৎ নতুন করে ভাবতে শেখায়

মানবমনের রহস্যময় জগতের বিশ্লেষণবিষয়ক লেখক আবু রেজা মো. ইয়াহিয়া। মানুষের অন্তর্নিহিত শক্তি ও মানবিক গুণাবলির স্ফুরণে একজন ব্যক্তি হয়ে উঠতে পারে জগতে স্মরণীয়। অন্যদিকে হতাশার করাল গ্রাসে এ মানুষটিই ছিটকে পড়তে পারেন সাফল্যের পথ থেকে। অনুপ্রেরণা ও দিকনির্দেশনামূলক প্রবন্ধের সমন্বয়ে লেখকের এবারের আয়োজন ‘সুখ-সাফল্যের মায়াবী জগৎ’। চিত্রশিল্পী সৈয়দ লুৎফুল হকের প্রচ্ছদ সুখপাঠ্য বইটিতে যোগ করেছে দৃষ্টিনন্দন মাত্রা।

জীবননদীতে নিয়ত চলে সাফল্য-ব্যর্থতার জোয়ারভাটা। এ জোয়ার ভাটায় সাফল্যকে বেছে নিয়ে সার্থকতার দিকে এগিয়ে যাওয়াই জীবনের উদ্দেশ্য। তবে জীবনের মায়াবী যে জগৎ রয়েছে তাতে প্রবেশ করতে প্রথমে প্রয়োজন ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি। মানব মনের রহস্যময় জলাশয়ের গহীনে সুখ ও দুঃখ দু-ই নিত্য খেলা করে। এ রহস্যময় জলাভূমির একটি পরিষ্কার মানচিত্র পাঠকদের সামনে উপস্থাপন করেছেন তিনি। লেখকের জীবন থেকে নেওয়া অভিজ্ঞতা, দূরদৃষ্টি ও প্রজ্ঞার সমন্বয়ে লিখিত এ বইটিকে মলাটবদ্ধ করে প্রকাশ করেছে চয়ন প্রকাশন।

বইটির রচনাদর্শ সত্যিই ব্যতিক্রমী। বইটিতে স্থান পেয়েছে অসাধারণ সব বিষয়বস্তুÑনীড় ছোট ক্ষতি নেই আকাশ তো বড়, নিজের দায়িত্ব নিজে নিন, শান্তি কোথা পাই, সুখের লাগিয়া এ ঘর বাঁধিনু, সুখ-দুঃখের সাতকাহন, মানুষ মানুষের জন্য, সময় গেলে সাধন হবে না। আরও রয়েছে হƒদয় দিয়ে হƒদি অনুভব, জীবনের গল্প এতো ছোট নয়, কাজ দিয়ে বুনি স্বপ্নের জাল, পথ আমার গন্তব্য নয়-এবার আমি মানুষ হবো, অবিনশ্বরের তরে নশ্বরের অভিযাত্রা, দুঃখ কিসে যায়, ইতিবাচকতায় সাহস আসে, মহান স্রষ্টায় আত্মনিবেদন, জীবন সেতো বহুরূপী। স্থান পেয়েছে চাপ-তাপ-উত্তাপ, এমপ্যাথি, আশায় বসতি, সফলতার চিরন্তন সূত্র, সফলতার অ আ ক খ, মানুষ চলে মনের বলে, আশা চাই ভালোবাসা চাই, লক্ষ্য হোক অটুট, ভয় কে জয় করে এগিয়ে যেতে হয়, সিদ্ধান্ত সিদ্ধান্তহীনতা আর দীর্ঘসূত্রতা, আত্মনির্মাণ, বর্তমানে বসবাস ও ঈগলের চোখ। প্রতিটি বিষয়ই জীবনঘনিষ্ঠ, যা নিমেষে একটি পর্ব থেকে পরবর্তী পর্বের দিকে সহজে টেনে নিয়ে যাবে।

লেখক মন ও মননে একজন দরদি মানুষ। তিনি স্বপ্ন দেখেন, দরদি সমাজ ও মানবিক পৃথিবীর। বইটি পাঠককে সুখ সাফল্য বিষয়ে নতুন করে ভাবতে শেখাবে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..