সারা বাংলা

সুন্দরবনে বাঘের আক্রমণে নিহত ২

প্রতিনিধি, সাতক্ষীরা: সুন্দরবনের ভারতের অংশে বাঘের আক্রমণে প্রাণ হারিয়েছেন বাংলাদেশি দুই জেলে। বৃহস্পতিবার বিকালে ভারতের সীমাখালী খালে কাঁকড়া ধরতে গিয়ে বাঘের আক্রমণে তাদের মৃত্যু হয়। নিহতরা হলেন সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার কৈখালী ইউনিয়নের পশ্চিম কৈখালী গ্রামের কফিলউদ্দিনের ছেলে রতন (৪২)। একই গ্রামের মনোমিস্ত্রির ছেলে মিজানুর রহমান (৪০)। নিখোঁজ ব্যক্তি হলেন সাত্তারের ছেলে আবু মুসা (৪১)। আবু মুসাই দুই জেলের মৃত্যুর বিষয়টি জানিয়েছেন।

কৈখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রহিম জানান, সুন্দরবনের মধ্যে খালে কাঁকড়া ধরার জন্য যায় রতন, মিজানুর রহমান ও আবু মুসা। তারা তিনজন একত্রে ছিলেন। সন্ধ্যার পর আবু মুসা মোবাইল ফোনের মাধ্যমে জানায়, রতন ও মিজানুরকে কাচিকাটা এলাকা থেকে বাঘে ধরে নিয়ে গেছে। আমি চেষ্টা করেও উদ্ধার করতে পারিনি। তাদের খুঁজে পাচ্ছি না। এরপর থেকে তার ফোনটিও বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে।

আবু মুসার উদ্ধৃতি দিয়ে তার ভাতিজা আল-আমিন জানান, তার চাচা মুসাসহ তিনজন ভারতের সীমখালী খালে কাঁকড়া আহরণ করতে যান। এ সময় একটি বাঘ রতন ও মিজানুর রহমানকে আক্রমণ করলে ঘটনাস্থলেই তাদের মৃত্যু হয়। বনের ভেতরে পালিয়ে গিয়ে প্রাণে রক্ষা পান মুসা। পরে মুসা বিষয়টি ভারতে তার শ্বশুরবাড়িতে জানান। পরে শ্বশুরবাড়ি থেকে তাদের খবর দেয়া হয়েছে।

কৈখালী ফরেস্ট স্টেশন কর্মকর্তা মোবারক হোসেন বলেন, আমিও শুনছি। তবে তারা কোথায় রয়েছে। কেউ বলতে পারছে না। একটা নৌকায় তারা তিনজন কাঁকড়া ধরতে গিয়েছিলেন। কৈখালী এলাকায় একপাশে বাংলাদেশের সাতক্ষীরা রেঞ্জের সুন্দরবন, অপরপাশে ভারতীয় এলাকা। তিনি বলেন, ওই তিনজন ভারতীয় পাড়ে গিয়েছিলেন কাঁকড়া ধরতে। সেখান থেকে একজন সংবাদ দিয়েছেন দুজনকে বাঘে ধরে নিয়ে গেছে।

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সাতক্ষীরার নীলডুমুর ১৭ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল ইয়াসিন চৌধুরী জানান, সুন্দরবনের ভারতের অংশে বাংলাদেশি দুই জেলে বাঘের আক্রমণে মারা গেছেন বলে তিনি শুনেছেন। ঘটনা সঠিক হলে নিহতদের মরদেহ উদ্ধারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে জানান তিনি।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..