স্পোর্টস

সুপার কাপ রিয়ালের

ক্রীড়া ডেস্ক : রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনার লড়াইয়ে স্প্যানিশ সুপার কাপের ফাইনাল দেখতে চেয়েছিল ফুটবলপ্রেমীরা। কিন্তু সেটা হয়নি। ম্যাচটি গত পরশু রূপ নেয় মাদ্রিদ ডার্বিতে। শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে নির্ধারিত ও অতিরিক্ত সময়ে কিন্তু অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদের জালমুখ খুলতে পারেনি সান্তিয়াগো বার্নাব্যুর ক্লাবটি। তবে টাইব্রেকারে ঠিকই প্রতিপক্ষের জালে ৪ গোল দিয়ে ট্রফি উল্লাসে মাতে জিনেদিন জিদানের শিষ্যরা।

সৌদি আরবের কিং আবদুল্লাহ স্পোর্টস সিটি স্টেডিয়ামে টাইব্রেকারে ৪-১ গোলে জিতে রিয়াল। দলটির এটি একাদশ স্প্যানিশ সুপার কাপ। সর্বোচ্চ ১৩ বার জিতেছে বার্সেলোনা।

পেনাল্টি শুটআউটে চারটি শটেই গোলের দেখা পায় রিয়াল। লক্ষ্যভেদ করেন দানি কার্বাহাল, রদ্রিগো, লুকা মদ্রিচ ও সার্জিও রামোস। বিপরীতে অ্যাথলেটিকোর প্রথম দুটি শট মিস করেন সাউল নিগেস। এরপর থমাসের শটটি ঠেকিয়ে দেন কোর্তোয়া। তাদের তৃতীয় শটে জালে বল পাঠান কিরান ট্রিপিয়ার।

শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে গত পরশু অনেকটা রক্ষণাত্মক ছক সাজিয়ে ছিলেন রিয়াল বস জিনেদিন জিদান। এদিকে অ্যাথলেটিকো পুরো ম্যাচেই ব্যস্ত ছিল নিজেদের ঘর সামলাতে। হয়তো সে কারণে ম্যাচের নির্ধারিত ও অতিরিক্ত সময়ে কোনো দলই গোল করতে পারেনি। বরং এক ফ্রি কিক নিয়ে নাটক থামাতে গিয়ে লাল কার্ড দেখাতে হয় রেফারিকে।

রিয়াল রক্ষণাত্মক খেললেও পুরো ম্যাচে আধিপত্য বিস্তার করেছিল। তবে ম্যাচের ১১৫ মিনিটের মাথায় ভালভার্দে লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়লে ১০ জনের দলে পরিণত হয় রিয়াল মাদ্রিদ। তারপরও দিয়েগো সিমিওনের শিষ্যরা পারেনি রিয়ালের জালমুখ খুলতে। পেনাল্টিতেও অ্যাথলেটিকোর একই দশা। প্রথম দুটি শটই তারা মিস করে। এদিকে ভুল করেনি রিয়াল। দলটির হয়ে পেনাল্টির প্রথম শট নেন কার্বাহাল। ঠিকঠাক বল জালেও জড়ান তিনি। এরপর অ্যাথলেটিকোর হয়ে প্রথম শট নেন সাউল; প্রথম শটটিই মিস করেন তিনি। শেষ পর্যন্ত ৪-১ গোলের জয় নিয়ে শিরোপা উৎসব করে রিয়াল মাদ্রিদ।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..