শোবিজ

সুবীর নন্দীর জন্মদিন আজ

শোবিজ ডেস্ক: আজ বরেণ্য সংগীতশিল্পী সুবীর নন্দীর জš§দিন। ১৯৫৩ সালের এই দিনে তিনি হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার নন্দীপাড়ার এক কায়স্থ সংগীত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৬৩ সালে তৃতীয় শ্রেণিতে অধ্যয়নকালেই গান গাওয়া শুরু করেন। ১৯৬৭ সালে সিলেট বেতারে গান করেন। তখন তার গানের ওস্তাদ ছিলেন গুরু বাবর আলী খান। তবে সংগীতে তার হাতেখড়ি মায়ের কাছেই। ১৯৭০ সালে ঢাকা রেডিওতে প্রথম গান রেকর্ডিং হয়। প্রথম গান ‘যদি কেউ ধূপ জ্বেলে দেয় …। গানটি লিখেছেন মোহাম্মদ মুজাক্কের; সুরারোপ করেন ওস্তাদ মীর কাসেম। ১৯৮১ সালে তার প্রথম একক অ্যালবাম প্রকাশিত হয়। চলচ্চিত্রে তিনি প্রথম গান করেন ১৯৭৬ সালে। নাম সূর্যগ্রহণ। তিনি দীর্ঘ ক্যারিয়ারে প্রায় আড়াই হাজারেরও বেশি গান গেয়েছেন রেডিও, টেলিভিশন ও চলচ্চিত্রে। তার গাওয়া উল্লেখযোগ্য গানের মধ্যে রয়েছে আমার এ দুটি চোখ, আমি বৃষ্টির কাছ থেকে কাঁদতে শিখেছি, চাঁদের কলঙ্ক আছে, দিন যায় কথা থাকে, একটা ছিল সোনার কন্যা, হাজার মনের কাছে, কত যে তোমাকে বেসেছি ভালো, পাহাড়ের কান্না, বন্ধু হতে চেয়ে তোমার, ও আমার উড়াল পঙ্খীরে, ভালোবাসা কখনও মরে না প্রভৃতিসহ আরও অসংখ্য জনপ্রিয় গানে কণ্ঠ দিয়েছেন। তিনি মূলত সিনেমায় গান গেয়ে বেশি জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন। সংগীতে অবদানের জন্য পাঁচবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার, তিনবার বাচসাস পুরস্কার এবং চলতি বছরে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মাননা একুশে পদক পেয়েছেন। উল্লেখ্য, তিনি চলতি বছরের ৭ মে সিঙ্গাপুরের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বাংলাদেশ সময় ভোর সাড়ে ৪টায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তার বয়স ছিল ৬৫ বছর। তিনি দীর্ঘদিন ফুসফুস, কিডনি ও হৃদরোগে ভুগছিলেন। তিনি বাঙালির ভালোবাসার গানের পাখি হিসেবে খ্যাত ছিলেন। অসংখ্য হৃদয়স্পর্শী গানে কণ্ঠ দিয়ে কোটি মানুষের হৃদয় জয় করেছিলেন। শুদ্ধ সংগীতের কাজের মাধ্যমে মানুষের হৃদয়ে আজীবন বেঁচে থাকবেন।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..