প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সুযোগের অপেক্ষায় আত্মবিশ্বাসী ইমরুল

 

 

ক্রীড়া প্রতিবেদক: একজন পরিশ্রমী ক্রিকেটার। সুযোগ পেলেই দলকে সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু ভালো খেলেও টিম কম্বিনেশনের কারণে একাদশে নিয়মিত হতে পারছেন না ইমরুল কায়েস। দায়টা কিছুটা টিম ম্যানেজমেন্টকেও দিয়েছেন এ বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। তারপরও থেমে নেই আত্মবিশ্বাসী এ ওপেনার। আসন্ন অস্ট্রেলিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের জন্য নিজেকে তৈরি করছেন। রয়েছেন সুযোগের অপেক্ষায়।

তামিম ইকবালের যোগ্য ওপেনিং সঙ্গী ছিলেন ইমরুল। কিন্তু কন্ডিশন, কম্বিনেশন ও ইনজুরির কারণে সৌম্য সরকারের কাছে তার সেই জায়গাটি হারাতে হয়েছে। এখন সুযোগের অপেক্ষায় থাকেন তিনি। কিন্তু দলের বর্তমান ব্যাটিং লাইনআপের যে অবস্থা, তাতে একাদশে সুযোগ পাওয়াটা তার জন্য বেশ কঠিন। ব্যাপারটা নিজেও জানেন তিনি। গতকাল মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে দলে জায়গা না পাওয়া নিয়ে মেহেরপুরের এ ক্রিকেটার বলেন, ‘আমি আমার কাজটা করার চেষ্টা করি যখনই সুযোগ পাই। ম্যানেজমেন্ট হয়তো আমাকে নিয়ে ভিন্ন কিছু চিন্তা করে, যার জন্য আমি দলে নিয়মিত হতে পারি না! যদি তারা চিন্তা করে আমাকে নিয়ে কন্টিনিউ করতে পারবে, তখন ভিন্ন কিছু হতে পারে আমার ক্রিকেট জীবনে।’

বর্তমানে বাংলাদেশের ক্রিকেট স্বর্ণযুগ পার করছে। কিছুদিন আগেই চ্যাম্পিয়নস ট্রফি থেকে সেমিফাইনাল খেলে ফিরছে টাইগাররা। সে স্মৃতি নিয়েই এবার ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ২ ম্যাচ টেস্ট সিরিজ খেলতে প্রস্তুতি নিচ্ছে লাল-সবুজ প্রতিনিধিরা। কিন্তু এ সিরিজে একাদশে জায়গা হবে তো ইমরুলের? উত্তরটা জানা নেই টাইগার এ ওপেনারের। যদি সুযোগ পান, সঠিকভাবে কাজে লাগানোর কথা বললেন তিনি। ‘হঠাৎ করে যদি একটা ম্যাচ খেলি, তখন পারফর্ম করা কঠিন হয়ে যায়। তবে পেশাদার ক্রিকেটার হিসেবে এর সঙ্গে মানিয়ে নেওয়া ভালো। মানসিকভাবে আমার মনে হয় ইতিবাচক থাকা জরুরি। একটা সুযোগ এলে সেটাকে সঠিকভাবে ব্যবহার করা উচিত।’

দলের প্রয়োজনে কখনও অনেকটা নীরবেই দারুণ খেলে যান ইমরুল। কিন্তু কোনো অদৃশ্য কারণে তাকে একাদশের বাইরে বসে থাকতে হয়। তারপরও ভেঙে পড়েন না তিনি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এটা নাকি একজন পেশাদার ক্রিকেটারকে মেনে নিয়েই পথ চলতে হয়। অপেক্ষায় থাকতে হয় সুযোগের। কিন্তু সে সুযোগ সহসাই কী ধরা দেবে টাইগার এ ওপেনারের হাতে?