প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সূচকের মিশ্র প্রবণতায় ডিএসইতে লেনদেন সামান্য কমেছে

নিজস্ব প্রতিবেদক: গতকাল বুধবার চলতি সপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবসে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের মিশ্র প্রবণতা দেখা গেছে। এদিন বেশিরভাগ শেয়ারদর হ্রাসের পাশাপাশি আগের কার্যদিবসের তুলনায় লেনদেন কমেছে। গতকাল ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতায় লেনদেনের শুরু হলেও আধা ঘণ্টার মধ্যে ফের পতনমুখী হতে শুরু করে। এরপর দুপুর ১২টার দিকে কিছুটা উত্থান হলেও তা বেশিক্ষণ থাকেনি। লেনদেনের শেষ দুই ঘণ্টাতে উত্থান-পতনের মধ্য দিয়ে লেনদেন শেষ হয়। লেনদেন শেষে ৭ পয়েন্ট ইতিবাচক ছিল প্রধান সূচক। তবে বাকি দুই সূচকের মধ্যে শরিয়াহ্ সূচক নেতিবাচক অবস্থানে ছিল। অন্যদিকে চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক বাড়লেও টাকার অঙ্কে লেনদেন কমেছে।

বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৭ দশমিক ৮৭ পয়েন্ট বা দশমিক ১২ শতাংশ বেড়ে ৬ হাজার ৩৫০ দশমিক ৪৬ পয়েন্টে অবস্থান করে। ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক দশমিক ২৪ পয়েন্ট বা দশমিক ০১ শতাংশ কমে এক হাজার ৩৮৫ দশমিক ৪০ পয়েন্টে অবস্থান করে। আর ডিএস৩০ সূচক দশমিক ৫৯ পয়েন্ট বা দশমিক ০২ শতাংশ বেড়ে ২ হাজার ২৯৫ দশমিক ১৮ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন ১৮৯ কোটি ৮৬ লাখ টাকা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ লাখ ১৫ হাজার ৯৩৮ কোটি টাকায়। ডিএসইতে লেনদেন হয় ৮০৫ কোটি ৬৯ লাখ ৮৭ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৮১৮ কোটি ৮২ লাখ ৬৪ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসেবে লেনদেন কমেছে ১৩ কোটি ১২ লাখ টাকা। এদিন ২২ কোটি ১৩ লাখ ১৮ হাজার ৮১৫টি শেয়ার এক লাখ ৬০ হাজার ৪৫ বার হাতবদল হয়। লেনদেন হওয়া ৩৮১ কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৫৭টির, কমেছে ১৭২টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৫২টির দর।

গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে আনোয়ার গ্যালভানাইজিং লিমিটেড। কোম্পানিটির ৩৪ কোটি ৩৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ১০ পয়সা। এরপর শাইনপুকুর সিরামিকের ২৭ কোটি ৪৩ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দর কমেছে ১ টাকা। বেক্সিমকোর ২৩ কোটি ২১ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দর কমেছে এক টাকা ২০ পয়সা। বিডি ফাইন্যান্সের ২১ কোটি ৮৮ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দর কমেছে ৭০ পয়সা। ফু-ওয়াং ফুডের ২১ কোটি ৭৫ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দর কমেছে ২০ পয়সা। 

৯ দশমিক ৭৮ শতাংশ বেড়ে দর বৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে মেঘনা ইন্স্যুরেন্স। ইন্ট্রাকোর দর ৯ দশমিক ৬১ শতাংশ, এমবি ফার্মার ৮ দশমিক ৬১ শতাংশ, পেপার প্রসেসিং আ্যন্ড প্যাকেজিংয়ের ৮ দশমিক ০১ শতাংশ এবং রেনউইক যজ্ঞেশ্বরের ৭ দশমিক ৪৯ শতাংশ শেয়ারদর বেড়েছে।