পুঁজিবাজার

সূচকে বড় পতনে ডিএসইতে ৮০% কোম্পানি দর হারিয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক: উভয় বাজারে সূচকের বড় পতন হয়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) গতকাল ৮০ শতাংশ কোম্পানির দরপতন হয়। দর বেড়েছে মাত্র ১০ শতাংশ কোম্পানির। সে সঙ্গে ডিএসইএক্স সূচক কমেছে ৭৫ পয়েন্ট। এর ফলে সূচক গত প্রায় পৌনে তিন বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন অবস্থানে নেমে গেছে। বিক্রির চাপে লেনদেন বেড়েছে। লেনদেনের শুরু থেকেই সূচকের পতন শুরু হয় লেনদেনের পুরো সময়জুড়ে ছিল বিক্রির চাপ। অন্যদিকে চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) বেশিরভাগ শেয়ারের দরপতনে সূচকের বড় পতনের পাশাপাশি লেনদেনেও পতন হয়।
বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৭৫ দশমিক ৭৮ পয়েন্ট বা এক দশমিক ৫১ শতাংশ কমে চার হাজার ৯৩৩ দশমিক ১৭ পয়েন্টে অবস্থান করে।
ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক ১৪ দশমিক শূন্য এক পয়েন্ট বা এক দশমিক ১৯ শতাংশ কমে এক হাজার ১৫৫ দশমিক ৪৯ পয়েন্টে অবস্থান করে। আর ডিএস৩০ সূচক ২১ দশমিক ৯২ পয়েন্ট বা এক দশমিক ২৪ শতাংশ কমে এক হাজার ৭৩৬ দশমিক ১৮ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন তিন লাখ ৬৯ হাজার ৬৯৪ কোটি ২২ লাখ ৯৫ হাজার ৫৬৯ টাকা হয়। ডিএসইতে লেনদেন হয় ৫০২ কোটি ৪২ লাখ ৭৫ হাজার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৪০৭ কোটি শূন্য তিন লাখ ৮৩ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসেবে লেনদেন বেড়েছে ৯৫ কোটি ৩৮ লাখ টাকা। এদিন ১২ কোটি ৮৩ লাখ ৬৩ হাজার ১২৬টি শেয়ার এক লাখ ৪১ হাজার ৮২৫ বার হাতবদল হয়। লেনদেন হওয়া ৩৫৩ কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৩৭টির, কমেছে ২৮৮টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ২৮টির দর।
গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে ন্যাশনাল টিউবস। কোম্পানিটির ২৬ কোটি ৮৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ১৩ টাকা ৮০ পয়সা। এরপরে জেএমআই সিরিঞ্জের ২৪ কোটি ৮৮ লাখ টাকা লেনদেনের পাশাপাশি দর বেড়েছে ২৩ টাকা ৭০ পয়সা। তৃতীয় অবস্থানে থাকা বীকন ফার্মার ২৩ কোটি ৪৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর বেড়েছে এক টাকা ৫০ পয়সা। মুন্নু সিরামিকের ১৩ কোটি ৯৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। স্টাইল ক্রাফটের ১৩ কোটি ১৪ লাখ টাকা লেনদেন হয়। এছাড়া মুন্নু জুট স্টাফলাসের ১৩ কোটি ১৩ লাখ টাকা, ভিএফএস থ্রেডের ১১ কোটি ২৯ লাখ টাকা, ওয়াটা কেমিক্যালের ১১ কোটি ১২ লাখ টাকা, আইপিডিসির সাড়ে ১০ কোটি টাকা, স্কয়ার ফার্মার সাড়ে ৯ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।
৯ দশমিক ৯৭ শতাংশ বেড়ে দর বৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে ন্যাশনাল টিউবস। স্টান্ডার্ড সিরামিকের দর আট দশমিক ৭২ শতাংশ, জেমিনি সী ফুডের দর আট দশমিক ৭২ শতাংশ, মুন্নু জুট স্টাফলার্সের দর পাঁচ দশমিক ৪৬ শতাংশ, জেএমআই সিরিঞ্জের দর পাঁচ দশমিক ১৩ শতাংশ, আরামিট লিমিটেডের দর পাঁচ দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ, বীকন ফার্মার দর পাঁচ দশমিক শূন্য সাত শতাংশ, সোনালী আঁশের দর পাঁচ দশমিক শূন্য দুই শতাংশ, অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজের দর তিন দশমিক ৯১ শতাংশ ও রেকিট বেনকিজারের দর বেড়েছে তিন দশমিক ৭০ শতাংশ।
৯ দশমিক ৫৬ শতাংশ কমে দরপতনের শীর্ষে উঠে আসে এমএল ডায়িং। ভিএফএস থ্রেড ডায়িংয়ের দর ৯ দশমিক ১৫ শতাংশ, পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির দর আট দশমিক ৩৮ শতাংশ, এসআরএমএল আইবিবিএল শরিয়াহ্ ফান্ডের দর আট দশমিক ৩৩ শতাংশ, গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্সের দর আট দশমিক ২৫ শতাংশ, আইসিবি থার্ড এনআরবি মিউচুয়াল ফান্ডের দর আট দশমিক ১৬ শতাংশ, ইউনাইটেড ইন্স্যুরেন্সের দর সাত দশমিক ৯৬ শতাংশ, আরামিট সিমেন্টের দর সাত দশমিক ৯২ শতাংশ, সিএনএ টেক্সের দর সাত দশমিক ৪০ শতাংশ ও এসইএমএল লেকচার ইকুইটি ম্যানেজমেন্ট ফান্ডের দর সাত দশমিক ৩৫ শতাংশ কমেছে।
সিএসইতে গতকাল সিএসসিএক্স মূল্যসূচক ১৩২ দশমিক ৫৯ পয়েন্ট বা এক দশমিক ৪৩ শতাংশ কমে ৯ হাজার ১১৪ দশমিক ৮৩ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ২১৩ দশমিক ৮০ পয়েন্ট বা এক দশমিক ৪০ শতাংশ কমে ১৫ হাজার ১৪ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল সর্বমোট ২৬১টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৩৬টির, কমেছে ২১০টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ১৫টির দর।
সিএসইতে এদিন ১৪ কোটি ৫৭ লাখ ৮৮ হাজার ৯৪০ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৬৯ কোটি ৪৫ লাখ ৮৫ হাজার ৭০৫ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে লেনদেন কমেছে ৫৪ কোটি ৮৭ লাখ টাকা। সিএসইতে গতকাল লেনদেনের শীর্ষে অবস্থান করে ডরিন পাওয়ার। কোম্পানিটির এক কোটি ৫৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজের এক কোটি ১৬ লাখ, সিলকো ফার্মার ৯৫ লাখ টাকার, বীকন ফার্মার সাড়ে ৫৯ লাখ টাকার, বেক্সিমকোর ৫২ লাখ টাকার, এনসিসি ব্যাংকের ৩৭ লাখ টাকার, জেএমআই সিরিঞ্জের ৩৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। আরএসআরএম স্টিলের সাড়ে ২৯ লাখ টাকার, বিএসসির ২৩ লাখ টাকার, ভিএফএসে থ্রেডের ২০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

সর্বশেষ..