দিনের খবর প্রচ্ছদ প্রথম পাতা বাজার বিশ্লেষণ

সূচক ইতিবাচক করতে মূল ভূমিকায় গ্রামীণফোন

রুবাইয়াত রিক্তা:সপ্তাহশেষে পুঁজিবাজারে গতকাল ইতিবাচক গতি দেখা গেছে। বেশিরভাগ কোম্পানির দরবৃদ্ধির পাশাপাশি লেনদেন ও সূচকেও ছিল ইতিবাচক গতি। বৃহৎ খাতগুলোর মধ্যে প্রকৌশল ও বিমা খাত ছাড়া অন্য খাতগুলোয় দরপতনের হার বেশি ছিল। বিশেষ করে ব্যাংক খাতে খুব কমসংখ্যক কোম্পানির দর বেড়েছে। তবে লেনদেনে একক প্রাধান্য ছিল বিমা খাতে। এ খাতে এক চতুর্থাংশের বেশি লেনদেন হয়। ছোট খাতগুলোর মধ্যে টেলিযোগাযোগ এবং সেবা ও আবাসন খাত শতভাগ ইতিবাচক ছিল। টেলিযোগাযোগ খাতের গ্রামীণফোনের পাঁচ টাকা ৪০ পয়সা দরবৃদ্ধি ও ২১ কোটি ৩২ লাখ টাকা লেনদেন বাজার ইতিবাচক করতে বড় ভূমিকা রেখেছে।

গতকাল বিমা খাতে লেনদেন হয় ২৬ শতাংশ বা ১০৯ কোটি টাকা। এ খাতে দর বেড়েছে প্রায় ৬০ শতাংশ কোম্পানির। প্রায় ১০ শতাংশ বেড়ে দরবৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে ইউনাইটেড ইন্স্যুরেন্স। এছাড়া গ্রিনডেল্টা ইন্স্যুরেন্স ও পূরবী জেনারেল ইন্স্যুরেন্স শীর্ষ দশের তালিকায় উঠে আসে। লেনদেনের শীর্ষ দশ কোম্পানির তালিকায় থাকা পূরবী জেনারেল ইন্স্যুরেন্সের প্রায় সাড়ে ১৫ কোটি টাকা লেনদেন হয়। দর বেড়েছে এক টাকা ৩০ পয়সা। সোনার বাংলা ইন্স্যুরেন্সের ১০ কোটি ৮৫ লাখ টাকা লেনদেন হয়, দরপতন হয় এক টাকা ১০ পয়সা। ফেডারেল ইন্স্যুরেন্সের সাত কোটি ৮৭ লাখ টাকা লেনদেন হয়, দর বেড়েছে ৮০ পয়সা। এশিয়া ইন্স্যুরেন্সের সাত কোটি ৮৬ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ৪০ পয়সা। মোট লেনদেনের ১৫ শতাংশ হয় ওষুধ ও রসায়ন খাতে। এ খাতে ৬০ শতাংশ কোম্পানির দর কমেছে। ২৭ কোটি ২২ লাখ টাকা লেনদেন হয়ে বীকন ফার্মা শীর্ষে উঠে আসে। দর বেড়েছে ৮০ পয়সা। স্কয়ার ফার্মার সাত কোটি ৯৭ লাখ টাকা লেনদেন হয়, দর বেড়েছে চার টাকা ৬০ পয়সা। প্রকৌশল খাতে লেনদেন হয় ১১ শতাংশ। এ খাতে ৬১ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। রেকর্ড ডেটের কারণে গতকাল এ খাতের প্রায় আট কোম্পানির লেনদেন বন্ধ ছিল। তবে কাশেম ইন্ডাস্ট্রিজ ও বিডি অটোকার দরবৃদ্ধির শীর্ষ দশের মধ্যে অবস্থান করে। এই দুই কোম্পানির দর ছয় শতাংশের বেশি হারে বেড়েছে। মোট লেনদেনে বস্ত্র খাতের অবদান উল্লেখযোগ্য না হলেও এ খাতের তিন কোম্পানি দরবৃদ্ধির শীর্ষ দশের তালিকায় উঠে আসে। কুইন সাউথ টেক্সটাইল মিলসের দর বেড়েছে সাড়ে আট শতাংশ। মোজাফ্ফর হোসেন স্পিনিংয়ের দর সাত দশমিক ৬৯ শতাংশ, এমএল ডায়িংয়ের দর সাত দশমিক ৬৫ শতাংশ বেড়েছে। ব্যাংক খাতে মাত্র সাত কোম্পানির দর বেড়েছে। এ খাতে অধিকাংশ কোম্পানির দর অপরিবর্তিত ছিল। গ্রামীণফোনের লেনদেন বৃদ্ধিতে টেলিযোগাযোগ খাতে লেনদেন বেড়ে দাঁড়ায় সাত শতাংশে। আর্থিক খাতে ৭৩ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। এছাড়া রেকর্ড ডেটের কারণে গতকাল বেশকিছু কোম্পানির লেনদেন বন্ধ ছিল। 

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..