কোম্পানি সংবাদ পুঁজিবাজার

সূচক কমলেও লেনদেন বেড়েছে ডিএসইএক্স ৪.৩৮ ও সিএসসিএক্স ১৮.৫৮ পয়েন্ট কমেছে

 

নিজস্ব প্রতিবেদক: টানা দুদিন ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতায় থাকার পর গতকাল বৃহস্পতিবার উভয় পুঁজিবাজারে সূচক কমেছে। শেয়ার বিক্রির চাপে গতকাল সূচক কমলেও লেনদেন বেড়ে গেছে। গতকাল ডিএসইতে লেনদেন শুরুর ৪০ মিনিটের মধ্যে সূচক ২৫ পয়েন্ট বেড়ে যায়। এরপর আবার নামতে থাকে। বেলা ১২টার দিকে ৩০ পয়েন্টের মতো নেমে আবার কিছুটা উঠে যায়। শেষের দিকে বিক্রির চাপ বেড়ে যাওয়ায় সূচকের সামান্য পতন দিয়ে লেনদেন শেষ হয়। খাতভিত্তিক লেনদেনে গতকাল আর্থিক খাতের প্রাধান্য ছিল। ব্যাংকিং খাতে বিক্রির চাপ বেশি থাকায় অধিকাংশ শেয়ারের দরপতন হয়।

তথ্যানুযায়ী, গতকাল ডিএসই’র প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স চার দশমিক ৩৮ পয়েন্ট বা দশমিক শূন্য সাত শতাংশ কমে পাঁচ হাজার ৫৪০ দশমিক ৭১ পয়েন্টে অবস্থান করে। ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক এক দশমিক ৮৬ পয়েন্ট বা দশমিক ১৪ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ২৭৫ দশমিক শূন্য সাত পয়েন্টে। আর ডিএস৩০ সূচক সাত দশমিক ৪০ পয়েন্ট বা দশমিক ৩৬ শতাংশ কমে অবস্থান করছে দুই হাজার ৩৩ দশমিক ৭২ পয়েন্টে।

ডিএসইতে গতকাল ৭৫৮ কোটি ৮৩ লাখ ৪১ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৬৯৩ কোটি ৯৯ লাখ ৭৭ হাজার টাকার শেয়ার ও ইউনিট। সেই হিসেবে গতকাল লেনদেন বেড়েছে ৬৪ কোটি ৮৩ লাখ টাকা। গতকাল ২৪ কোটি ৮৬ লাখ ৩৭ হাজার ৭০১টি শেয়ার এক লাখ ২৪ হাজার ৫৭০ বার হাতবদল হয়। গতকাল ডিএসই’র বাজার মূলধন ছিল তিন লাখ ৭৪ হাজার ৪৬৮ কোটি ৭৫ লাখ ৪৯ হাজার ৪৮৮ টাকা। গতকাল ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩২৫টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৫১টির। কমেছে ১৩৩টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৪১টির দর।

গতকাল টাকার অংকে লেনদেনের শীর্ষে চলে আসে ইউনাইটেড পাওয়ার। এদিন ৪৬ কোটি ৬৪ লাখ তিন হাজার টাকায় ব্যাংকটির ২৭ লাখ ২৫ হাজার ২০৪টি শেয়ার লেনদেন হয়। শেয়ারটির দর সাত টাকা ৬০ পয়সা বেড়ে সর্বশেষ লেনদেন হয় ১৭২ টাকা ৩০ পয়সায়। লেনদেনে এর পরের অবস্থানগুলোতে ছিল যথাক্রমে লংকাবাংলা, শাহজিবাজার পাওয়ার, বিডি ফাইন্যান্স, ব্র্যাক ব্যাংক, ওয়ান ব্যাংক, প্রাইম ব্যাংক, ইসলামিক ফাইন্যান্স, ডরিন পাওয়ার ও বারাকা পাওয়ার। আগের দিনের মতো গতকালও শেয়ার লেনদেনে শীর্ষে ছিল বিডি ফাইন্যান্স। এদিন কোম্পনিটির ৭৪ লাখ ৮৮ হাজার ২৫২টি শেয়ার ১৭ কোটি ৩৬ লাখ দুই হাজার টাকায় লেনদেন হয়। এর পরের কোম্পানিগুলো হলো ইন্টারন্যাশনাল লিজিং, ওয়ান ব্যাংক, আইএফআইসি, প্রাইম ব্যাংক, লংকাবাংলা, এনবিএল, পিএইচপি ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড, ফারইস্ট ফাইন্যান্স ও ইসলামিক ফাইন্যান্স।  গতকাল ৯ দশমিক ৮৭ শতাংশ দর বেড়ে শীর্ষে উঠে আসে তোসরিফা ইন্ডাস্ট্রিজ। শেয়ারটির সর্বশেষ দর হয় ২৫ টাকা ৬০ পয়সা। এরপর ৯ দশমিক ৪৫ শতাংশ দর বেড়েছে এফএএস ফিন্যান্সের। ৯ দশমিক ৩০ শতাংশ বেড়েছে ফারইস্ট ফাইন্যান্সের। আট দশমিক ৪৭ শতাংশ রিপাবলিক ইন্স্যুরেন্সের এবং এমারেল্ড অয়েলের আট দশমিক ৩৬ শতাংশ দর বেড়েছে। গতকাল চার দশমিক ৯৫ শতাংশ দর কমে পতনের শীর্ষে চলে আসে এশিয়া প্যাসিফিক ইন্স্যুরেন্স। শেয়ারটির সর্বশেষ দর হয় ১৯ টাকা ১০ পয়সা। চার দশমিক ৮৯ শতাংশ কমেছে জিলবাংলা সুগার মিলস। মডার্ন ডায়িংয়ের তিন দশমিক ৯২ শতাংশ, আইএফআইসি ব্যাংকের তিন দশমিক ৭৪ শতাংশ এবং তিন দশমিক ৫৮ শতাংশ দর কমেছে ডেল্টা লাইফ  ইন্স্যুরেন্সের।

চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) গতকাল সিএসসিএক্স মূল্যসূচক ১৮ দশমিক ৫৮ পয়েন্ট কমে ১০ হাজার ৪১৫ দশমিক ৭৬ পয়েন্টে, সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ২৮ দশমিক ৬২ পয়েন্ট কমে ১৭ হাজার ১৭৮ পয়েন্টে অবস্থান করে। সিএসইতে গতকাল ২৪০টি কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে ১০২টির দর বেড়েছে। কমেছে ১১০টির। অপরিবর্তিত ছিল ২৮টির দর।

সিএসইতে গতকাল ৫৯ কোটি ৬৭ লাখ ৩৬ হাজার ৭৭৫ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৪১ কোটি ৭৩ লাখ ৬৩ হাজার ৫৫৭ টাকার। সে হিসেবে গতকাল সিএসইতে লেনদেন বেড়েছে  ১৭ কোটি ৮৪ লাখ টাকা। সিএসইতে গতকাল সবচেয়ে বেশি টাকার শেয়ার লেনদেন হয় ঢাকা ব্যাংকের। প্রতিষ্ঠানটির পাঁচ কোটি ৯০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। শেয়ারটির সর্বশেষ দর ছিল ১৯ টাকা। লেনদেনে এর পরের অবস্থানে ছিল বারাকা পাওয়ার, ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স, ইউনাইটেড পাওয়ার, ব্র্যাক ব্যাংক, ওয়ান ব্যাংক, বিডি ফাইন্যান্স, এমজেএলবিডি, সাইফ পাওয়ার ও ফারইস্ট ফাইন্যান্স।

 

 

 

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..