স্পোর্টস

সেঞ্চুরিতে জবাব মুশফিকের

ক্রীড়া প্রতিবেদক: বাংলাদেশের অনেক বড় বড় জয়ের সাক্ষী ও স্বপ্নপূরণের নায়ক মুশফিকুর রহিম। কিন্তু পাকিস্তান সফরে না যাওয়াকে কেন্দ্র করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান প্রকাশ্যেই সমালোচনা করেন তার। প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন আবার জানিয়ে দেন, চোটে ভোগা মুশফিককে ফিটনেস টেস্ট উতরেই আসতে হবে জিম্বাবুয়ে সিরিজের দলে। তবে ঘরের মাঠে আফ্রিকান দেশটির বিপক্ষে টেস্ট দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার পথটা দারুণভাবেই তৈরি করে রাখলেন এ উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান। বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের (বিসিএল) তৃতীয় রাউন্ডে দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরি (১৪০) পেয়েছেন তিনি।

তবে গতকাল বিশ্ব ভালোবাসা দিবসের এ দিনটি ব্যাট হাতে যদি হয় মুশফিকের, বোলিংয়ে তাহলে নিঃসন্দেহে নাঈম হাসানের। তরুণ এ অফ স্পিনার পেয়েছেন ৮ উইকেট। পাকিস্তান সফরে যাওয়ার আগে ৬ উইকেট নিয়েছিলেন। ফিরে এসে শুরু করলেন সে জায়গা থেকেই। তৃতীয় রাউন্ডের প্রথম দিন শেষে তার স্পেল ছিল ৩৫.৪ ওভারে ১০৭ রানের খরচায় ৮ উইকেট। মেডেন নিয়েছেন পাঁচটি।

পাকিস্তানকে ‘না’ বলা মুশফিকের জন্য এবারের রাউন্ডটি ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। এমনিতেই বোর্ড প্রধান ও প্রধান নির্বাচকের মন্তব্য তার পক্ষে নেই, এর ওপর আবার বিসিএলেও সুবিধা করতে পারছিলেন না। প্রথম রাউন্ডের দুই ইনিংস করেন যথাক্রমে ২ ও ৩৮। তাই সামনের জিম্বাবুয়ে টেস্টের আগে রানে ফেরা জরুরি ছিল সাবেক অধিনায়কের। মুশফিক সেটি করে দেখালেন দারুণ ব্যাটিংয়ে।

আজ কক্সবাজারে মাঠে নেমেছে উত্তরাঞ্চল ও পূর্বাঞ্চল। উত্তরাঞ্চলের হয়ে খেলা মুশফিক ১১৭ বলে পূরণ করেন প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তার ১১তম সেঞ্চুরি। দলের অন্য ব্যাটসম্যানরা যখন একে একে যোগ দিয়েছেন ব্যর্থতার মিছিলে, সেখানে পাঁচ নম্বরে নেমে একা হাতে টেনে নিয়েছেন উত্তরাঞ্চলকে। আউট হওয়ার আগে মুশফিক খেলেন ১৪০ রানের ইনিংস। অন্যদিকে নাঈম ইসলাম ছাড়া (৩১) দলের অন্য কোনো ব্যাটসম্যান ত্রিশের কোটাই পেরুতে পারেননি। তাই দলীয় সংগ্রহ আটকে যায় ২৭২ রানেই। জবাবে সানজামুল-সঞ্জিত তোপে ২ উইকেটে ৩ রান নিয়ে দিন শেষ করেছে ইস্ট জোন। শূন্য রানে ফিরে গেছেন মোহাম্মদ আশরাফুল।

উত্তরাঞ্চলের ব্যাটিংয়ে একাই ধস নামিয়েছেন নাঈম। ১০ উইকেটের ৮টিই নিয়েছেন এ স্পিনার। পাকিস্তান সফরে যাওয়ার আগেও আলো ছড়িয়েছিলেন, প্রথম ইনিংসে ২ উইকেটের পর দ্বিতীয় ইনিংসে নিয়েছিলেন ৬ উইকেট। যদিও রাওয়ালপিন্ডি টেস্টে খেলার সুযোগ হয়নি তার।

এদিকে প্রায় দুই বছর পর প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ফিরেছেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। ব্যাটিংয়ে মোটেও ভালো করতে পারেননি। উত্তরাঞ্চলের অলরাউন্ডার রানের খাতা খোলার আগেই ফিরেছেন প্যাভিলিয়নে। আরেক ম্যাচে সেন্ট্রাল জোনের হয়ে সেঞ্চুরির দেখা পেয়েছেন মার্শাল আইযুব (১১৬)। তার ব্যাটে ভর করে ২৩৫ রান করে দলটি। জবাবে দিনশেষে ২ উইকেটে ২৯ রান তুলেছে সাউথ জোন।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..