সারা বাংলা

সেনবাগে স্বল্পমূল্যের চাল বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ

প্রতিনিধি, নোয়াখালী

নোয়াখালীর সেনবাগে হতদরিদ্রদের মধ্যে খাদ্য অধিদফতরের স্বল্পমূল্যের চাল বিতরণ কর্মসূচিতে ব্যাপক দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। হতদরিদ্র পরিবারের জনপ্রতি ৩০ কেজি চাল দেওয়ার কথা থাকলেও উপজেলার কাদরা ইউনিয়নে জনপ্রতি ১৫-২০ কেজি হারে বিতরণ করা হচ্ছে। এছাড়া সপ্তাহের প্রতি রোব, মঙ্গল ও বৃহস্পতিবার হতদরিদ্রদের মধ্যে বরাদ্দকৃত চাল দেওয়ার কথা থাকলেও ডিলার সাইফুল ইসলাম টিটু তা না দিয়ে গুদামজাত করছেন।

অভিযোগে জানা গেছে, তিন বছরে এক মুঠো চাল না পেলেও ডিলারের খাতাপত্রে এক ব্যক্তির নামে টিপসই রয়েছে। অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান পলাশ জানান, অভিযোগটি শতভাগ সত্য। ডিলারদের কর্মকাণ্ডে সরকার এবং তার বদনাম হচ্ছে।

স্থানীয়রা জানান, চাল বিতরণে ডিলার সাইফুল ইসলাম টিটু ভুয়া তালিকা সাজিয়ে খাদ্য অধিদফতর থেকে বরাদ্দকৃত পুরো চালই তুলে নেন। কিন্তু হতদরিদ্রদের নামে বরাদ্দকৃত এসব চাল হতদরিদ্রদের মধ্যে যথাযথভাবে না দিয়ে গুদামজাত করছেন। আর একপর্যায়ে সেসব চাল খোলাবাজারে বিক্রয় করছেন তিনি। স্থানীয়রা জানান, ডিলার সাইফুল ইসলাম সরকারিভাবে বরাদ্দকৃত প্রতি কেজি চালের দাম ১০ টাকার বিপরীতে ২০ টাকা আদায় করছেন।

এ বিষয়ে ডিলার সাইফুল ইসলাম টিটু জানান, অভিযোগটি সত্য নয়। যারা চাল পাওয়ার কথা তারাই পাচ্ছেন। দলীয় কোন্দলে কিছু লোক এসব কথা ছড়াচ্ছে।

উপজেলার খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা অসিমতো চাকমা জানান, চাল বিতরণকালে একজন কর্মকর্তা থাকেন। গত ১৭ তারিখে চাল বিতরণে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে সত্যতা পেয়েছেন। এ সময় ডিলার ছিলেন না। তার লোকজনই এসব করছেন। পরে ডিলার এসে অতিরিক্ত টাকা ফেরত দিয়ে দেন। তারপরও অভিযোগটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

সর্বশেষ..