প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সেমির লড়াইয়ে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ আজ মালদ্বীপ

ক্রীড়া প্রতিবেদক: আগেও দুবার মেয়েদের সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের সেমিফাইনাল খেলেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু ওই পর্যন্তই শেষ। ফাইনালে ওঠা হয়নি লাল-সবুজের মেয়েদের। তবে এবার আর সেমি থেকেই ফিরতে চায় না সাবিনা খাতুনরা। শিলিগুড়ির কাঞ্চনজঙ্ঘা স্টেডিয়ামে আজ মালদ্বীপকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো দক্ষিণ এশিয়ার বিশ্বকাপ খ্যাত এ টুর্নামেন্টের ফাইনালে জায়গা করে নিতে চায় গোলাম রব্বানী ছোটনের শিষ্যরা। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৮টায়।

এর আগে ‘বি’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই সেমিফাইনালে জায়গা করে নেয় বাংলাদেশের মেয়েরা। গ্রুপের পর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচে আফগানিস্তানের বিপক্ষে দুর্দান্ত শুরু করেছিল লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। আফগানদের ৬-০ গোলে উড়িয়ে দেওয়ার পর নিজেদের শেষ ম্যাচে ভারতকে প্রথমবারের মতো ড্রয়ে রুখে দেয় সাবিনা খাতুনরা।

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের গত আসরে গ্রুপ পর্বে মালদ্বীপকে ৩-১ গোলে হারিয়েছিল বাংলাদেশ। সেই জয়ই আজকের ম্যাচে আত্মবিশ্বাসী করে তুলেছে লাল-সবুজের মেয়েদের। তবে প্রতিপক্ষকে বেশ সমীহ করছেন বাংলাদেশ দলের কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন। ‘প্রতিপক্ষ হিসেবে মালদ্বীপ অবশ্যই শক্তিশালী। দক্ষিণ এশিয়ায় ভারত ও নেপাল সবচেয়ে এগিয়ে; বাকিরা সবাই সমান। এখন সব দেশ মেয়েদের ফুটবল নিয়ে কাজ করছে এবং সবাই উন্নতি করছে। সেমিফাইনাল খেলা, কাউকে খাটো করে দেখার কিছু নেই। আমরা সর্বোচ্চটা দিয়ে ফাইনালের ওঠার চেষ্টা করব।’

মালদ্বীপকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো সাফের ফাইনালে খেলতে চান বাংলাদেশ দলেল অধিনায়ক সাবিনা খাতুন। অভিজ্ঞ ও তরুণদের নিয়ে ভারসাম্যপূর্ণ দল নিয়ে এ লক্ষ্যতেই তার চোখ। ‘গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে সেমিফাইনালে ওঠায় আমি ভীষণ খুশি। এখন আমার একটাই লক্ষ্যÑফাইনালে ওঠা। এ মুহূর্তে কোনো ভাবনা নেই আমাদের। সেরাটা দিয়ে লক্ষ্য পূরণ করতে চাই।’

বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল যখন হতাশায় নিমজ্জিত, তখন দেশের নারী ফুটবলাররা একের পর সাফল্য নিয়ে আসছেন। এবার সেই তালিকায় আরও একটি পালক যুক্ত হওয়ার অপেক্ষায়। এখন দেখার বিষয়, আজ রাতে মালদ্বীপ-বাধা পার করতে পারে কিনা বাংলাদেশের মেয়েরা। এরপর না হয় শিরোপা নিয়ে ভাবা যাবে!