সারা বাংলা

সৈয়দপুরের স্থানীয় শহীদ দিবস পালিত

প্রতিনিধি, সৈয়দপুর (নীলফামারী): দিনব্যাপী নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলায় গতকাল সোমবার স্থানীয় শহীদ দিবস পালিত হয়েছে।

১৯৭১ সালে স্বাধীনতাযুদ্ধ শুরুর প্রাক্কালে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী ও তাদের এদেশীয় দোসররা সৈয়দপুরের রাজনীতিবিদ, ব্যবসায়ী, চিকিৎসক, সরকারি চাকরিজীবীসহ স্বাধীনতাকামী নিরীহ নানা শ্রেণি-পেশার প্রায় দেড়শ’ মানুষকে ধরে নিয়ে সৈয়দপুর সেনানিবাসে আটকে রাখে। এখানে প্রায় ১৯ দিন তাদের ওপর চালানা হয় নির্মম অত্যাচার-নির্যাতন। ১২ এপ্রিল তাদের সৈয়দপুর থেকে ৪০ কিলোমিটার দূরে রংপুর সেনানিবাসের দক্ষিণে নিসবেতগঞ্জ এলাকায় ঘাঘট নদীর বালুচরে গুলি হত্যা করা হয়। সেই থেকে ১২ এপ্রিল দিনটিকে সৈয়দপুরে ‘স্থানীয় শহীদ দিবস’ হিসেবে পালন করা হচ্ছে।

দিবসটিতে মুক্তিযুদ্ধে শহীদের সন্তানদের সংগঠন প্রজন্ম ’৭১ সৈয়দপুর উপজেলা শাখার গৃহীত অন্য কর্মসূচির মধ্যে ছিল শহরের সব বাসাবাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে কালো পতাকা উত্তোলন, কালো ব্যাজ ধারণ, মিলাদ-মাহফিল ও বিশেষ দোয়া। আর এবারে চলমান বৈশ্বিক প্রাণঘাতী কভিড-১৯ প্রাদুর্ভাবের কারণে স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব মেনে দিবসের কর্মসূচি সংক্ষিপ্ত করা হয়েছে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

সকাল সাড়ে ৮টায় শহরের শহীদ জিকরুল হক সড়কের শহীদ স্মৃতি অম্লান চত্বরে জাতীয় ও সাংগঠনিক পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে স্থানীয় শহীদ দিবসের কর্মসূচি শুরু হয়। পরে সকাল সোয়া ৯টায় প্রথমে সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মোখছেদুল মোমিন ও সাধারণ সম্পাদক মো. মহসিনুল হক মহসিন শহীদ স্মৃতি অম্লানে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন।

পরে একে মুক্তিযুদ্ধে শহীদের সন্তানদের সংগঠন প্রজন্ম ’৭১ সৈয়দপুর উপজেলা শাখা, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ড, সৈয়দপুর হিন্দু কল্যাণ সমিতি ও কেন্দ্রীয় শ্মশান কমিটির নেতৃবৃন্দ শহীদ স্মৃতি অম্লানে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এ সময় সৈয়দপুর পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) মো. রফিকুল ইসলাম বাবু, বীর মুক্তিযোদ্ধা একেএম ফজলুল হক, বীর মুক্তিযোদ্ধা মির্জা সালাউদ্দিন বেগ, বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. ইউনুস আলী, বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আতাউর রহমান ময়না, প্রজš§ ’৭১ সৈয়দপুর উপজেলা শাখার সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মনজুর হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..