দিনের খবর প্রচ্ছদ শেষ পাতা

সোনালী ব্যাংককে মালিকানা দেওয়ার নির্দেশ

হলমার্কের ৩৮৩৪ শতক জমি

নিজস্ব প্রতিবেদক: বহুল আলোচিত অর্থ আত্মসাৎকারী প্রতিষ্ঠান হলমার্ক গ্রুপ। সেই হলমার্ক গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান হলমার্ক ফ্যাশন লিমিটেডের অনুকূলে ঢাকার সাভারে থাকা তিন হাজার ৮৩৪ শতক জমির ভোগ ও দখলের মালিকানা সোনালী ব্যাংক লিমিটেডকে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল ঢাকার অর্থঋণ আদালতের বিচারক জাহাঙ্গীর হোসেন এ আদেশ দেন।

সোনালী ব্যাংকের প্যানেল আইনজীবী জাহাঙ্গীর হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, হলমার্ক ফ্যাশন লিমিটেডের এমডি ও চেয়ারম্যান সোনালী ব্যাংকে সম্পত্তি বন্ধক দেওয়ার শর্তে ঋণ নিয়েছিলেন। তারা ঋণের টাকা পরিশোধ না করায় আমরা ২০১৮ সালের ১ জানুয়ারি আদালতে মামলা করি। ২০১৯ সালের ১৩ নভেম্বর হলমার্ক ফ্যাশন লিমিটেডের তিন হাজার ৮৩৪ শতক জমি ক্রোক করার আবেদন করা হয়। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল আদালত হলমার্কের জমির ভোগ ও দখলের মালিকানার সনদ সোনালী ব্যাংকে প্রদান করেন।

সূত্র জানায়, সরকারি খাতের সোনালী ব্যাংকসহ ২৬টি ব্যাংকে হলমার্ক গ্রুপ ঋণ জালিয়াতি করেছে। এর মাধ্যমে তারা সাড়ে চার হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ করে, যার পুরোটাই এখন খেলাপি হয়ে গেছে। সুদসহ এর পরিমাণ আরও বেশি।

উল্লেখ্য, ২০১২ সালে হলমার্কের ঋণ জালিয়াতির খবর প্রথম প্রকাশিত হয়। আলোচিত এ কেলেঙ্কারির হোতা হলমার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর মাহমুদ হলেও এর সঙ্গে সোনালী ব্যাংকের অনেক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জড়িত ছিলেন। এ ঘটনায় ২০১২ সালের ৪ অক্টোবর রমনা থানায় মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

মামলায় হলমার্কের চেয়ারম্যান জেসমিন ইসলামসহ বেশ কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর তদন্ত শেষে ২০১৩ সালের ৭ অক্টোবর ১১ মামলায় চেয়ারম্যান জেসমিন ইসলাম, ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর মাহমুদ, তার ভায়রা তুষার আহমেদসহ ২৬ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র আদালতে জমা দেওয়া হয়।

পরে ঢাকার জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ আদালত ২০১৬ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি ও ২৭ মার্চ আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন। মামলাগুলো বিচারের জন্য ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-১-এ বদলি করা হয়। আসামিদের মধ্যে কারাগারে আছেন হলমার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ আটজন। অন্যরা পলাতক রয়েছেন। তানভীর মাহমুদ কাশিমপুর কারাগারে আছেন।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..