কোম্পানি সংবাদ পুঁজিবাজার

সৌদি টেলিকমকে ক্যাপাসিটি হস্তান্তর করবে বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল

নিজস্ব প্রতিবেদক: সৌদি টেলিকমকে ৬ী১০০ জিবিপিএস ক্যাপাসিটি হস্তান্তর করবে বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল কোম্পানি লিমিটেড। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রাপ্ত তথ্যমতে, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল কোম্পানি লিমিটেডের এসএমডবিøউ-৫-এর পশ্চিম দিকের অংশ অর্থাৎ সৌদি আরবের ইয়ানবু সমুদ্রবন্দর থেকে ফ্রান্সের মার্সেই অঞ্চলের দিকে ৬ী১০০ জিবিপিএস ক্যাপাসিটি হস্তান্তর করবে সৌদি টেলিকমকে। আর এই ক্যাপাসিটি হস্তান্তরের মাধ্যমে বাংলাদেশ সাবমেরিনকে এককালীন ৩৬ লাখ ইউএস ডলার প্রদান করবে সৌদি টেলিকম। তবে উভয় পক্ষের মধ্যে আনুষ্ঠানিকভাবে চুক্তির স্বাক্ষর হলে তা কার্যকর হবে। হস্তান্তর কার্যক্রম সম্পন্ন হলে বাংলাদেশ সাবমেরিনের অব্যবহƒত ওই অঞ্চলের কার্যক্রম ও রক্ষণাবেক্ষণের খরচও কমে যাবে। অর্থাৎ কোম্পানিটির অব্যবহƒত অংশ হস্তান্তর করে একদিকে ওই অঞ্চলের কার্যক্রম ও রক্ষণাবেক্ষণের খরচও কমবে, একই সঙ্গে এককালীন ৩৬ লাখ ইউএস ডলার নগদ অর্থ পাবে।

২০২০ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য কোম্পানিটি ২০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে। ওই সময় শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৫ টাকা ৮০ পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) হয়েছে ৪০ টাকা ৯৩ পয়সা।

এদিকে গতকাল ডিএসইতে কোম্পানিটির শেয়ারদর এক দশমিক ৪৬ শতাংশ বা দুই টাকা ৬০ পয়সা বেড়ে প্রতিটি সর্বশেষ ১৮০ টাকা ৪০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ১৮০ টাকা ৪০ পয়সা। দিনজুড়ে ২০ লাখ ৬৭ হাজার ১০৪ শেয়ার মোট তিন হাজার ৪৩৩ বার হাতবদল হয়। যার বাজারদর ৩৭ কোটি ৫৫ লাখ ২০ হাজার টাকা। দিনজুড়ে শেয়ারদর সর্বনি¤œ ১৭৫ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ১৮৯ টাকা ৭০ পয়সায় হাতবদল হয়। গত এক বছরে শেয়ারদর ৬৫ টাকা ৬০ পয়সা থেকে ১৮৯ টাকা ৭০ পয়সার মধ্যে ওঠানামা করে।

কোম্পানিটি ২০১২ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়ে বর্তমানে ‘এ’ ক্যাটেগরিতে লেনদেন হচ্ছে। এক হাজার কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ১৬৪ কোটি ৯০ লাখ ৬০ হাজার টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ৪৩৭ কোটি ৭৭ লাখ টাকা।

কোম্পানিটির মোট ১৬ কোটি ৪৯ লাখ পাঁচ হাজার ৫১০ শেয়ার রয়েছে। ডিএসইর সর্বশেষ তথ্যমতে, মোট শেয়ারের মধ্যে সরকারি ৭৩ দশমিক ৮৪ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক ১১ দশমিক ৫৮ শতাংশ, বিদেশি ২ দশমিক ৭২ শতাংশ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীর কাছে ১১ দশমিক ৮৬ শতাংশ শেয়ার রয়েছে। সর্বশেষ বার্ষিক প্রতিবেদন ও বাজারদরের ভিত্তিতে শেয়ারের মূল্য আয় (পিই) অনুপাত ৩১ দশমিক ১০ ও হালনাগাদ অনিরীক্ষিত ইপিএসের ভিত্তিতে ২২ দশমিক ৪৪।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..