স্পোর্টস

সৌম্য সরকার বাদ, চমক নাঈম-আমিনুল

ক্রীড়া প্রতিবেদক: অনেকদিন ধরেই ব্যাট হাতে চেনা ছন্দে নেই সৌম্য সরকার। তারপরও তিন ফরম্যাটেই ক্রিকেটে একাদশেই ছিলেন এ বাঁহাতি। যে কারণে সমালোচনার মুখেও পড়েছিলেন নির্বাচকরা। শেষ পর্যন্ত গত পরশু ত্রিদেশীয় সিরিজে আফগানিস্তানের বিপক্ষে হারের পরই তাকে বাদ পড়তে হয়েছে। তার জায়গা নিয়েছেন চমক হয়ে আসা মোহাম্মদ নাঈম শেখ। এদিকে অলরাউন্ডার আমিনুল ইসলাম বিপ্লব টাইগার স্কোয়াডে জায়গা পেয়েছেন সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সের বিবেচনায়। তাছাড়া ফিরেছেন রুবেল হোসেন ও শফিউল ইসলাম। আর প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টি দলে সুযোগ পেয়েছেন নাজমুল হোসেন শান্ত।
গত মে মাসে আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজের পর থেকেই রান খরায় ভুগছিলেন সৌম্য! গত জুলাইয়ে শ্রীলঙ্কা সফরে একটি হাফসেঞ্চুরি ছাড়া বলার মতো কোনো ইনিংস নেই তার। চলতি ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজে দুই ম্যাচে এ বাঁহাতি রান করেছেন ৪ ও ০। তাই এবার বাদ পড়তে হয়েছে তার।
প্রথমবার জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়া নাঈম শেখ ঘরোয়া ক্রিকেটে দারুণ পারফর্ম করছেন অনেকদিন ধরেই। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের ২০১৭-১৮ মৌসুমে লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের হয়ে ১২ ম্যাচে ৪৬.৩৩ গড় ও ৮২ স্ট্রাইক রেটে করেছিলেন ৫৫৬ রান। গত মৌসুমে একই ক্লাবের হয়ে ১৬ ম্যাচে ৩ সেঞ্চুরি ও ৫ হাফসেঞ্চুরিতে ৮০৭ রান করেন ৫৩.৮০ গড় ও ৯৪.৩৮ স্ট্রাইক রেটে। তারই পুরস্কার এবার তিনি পেলেন।
এদিকে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে বিকেএসপির হয়ে নজর আমিনুল নজর কেড়েছিলেন মূলত ব্যাটিং দিয়েই। ৪৪০ রান করেছিলেন ৪০ গড়ে। সম্প্রতি এ অলরাউন্ডার হাইপারফরম্যান্স স্কোয়াডে থেকে লেগ স্পিনে সবাইকে মুগ্ধ করেন। তাই জাতীয় দলের টি-টোয়েন্টি স্কোয়াডে জায়গা পেয়েছেন। তারপরও এ দুই ক্রিকেটারের দলে নেয়ার ব্যাখ্যা দিয়েছেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু, ‘বিপ্লবকে নেওয়া হয়েছে মূলত কোচের আগ্রহে। প্র্যাকটিসে ওকে দেখে কোচের ভালো লেগেছে। আমরা চেয়েছিলাম ওকে ভারতে পাঠাতে (এইচপির হয়ে)। কিন্তু কোচ বেশ জোরাজুরি করছিলেন যে ওকে আরও ভালোভাবে দেখতে চান। এ জন্যই নিয়েছি। এদিকে নাঈম শেখ নেওয়া হয়েছে ঘরোয়া ও বয়সভিত্তিক ক্রিকেটের পারফরম্যান্সের বিবেচনায়।’
সৌম্য ছাড়াও টাইগার টি-টোয়েন্টি স্কোয়াড থেকে বাদ পড়েছেন অলরাউন্ডার মেহেদি হাসান ও ইয়াসিন আরাফাত। আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচের আগে হুট করেই দলে নেওয়া আবু হায়দারও বাদ না খেলেই।
বাদ পড়লেও সৌম্যকে ‘এ’ দলের সঙ্গে শীলঙ্কা সফরে পাঠাচ্ছে বিসিবি। এ ব্যাপারে প্রধান কোচ বলেন, ‘অনেক দিন থেকেই সৌম্য রান করছে না এই ফরম্যাটে। তবু এ সিরিজে সুযোগ দিয়েছিলাম। কিন্তু আর রাখতে পারছি না। ওকে শ্রীলঙ্কায় পাঠাব ‘এ’ দলের হয়ে। নাঈম তো বেশ কিছুদিন ধরেই আমাদের বিবেচনায় আছে। টি-টোয়েন্টির জন্যই ভেবেছি ওকে। দেখি কেমন করে।’
রুবেল সবশেষ দেশের জার্সিতে টি-টোয়েন্টি খেলেছিলেন গত বছর ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও যুক্তরাষ্ট্র সফরে। শফিউল টি-টোয়েন্টিতে শেষবার খেলেছেন ২০১৭ সালের দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে। দীর্ঘদিন পর এবার তারা সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের ক্রিকেটে টাইগার একাদশে জায়গা পাবেন তা নিয়ে কিন্তু রয়েছে অনিশ্চয়তা। কেননা মোস্তাফিজ ও সাইফ উদ্দিন দারুণ বোলিং করছেন।
বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি দল
সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাব্বির রহমান, মোসাদ্দেক হোসেন, লিটন কুমার দাস, আফিফ হোসেন, তাইজুল ইসলাম, রুবেল হোসেন, শফিউল ইসলাম, মোস্তাফিজুর রহমান, মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন, মোহাম্মদ নাঈম শেখ, আমিনুল ইসলাম বিপ্লব ও নাজমুল হোসেন শান্ত।

সর্বশেষ..